জালালাবাদ গ্যাস, কাজ নেই তবু বন্ধ হচ্ছে না নিয়োগ

ওয়েছ খছরু, সিলেট থেকে

শেষের পাতা ২৬ জানুয়ারি ২০২০, রোববার | সর্বশেষ আপডেট: ৫:২০

নতুন করে গ্যাস সংযোগ বন্ধ। কাজ নেই অনেকের। অবসর সময় কাটাচ্ছেন শতাধিক কর্মচারী। দিনে একবার অফিসে এসে হাজিরা দিয়ে চলে যান। মাস শেষে গুনেন বেতনের টাকা। সিলেটের জালালাবাদ গ্যাসের বর্তমান পরিস্থিতি এ রকম। এর পরও জালালাবাদ গ্যাসে নানা কৌশলে লোক নিয়োগের ‘ধান্ধা’ চালিয়েছেন ঊর্ধ্বতনরা। ইতিমধ্যে নিয়োগ বাণিজ্য করতে রান সিকিউরিটির মাধ্যমে প্রায় ৯০ জন কর্মচারীকে বিভিন্ন পদে আউট সোর্সিংয়ের মাধ্যমে নিয়োগ দেয়া হয়েছে।
নিয়োগের নামে লুটে নেয়া হয়েছে কোটি কোটি টাকা। এখন কর্মচারীর চাপে ন্যুব্জ জালালাবাদ গ্যাসের বিভিন্ন দপ্তর। সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন- হেল্পার, ড্রাইভার, ক্লিনার ও পিয়ন পদে অনার্স, মাস্টার্স ও বিএ পাস ব্যক্তিদের নিয়োগ দেয়া হয়েছে। তাদের দিয়ে এসব পদে কাজ করাতেও ‘চক্ষুলজ্জার’ মুখে পড়ছেন কর্মকর্তারা। এর বাইরে তাদের অনেককেই বসার জায়গা দেয়া সম্ভব হচ্ছে না। এসব নিয়ে অফিসের ভেতরে অস্বস্তিকর অবস্থাও বিরাজ করছে। সংকট থাকার কারণে সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে সিলেটের জালালাবাদ গ্যাসে প্রায় ১০ বছর ধরে নতুন করে গ্যাস সংযোগ বন্ধ রয়েছে।

বিক্রয়কারী প্রতিষ্ঠান হওয়ার কারণে গ্যাস সংযোগ, রক্ষণাবেক্ষণের জন্য লোকবলের প্রয়োজন। কিন্তু যেখানে গ্যাস সংযোগ বন্ধ সেখানে অনেক কর্মচারী কাজহীন অবস্থায় সময় কাটাচ্ছে। জালালাবাদ গ্যাসে বর্তমানে স্থায়ীভাবে প্রায় ৪৫০ জন কর্মকর্তা ও কর্মচারী রয়েছেন। এর মধ্যে ২০০ জন রয়েছেন কর্মচারী। হেড অফিস আঞ্চলিক কার্যালয় পূর্ব, পশ্চিম, উত্তর, দক্ষিণ, মাধবপুর, হবিগঞ্জ, শাহজিরবাজার, শ্রীমঙ্গল সুনামগঞ্জ, মৌলভীবাজার, কুলাউড়া, বড়লেখা এবং ঢাকা লিয়াজো অফিসে এসব কর্মকর্তা কর্মচারী কর্মরত। কর্মচারীরা জানিয়েছেন- ২শ’ জনের মধ্যে প্রতিদিন ৫০ জনের মতো কাজ পান। অন্যরা অলস সময় কাটান। এর বাইরে মাস্টার রোলে জালালাবাদ গ্যাসে প্রায় ১০ বছর ধরে আরো ৭৬ জন কর্মচারী রয়েছেন।

