মিজান ও অমিত সাহা জানায়, আবরার শিবির করে

রুদ্র মিজান

দেশ বিদেশ ১৫ অক্টোবর ২০১৯, মঙ্গলবার | সর্বশেষ আপডেট: ১১:৪৬

অমিত সাহা
বুয়েটের আবরার ফাহাদকে ধরে নিয়ে প্রথম প্রশ্ন করা হয়েছিল, তুই শিবির করিস? আবরার হতভম্ভ হয়ে তাকিয়ে ছিলেন। একইভাবে আবারো প্রশ্ন করা হলে আবরার বলেছিলেন, না, ভাই। আমি শিবির করি না। কিন্তু বিশ্বাস হয়নি ছাত্রলীগ নেতাদের। বুয়েট ছাত্রলীগের উপ-আইন বিষয়ক সম্পাদক অমিত সাহা প্রথম ছাত্রলীগের অন্যান্য নেতাদের জানান যে, আবরার শিবির করে।
এ বিষয়ে গতকাল আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে চাঞ্চল্যকর এই হত্যা মামলার অন্যতম আসামি মেহেদি হাসান রবিন। বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মেহেদি হাসান রবিন জানান, আবরারের রুমমেট মিজান ও বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের উপ-আইন বিষয়ক সম্পাদক অমিত সাহা তাকে জানিয়েছিল আবরার শিবির করে। ওর সঙ্গে শিবিরের সংশ্লিষ্টতা আছে। ওর ফেসবুক বা মোবাইল ফোন চেক করলেই এটা নিশ্চিত হওয়া যাবে।
সে অনুযায়ী ঘটনার দিন ৬ই অক্টোবর রাত ৮টার দিকে আবরারকে ২০১১ নম্বর কক্ষে ডেকে আনা হয়।
১৬৪ ধারায় দেয়া জবানবন্দিতে হত্যাকাণ্ডের দায় স্বীকার করে সেই রাতের ঘটনার লোমহর্ষক বর্ণনা দিয়েছে রবিন। শিবির সন্দেহে আবরারকে ডেকে এনে নির্যাতন করার বর্ণনা দিয়ে মেহেদি হাসান রবিন বলেছে, আবরারকে প্রথম দফায় তিনি প্রশ্ন করেন, তুই নাকি শিবির করিস? আবরার অস্বীকার করে। পরে আবরারের ফোন ও ল্যাপটপ আনার জন্য বুয়েট ছাত্রলীগের সমাজসেবা বিষয়ক উপ-সম্পাদক ইফতি মোশাররফ সকাল ও তানভীরকে তার কক্ষে পাঠানো হয়। অনিক মোবাইল ফোনে আবরারের ফেসবুকে লগইন করে দেশের সাম্প্রতিক বিভিন্ন বিষয়ে কিছু স্ট্যাটাস পায়। তখন সে জিজ্ঞাসা করে, ক্যাম্পাসে কারা শিবির করে? তুই তাদের নাম বল? আবরার চুপ থাকে। তখন সে তাকে কিল ঘুষি মারে। ওই সময়ে রবিনও আবরারকে চড় থাপ্পড় মারে জানিয়ে বলে, একটা পর্যায়ে ক্রিকেটের স্ট্যাম্প দিয়ে তাকে পিটাই। কিছু সময় পর আমি অনিককে বলি যে ওকে পিটিয়ে শিবিরের নামগুলো বের করতে হবে। এরপর আমি চানখার পুল যাই খেতে। চানখার পুলে হোটেলে খাওয়া দাওয়ার সময় ম্যাসেঞ্জার গ্রুপে দেখতে পাই যে আবরারের অবস্থা খুবই খারাপ। তখন আমি হলে ফিরে আসি। এসে শুনি যে আবরারকে অমিতের কক্ষ থেকে বের করে পাশের ২০০৫ নম্বর কক্ষে নেয়া হয়েছে। ওই কক্ষে আবরার বমি করে। তখন আমি আবরারকে পুলিশের হাতে দেয়ার জন্য নিচে নামাতে বলি। এরপর জেমি, মোয়াজ ও শামীমসহ তিন-চার জন তাকে কোলে করে সিঁড়ি ঘরের পাশে নিয়ে যায়। পরে পুলিশ ও ডাক্তারকে খবর দেয়া হয়। এরপর ডাক্তার এসে তাকে মৃত ঘোষণা করে।

দেশ বিদেশ অন্যান্য খবর

বাজার সম্প্রসারণে জার্মান বিনিয়োগ পেলো ওয়ালটন

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

আন্তর্জাতিক বাজার সম্প্রসারণে বিশ্বের দ্রুত অগ্রসরমান ইলেকট্রনিক্স ব্র্যান্ড হিসেবে ওয়ালটনের পাশে দাঁড়াচ্ছে জার্মান বিনিয়োগ এবং ...

ট্রাম্পকে অভিশংসনের দুটি আর্টিকেল অনুমোদন কংগ্রেসে

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পকে অভিশংসন প্রক্রিয়ায় দুটি অভিযোগ বা আর্টিকেল অনুমোদন করেছে কংগ্রেসের প্রতিনিধি পরিষদের ...

ক্ষমতা না-ও ছাড়তে পারেন মাহাথির মোহাম্মদ

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

 ২০২০ সালের পরেও ক্ষমতায় থেকে যেতে পারেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ড. মাহাথির মোহাম্মদ। কাতারের রাজধানী দোহা’য় ...

সুদানের ক্ষমতাচ্যুত বশিরের রায় ঘোষণা

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

প্রায় ত্রিশ বছর পর ক্ষমতাচ্যুত সুদানের শাসক ওমর আল বশিরের বিরুদ্ধে দুর্নীতি মামলার রায় ঘোষণা ...

ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চল সফরে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্যের সতর্কতা

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

 নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনকে কেন্দ্র করে ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে চলমান সহিংস বিক্ষোভের প্রেক্ষিতে ভ্রমণ সতর্কতা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ...

বিতর্কিত নাগরিকত্ব আইনে ঢাকা-দিল্লির ‘স্বর্ণালী’ সম্পর্ক কেঁপে উঠেছে

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ককে ‘ট্রাবল-ফ্রি’ বা ঝামেলামুক্ত হিসেবে দেখে ভারত, যেখানে বহুবিধ সমস্যা রয়েছে। এমনকি বলা ...

শহীদ বুদ্ধিজীবীদের জীবনাদর্শ অনুসরণ করতে হবে: ঢাবি ভিসি

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেছেন,শহীদ বুদ্ধিজীবীদের জীবনাদর্শ অনুসরণ করে উদার, অসাম্প্রদায়িক ও ...





পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Mohammed Abdul Malek

২০১৯-১২-১৬ ০৮:৫২:০৫

সেই সময় হানাদার বাহিনী কারা ছিল?

আপনার মতামত দিন

দেশ বিদেশ সর্বাধিক পঠিত