নীলম উপত্যকায় কূটনীতিকদের নিয়ে গেছে পাকিস্তান

মানবজমিন ডেস্ক

বিশ্বজমিন ২২ অক্টোবর ২০১৯, মঙ্গলবার

রোববার সন্ত্রাসীদের ‘লঞ্চ প্যাড’ ধ্বংস করে দেয়ার যে দাবি করেছে ভারত তার সত্যতা সরেজমিনে যাচাই করতে বিদেশী কূটনীতিকদের একটি টিমকে আজাদ জম্মু কাশ্মীরের নীলম ভ্যালিতে নিয়ে গিয়েছে পাকিস্তান। ভারতের সেনাদের দাবি সত্য না মিথ্যা তা তাদের সামনে তুলে ধরা হয়। পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ড. মোহাম্মদ ফয়সাল আজ মঙ্গলবার এক টুইটে এ কথা বলেছেন। এ খবর দিয়েছে অনলাইন ডন। এতে আরো বলা হয়, ওইসব কূটনীতিককে আরো নিয়ে যাওয়া হবে নিয়ন্ত্রণ রেখার কাছে নওসেরি, শাহকোট এবং জুরা সেক্টরে এবং নাউসাদা গ্রামে, যে গ্রামে ভারতীয় সেনাদের হামলায় মারাত্মক ক্ষতি হয়েছে।

কূটনীতিকদের এই সফর আয়োজন করা হয়েছে যাতে তারা ভারতীয় সেনাপ্রধানের দাবি তারাই যাচাই করতে পারেন। তবে এই টিমে ভারতীয় হাই কমিশনের কোনো কর্মকর্তা যোগ দেন নি। এ সম্পর্কে টুইটে বলা হয়েছে, নিয়ন্ত্রণ রেখায় এই সফরে ভারত আমাদের সঙ্গে যোগ দেয় নি।
এমনকি তারা যে লঞ্চপ্যাডের কথা বলছে সে বিষয়ে সহযোগিতা করে নি, যেটা তারা ধ্বংস করেছে বলে দাবি করছে। ফলে ভারতের সেনাপ্রধান যে দাবি করেছেন তা শুধু দাবি বা অভিযোগ তোলার জন্য করা হয়েছে।  

ইন্টার সার্ভিসেস পাবলিক রিলেশনসের (আইএসপিআর) মহাপরিচালক মেজর জেনারেল আসিফ গফুরও ভারতীয় কর্মকর্তাদের অনুপস্থিতি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। তিনি প্রশ্ন রেখেছেন, ভারতের হাই কমিশন তার সেনাপ্রধানের অবস্থানের পাশে দাঁড়াতে পারে না। সেটা কি ভাল? তিনি টুইটে বলেছেন, নিয়ন্ত্রণ রেখায় পাকিস্তানে কূটনীতিকদের সঙ্গে যাওয়ার মতো নৌতিক সাহসটুকুও নেই ভারতীয় হাই কমিশনের স্টাফদের। গতকাল পোস্ট করা টুইটে তিনি বলেন, বিদেশী কূটনীতিকদের একটি গ্রুপ এবং মিডিয়া সত্য সন্ধানে মাঠপর্যায়ে যাচ্ছে নিয়ন্ত্রণ রেখায়। মেজর জেনারেল গফুর ভারতের সেনাদের দাবির পক্ষে প্রমাণ দেয়ার চ্যালেঞ্জও জানিয়েছিলেন।

ভারতের সেনাপ্রধান জেনারেল বিপিন রাওয়াত দাবি করেছিলেন যে, ভারতীয় সেনারা নীলম উপত্যকায় সন্ত্রাসীদের চারটি লঞ্চ প্যাড ধ্বংস করে দিয়েছে। এমন দাবিকে চ্যালেঞ্জ জানিয়েছিলেন জেনারেল গফুর। রোববার ভারতীয় সেনারা নিয়ন্ত্রণরেখা অতিক্রম করে বৈষম্যহীন এবং নির্দয়ের মতো গোলা নিক্ষেপ করতে থাকে। এতে পাকিস্তানের ৬ জন বেসামরিক ও একজন সেনা সদস্য নিহত হন। এরপরই বিপিন রাওয়াত ওই দাবি করেন। ভারতের এ দাবিকে তাৎক্ষণিকভাবে মিথ্যা বলে প্রত্যাখ্যান করে পাকিস্তান। সোমবার রাতে মেজর জেনারেল গফুর টুইটে বলেন, সেনাপ্রধান বিপিন রাওয়াত যে মিথ্যা দাবি করেছেন তার প্রতি ভারতীয়দের সমর্থন দেয়ার কোনো ভিত্তি নেই।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

জাফর আহমেদ

২০১৯-১০-২২ ০০:৫৯:০৯

এটা নতুন কিছু নয়।ভারত মিথ্যা দিয়ে যুদ্ধ জয়ের চেষ্টা আগে ও করেছে।

আপনার মতামত দিন

বিশ্বজমিন অন্যান্য খবর

‘বাংলাদেশ ইউক্রেন নয়’

২৬ জানুয়ারি ২০২০

করোনা ভাইরাস

মালয়েশিয়া ও সিঙ্গাপুরে আরো আক্রান্ত

২৬ জানুয়ারি ২০২০





বিশ্বজমিন সর্বাধিক পঠিত



জেগে উঠেছে পুরনো প্রেম

পালিয়েছেন বরের পিতা ও কনের মা