তাদের স্থায়ী নিয়োগ দেয়া হয়নি। জালালাবাদ গ্যাসের সাবেক এক সিবিএ নেতা জানিয়েছেন- এই ৭৬ জন কর্মচারী জালালাবাদ গ্যাসের বোঝা। এ কারণে তাদের স্থায়ী নিয়োগ কিংবা তাদের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিতে সিবিএর পক্ষ থেকে অনেক আবেদন দেয়া হয় কর্তৃপক্ষকে। এ নিয়ে বেশ কয়েক দফা বৈঠকও করা হয়। এরপরও তাদের ব্যাপারে কোনো সিদ্বান্ত দেয়া হয়নি। বর্তমানে ওই ৭৬ জন কর্মচারী স্থায়ী নিয়োগের জন্য উচ্চ আদালতের দ্বারস্থ হয়েছেন। এখন তাদের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত দেবেন আদালত। তবে তারা কাজ করে যাচ্ছেন। এই অবস্থায় গত জুলাই থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত রান সিকিউরিটির মাধ্যমে আউট সোর্সিংয়ের নামে ৯০ জন কর্মচারী নিয়োগ দেয়া হয়েছে। প্রয়োজনীয়তা দেখিয়ে কোনো ধরনের টেন্ডার আহ্বান না করেই আউট সোর্সিংয়ের মাধ্যমে এসব কর্মী নিয়োগ দেয়া হয়। জালালাবাদ গ্যাসের এক কর্মকর্তা মানবজমিনকে জানিয়েছেন- শুধুমাত্র নিয়োগ বাণিজ্য করতে অযৌক্তিকভাবে আউট সোর্সিংয়ের নামে এই নিয়োগ দেয়া হয়। গত ডিসেম্বর থেকে তারা অফিসের কাজে রয়েছে। এতে করে বর্তমানে লোকবলের ভারে ন্যুব্জ হয়ে পড়েছে জালালাবাদ গ্যাস। আর যাদের নিয়োগ দেয়া হয়েছে তারা বেশিরভাগই অনার্স, মাস্টার্স ও বিএ পাস। অনেকের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে- তারা কেউ কেউ ১ থেকে ২ লাখ টাকা ঘুষ দেয়ার মাধ্যমে চাকরিতে যোগ দিয়েছেন। তাদের বলা হয়েছে এখন আউট সোর্সিংয়ের মাধ্যমে ঢুকলে বেতন পাওয়া যাবে। পরবর্তীতে তাদের স্থায়ী নিয়োগ দেয়া হবে।

এ কারণে ক্লিনার, হেল্পারসহ চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী পদে তারা ঢুকেছেন। এই নিয়োগ প্রক্রিয়ার সঙ্গে সম্পৃক্ত জালালাবাদ গ্যাসের সাবেক এমডি এহসানুল হক পাটোয়ারী। মেয়াদ শেষ হওয়ার আগে তিনি ডিমান্ড প্রস্তুত করে রান সিকিউরিটির মাধ্যমে এই লোকবল নিয়োগ করেন। তবে সাবেক এমডি এহসানুল হক পাটোয়ারী মানবজমিনকে জানিয়েছেন- ডিমান্ড দিয়েছে বিভিন্ন দপ্তর। এর প্রেক্ষিতে অল্প সংখ্যক লোক নেয়া হয়েছিল। ৯০ জন কর্মচারী নিয়োগের বিষয়টি তার জানা নেই বলে জানান। তবে, জালালাবাদ গ্যাসের উপ-মহাব্যবস্থাপক (জেনারেল সার্ভিস) আনিসুর রহমান ভূঁইয়া রান সিকিউরিটির মাধ্যমে ৯০ জন লোক নিয়োগের বিষয়টি স্বীকার করেছেন। তিনি জানিয়েছেন- অনার্স, মার্স্টাস ডিগ্রিধারী যারা এসেছে তারা নিজ থেকেই এসেছে। আমরা সম্মান রক্ষার জন্য কম্পিউটারসহ সম্মানজনক পদে পদায়ন করছি। এতে করে অফিসে অতিরিক্ত লোকবল হয়নি বলে জানান তিনি। তিনি আরো বলেন, খুব শিগগিরই টেন্ডার প্রক্রিয়ার মাধ্যমে নিয়োগ দেয়া হবে।

আপনার মতামত দিন



শেষের পাতা অন্যান্য খবর

ফের দরপতনের কবলে শেয়ারবাজার

২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০

এনআরবি’র সেমিনার

প্রবাসীদের ভোটার হওয়ার সুস্পষ্ট নীতিমালা প্রয়োজন

২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০

রণক্ষেত্র দিল্লি নিহত বেড়ে ১০

২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০

টিআইবি’র গবেষণা

দুদক ক্ষমতাসীনদের প্রতি নমনীয় বিরোধীদের হয়রানি

২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০



শেষের পাতা সর্বাধিক পঠিত



মাসে তোলেন কোটি টাকার চাঁদা

কক্সবাজারের কিং রাসেল

বন্ধ রেখেছে চায়না ইস্টার্ন

করোনা আতঙ্কে চীনের সঙ্গে ফ্লাইট কমছে