মিস ওয়ার্ল্ড হলেন জ্যামাইকার সুন্দরী টনি-অ্যান সিং

বিনোদন ডেস্ক

শেষের পাতা ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯, সোমবার | সর্বশেষ আপডেট: ১২:৪৮

নতুন মিস ওয়ার্ল্ড হয়েছেন জ্যামাইকার সুন্দরী টনি-অ্যান সিং। সে সূত্রে ২৬ বছর পর বিশ্বসুন্দরীর মুকুট ফিরলো জ্যামাইকায়। এর আগে ১৯৬৩, ১৯৭৬ ও ১৯৯৩ সালে তিনবার দেশটির সুন্দরীরা এই মুকুট জিতেছিলেন। টনি-অ্যান সিং চতুর্থবারের মতো এটি দেশকে উপহার দিলেন। ১৪ই ডিসেম্বর যুক্তরাজ্যের লন্ডনে এক্সেল এরেনায় অনুষ্ঠিত মিস ওয়ার্ল্ডের গ্র্যান্ড ফিনালেতে বিজয়ীর নাম ঘোষণা করেন মিস  ওয়ার্ল্ড অর্গানাইজেশনের চেয়ারম্যান ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জুলিয়া মোরলি। তার মুখে নিজের নাম শুনে বিস্মিত হন টনি। নতুন মিস ওয়ার্ল্ডকে নীল রঙা মুকুট মাথায় পরিয়ে দেন গতবারের বিশ্বসুন্দরী মেক্সিকোর ভ্যানেসা পনসে দেলেওন। প্রতিযোগিতার প্রথম রানারআপ নির্বাচিত হন ফ্রান্সের অফেলি মেজিনো।
আর দ্বিতীয় রানারআপ হয়েছেন ভারতের রাজস্থানের মেয়ে সুমন রায়। ফ্লোরিডা স্টেট ইউনিভার্সিটি পড়ুয়া এবারের মিস ওয়ার্ল্ড বিজয়ী টনি-অ্যান সিং মনোবিজ্ঞানের ছাত্রী। স্বপ্ন তার চিকিৎসক হওয়ার। তিনি জানিয়েছেন, তার অবসর কাটে গান শুনে। তবে রান্নাটাও টনি-অ্যান সিংয়ের বেশ পছন্দের। সময় পেলেই এটা-সেটা রেঁধে ফেলেন তিনি। টনি আরো জানিয়েছেন, তিনি নারী ও শিশুদের জন্য টেকসই পরিবর্তনের লক্ষ্যে কাজ করতে চান। তার সব অর্জনের মধ্যে সৌন্দর্যটা সবচেয়ে কম গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করেন তিনি। তার মতে, আমরা যদি নারীদের কথা বলি এটা এমন কিছু পদক্ষেপের বিষয়ে হওয়া উচিত যা তাদের সন্তান এবং সন্তানের সন্তানদের জীবনের জন্য মূল্যবান ব্যাপার হয়ে উঠবে। গান গেয়ে বিচারকদের মন জয় করে ট্যালেন্ট বিভাগে সেরা হয়েছেন টনি-অ্যান সিং। এর পুরস্কার হিসেবে ফাইনালে হুইটনি হাউস্টনের ‘আই হ্যাভ নাথিং’ গেয়ে শোনানোর সুযোগ হয় তার। এ পরিবেশনার মাধ্যমে তিনি বিচারকদের মুগ্ধ করেন। ব্রিটিশ ব্রডকাস্টার পাইরেস মরগান এই প্রতিযোগিতার প্রধান বিচারক ছিলেন। প্রশ্নোত্তর পর্বে তিনিই ফাইনালিস্টদের প্রশ্ন করেন। ‘মিস ওয়ার্ল্ড ২০১৯’ এই প্রতিযোগিতার ৬৯তম সংস্করণ। এ আসরের ফাইনাল মঞ্চে বিভিন্ন দেশের সুন্দরীরা নিজেদের সংস্কৃতি তুলে ধরেন। বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেছেন রাফিয়া নানজিবা তোরসা। বাহারি পোশাক পরে ফাইনালে নেচেছেন ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ ২০১৯’। তার মাথায় ছিল নানান রঙের পালক। তবে সেরা ৪০-এ জায়গা করে নিতে পারেননি তিনি। গত দুই আসরে বাংলাদেশের প্রতিযোগীদের মধ্যে জেসিয়া ইসলাম সেরা ৪০ ও জান্নাতুল ফেরদৌস ঐশী সেরা ৩০-এ পৌঁছেছিলেন। সেরা ৪০ থেকে সেমিফাইনালে জায়গা করে নেন ভারত, নেপাল, ফিলিপাইন, ভিয়েতনাম, কেনিয়া, নাইজেরিয়া, ব্রাজিল, মেক্সিকো, জ্যামাইকা, ফ্রান্স, রাশিয়া ও কুক আইল্যান্ডসের সুন্দরীরা। আর ফাইনালে উঠেছেন ভারত, নাইজেরিয়া, ব্রাজিল, জ্যামাইকা ও ফ্রান্সের সুন্দরীরা। প্রতিযোগিতার বিভাগ পর্যায়ের সর্বোচ্চ সম্মান ‘বিউটি উইথ অ্যা পারপাস’ জিতেছেন মিস ওয়ার্ল্ড নেপাল ২০১৯ আনুশকা শ্রেষ্ঠা। মাল্টিমিডিয়া অ্যাওয়ার্ডও পেয়েছেন তিনি। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সবচেয়ে বেশি ভোট, লাইক ও শেয়ারের ভিত্তিতে পুরস্কারটি উঠেছে তার হাতে। টপ মডেল খেতাব পেয়েছেন নাইজেরিয়ার নিয়াকাচি ডগলাস। স্পোর্টস বিভাগে সেরা হয়েছেন ব্রিটিশ ভার্জিন আইল্যান্ডের রিকিয়া ব্রেথওয়েট। জমকালো এই আয়োজন সঞ্চালনা করেছেন ব্রিটিশ পপতারকা পিটার আন্ড্রে ও মেগান ইয়াং।

আপনার মতামত দিন

শেষের পাতা অন্যান্য খবর

আতিকের ইশতেহার আজ থাকছে চমক

২৬ জানুয়ারি ২০২০

৩০ বছরের পরিকল্পনা তাপসের

২৬ জানুয়ারি ২০২০

সুজনের সংবাদ সম্মেলনে তথ্য

সিটি নির্বাচনে ব্যবসায়ী বেড়েছে

২৬ জানুয়ারি ২০২০

এবারের হারটা আরো বাজে

২৬ জানুয়ারি ২০২০

সাবেক পররাষ্ট্র সচিব শহিদুল হক

আইসিজে’র রায় মিয়ানমারের মিত্র দেশগুলোর অবস্থান পরিবর্তনে প্রভাব ফেলবে

২৬ জানুয়ারি ২০২০





শেষের পাতা সর্বাধিক পঠিত