অভিযোগের তদন্ত করে ব্যবস্থা নিলে জাবিতে এ পরিস্থিতি নাও হতে পারতো

দেশ বিদেশ

তামান্না মোমিন খান | ৭ নভেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার | সর্বশেষ আপডেট: ২:০২
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি ড. আ.আ.ম.স আরেফিন সিদ্দিক বলেছেন, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে বর্তমানে যে পরিস্থিতি তা অনাকাঙ্ক্ষিত। বেশ কিছুদিন ধরে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার কোনো সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় ছিল না। নানা ধরনের আন্দোলন চলছিল এই বিশ্ববিদ্যালয়ে। বর্তমান পরিস্থিতি এড়ানোর জন্য যেটা প্রয়োজন ছিল তা হলো সুষ্ঠু তদন্ত কমিটি গঠন করা। যে অভিযোগগুলো ছিল সেগুলোর সুষ্ঠু তদন্ত করে যদি ব্যবস্থা নেয়া যেত তাহলে হয়তো এই অবস্থা নাও আসতে পারতো। সেটা হয়নি। গত মঙ্গলবার যে পরিস্থিতি ছিল উপাচার্যের পক্ষে এবং বিপক্ষে দু দলের মধ্যে সরাসরি হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছিল। এরপরে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের বন্ধ ঘোষণা করা ছাড়া আর উপায় ছিল না।
বিশ্ববিদ্যালয় যদি বন্ধ ঘোষণা করা না হতো তাহলে হয়তো পরিস্থিতি আরো খারাপ হতো। বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা সাময়িক একটা সমাধান এনে দিয়েছে পরিস্থিতিকে শান্ত করতে। কিন্তু স্থায়ী সমাধানের জন্য একটি সুষ্ঠু তদন্ত কমিটি গঠন করতে হবে। যে অভিযোগগুলো এসেছে এগুলোর সত্যতা আছে কিনা তা যাচাই করতে হবে। সত্যতা যদি থাকে তবে সে অনুযায়ী যথাযথ ব্যবস্থা নিতে হবে। আর সত্যতা যদি না থাকে তবে অসত্য অভিযোগ আনা এবং আন্দোলনে যারা জড়িত তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। বিশ্ববিদ্যালয় একটি স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান। আমরা কখনও চাইবনা এখানে বাহির থেকে কোন হস্তক্ষেপ আসুক। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ছাত্র, শিক্ষক ও কর্মকর্তাদের এ সমস্যা সমাধানের সক্ষমতা আছে। আর কোন কারণে যদি তারা ব্যর্থ হয় তবে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন বা শিক্ষা মন্ত্রণালয় বিষয়টি দেখতে পারে। বিশ্ববিদ্যালয়ের অবস্থা যে জায়গায় গেছে তা থেকে উত্তরণের জন্য আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বায়ত্তশাসনের ওপরেই নির্ভর করতে চাই।

 


এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আগুন, কম্পিউটার-এসিসহ আসবাবপত্র পুড়ে গেছে

ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অভিশংসনের শুনানি শুরু

২৫ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট, সরাসরি অংশ নেয় ১১ জন

অপরাধ নির্মূল না হওয়া পর্যন্ত অভিযান চলবে

হাসপাতালে কাতরাচ্ছেন আহতরা

তূর্ণার চালক তাসের কোথায়?

এসপি হারুনের গাজীপুর অধ্যায়

ভুয়া সিভি দিয়ে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে মন্ত্রীর চাকরি!

বাবা-মা-ভাই ছাড়াই ছোঁয়ার দাফন

মোদি ভারতের প্রধান বিচারপতিকে কোনো চিঠি লিখেননি

সংসদে দাঁড়িয়ে ক্ষমা চাইলেন রাঙ্গা

‘জীবনের দাম’ বাড়বে কবে?

জাবিতে আন্দোলন অব্যাহত এক সপ্তাহের আল্টিমেটাম

চাঁদপুরে শোকের মাতম

রাজশাহীতে টেন্ডার নিয়ে দুই গ্রুপে সংঘর্ষে যুবলীগ কর্মী নিহত

বেনাপোলে কাস্টমসের ভোল্ট ভেঙে স্বর্ণ চুরি আটক ৫