নারায়ণগঞ্জে নিখোঁজ দুই মাদ্রাসা ছাত্রের লাশ উদ্ধার

স্টাফ রিপোর্টার, নারায়ণগঞ্জ থেকে

এক্সক্লুসিভ ১৪ জানুয়ারি ২০২০, মঙ্গলবার | সর্বশেষ আপডেট: ১০:৪০

সিদ্ধিরগঞ্জে নিখোঁজের তিনদিন পর শামীম (৭) ও মনির হোসেন (৮) নামে দুই মাদ্রাসা ছাত্রের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার বেলা ১১টার দিকে থানার বার্মাস্ট্যান্ড এলাকায় কবরস্থানের পুকুর থেকে লাশ দুইটি উদ্ধার করা হয়। এসময় কান্নায় ভেঙে পড়েন নিহতদের পরিবারের স্বজনরা। এ ঘটনায় দুই পরিবারে চলছে শোকের মাতম। পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, শামীম ও মনির সিদ্ধিরগঞ্জের আইলপাড়া দারুস সালাম মাদ্রাসার ছাত্র এবং এসও রোড এলাকার বাদশা মিয়ার বাড়িতে ভাড়া থাকে তারা। সারাদিন বন্ধুর মতো এক সঙ্গে চলাফেরা ও খেলাধুলা করে। তাদের দুইজনের বাবা পেশায় ব্যাটারিচালিত আটোরিকশা চালক। হতদরিদ্র এই দুই পরিবারের সন্তান শামীম ও মনির গত ১০ই জানুয়ারি শুক্রবার দুপুরে খেলতে যাওয়ার কথা বলে একসঙ্গে বাসা থেকে বের হয়ে নিখোঁজ হয়।
পরে বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করে তাদের না পেয়ে শামীমের বাবা রবিউল আলম ও মনিরের বাবা জাহাঙ্গীর আলম পরদিন ১১ই জানুয়ারি সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। এদিকে সোমবার সকালে বার্মাস্ট্যান্ড এলাকায় কবরস্থানের পুকুরে দুই বালকের লাশ ভেসে উঠলে স্থানীয়রা থানা পুলিশকে জানায়। পরে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক হাফিজুল ইসলাম হাফিজের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে গিয়ে স্থানীয়দের সহায়তায় পুকুর থেকে ভাসমান অবস্থায় লাশ দুইটি উদ্ধার করে। পরে স্বজনরা এসে শামীম ও মনিরের লাশ শনাক্ত করেন। এসময় স্বজনদের আহাজারিতে পুকুরপাড়ের বাতাস ভারী হয়ে উঠে। পুত্রশোকে কাতর মনিরের বাবা জাহাঙ্গীর আলম আর্তচিৎকার করতে করতে বলেন, গত পাঁচ বছর আগেও মনিরের বড় একটি বোন পুকুরে ডুবে মারা যায়। এবার মনিরের মৃত্যুতে দুই সন্তান হারিয়ে তিনি নিঃস্ব হয়ে গেছেন। তিনি বলেন, আজকে সকালেও আমি ছেলেকে খুঁজতে বেরিয়েছিলাম। পরে খবর পাই পুকুরে লাশ ভাসছে। এ খবর শুনে আমি আর স্থির থাকতে পারিনি। পুকুরের কাছে গিয়ে দেখি আমার মনিরের লাশ ভাসতেছে। ছেলে হারানোর বেদনায় কাতর শামীমের বাবা রবিউল আলম বলেন, আমার আদরের সন্তানটাকে আমি হারিয়ে ফেলেছি। আমি আর বাঁচতে চাই না। আমি আমার সন্তানকে জীবিত ফেরত চাই। খবর পেয়ে জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মেহেদি ইমরান সিদ্দিকী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে সাংবাদিকদের জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে পুকুরে গোসল করতে গিয়ে পানিতে ডুবে তাদের মৃত্যু হয়ে থাকতে পারে। তবে ময়নাতদন্তের পর মৃত্যুর প্রকৃত কারণ সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যাবে। তিনি বলেন, বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে এ ব্যাপারে তদন্ত চলছে। এদিকে নিহত দুই মাদ্রাসা ছাত্র শামীম ও মনিরের লাশ ময়না তদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ সদরের জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়না তদন্তের পর স্বজনদের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হবে বলে পুলিশ জানিয়েছে। নিহত শামীমের পৈর্তৃক বাড়ি কুমিল্লা জেলার মুরাদনগরে এবং মনিরের রংপুর জেলার গঙ্গাচড়া থানা এলাকায়।

আপনার মতামত দিন

এক্সক্লুসিভ অন্যান্য খবর

সেই প্রেমের কলেজের অপেক্ষা

২০ জানুয়ারি ২০২০





এক্সক্লুসিভ সর্বাধিক পঠিত