ভিকারুননিসার নতুন অধ্যক্ষের যোগদানের বিষয়ে আদেশ আজ

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার | সর্বশেষ আপডেট: ১০:১৫
ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ হিসেবে ফওজিয়া রেজওয়ানের নিয়োগ স্থগিত চেয়ে করা রিট আবেদনের আদেশ আজ। তবে আজ মঙ্গলবার ১১টা পর্যন্ত তিনি (ফওজিয়া রেজওয়ান) যেন কর্মস্থলে যোগদান না করেন সেটি রাষ্ট্রপক্ষকে নিশ্চিত করতে বলেছে হাইকোর্ট। গতকাল বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এই মৌখিক আদেশ দেন। আদালতে রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দ। অন্যদিকে, রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত দাশগুপ্ত। শুনানিতে ইউনুছ আলী আকন্দ বলেন, সরকার ভিকারুন নিসায় মাউশি কর্মকর্তাকে নিয়োগ দিতে পারে না। এটা (নিয়োগ) তো দেবে গভর্নিং কমিটি। তখন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আদালতকে বলেন, আবেদনটি নট টু ডে (আজ নয়) রাখেন।
আমরা আইন দেখে উত্তর দেবো। জবাবে রিটকারী আইনজীবী বলেন, মঙ্গলবার অধ্যক্ষের যোগদান করার কথা। তাহলে তার যোগদান স্থগিত করা হোক। তখন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, বিষয়টি আমরা দেখবো। পরে আদালত বলেন, আগামীকাল (আজ) এটি আদেশের জন্য থাকবে। অধ্যক্ষ অন্তত মঙ্গলবার বেলা ১১টা পর্যন্ত যেন যোগদান করতে না পারেন, সে বিষয়টি ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল নিশ্চিত করবেন। পরে অ্যাডভোকেট ইউনুছ আলী আকন্দ সাংবাদিকদের বলেন, অধ্যক্ষ নিয়োগের বৈধতা নিয়ে আবেদন করেছিলাম। আদালত শুনানি নিয়ে রাষ্ট্র পক্ষের আবেদনের প্রেক্ষিতে আগামীকাল (আজ মঙ্গলবার) আদেশের জন্য রেখেছেন। তবে, আদালত বলেছেন, তিনি (ফওজিয়া রেজওয়ান) যেন মঙ্গলবার সকাল ১১টা পর্যন্ত কর্মস্থলে যোগদান না করেন। অপরদিকে, ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত দাসগুপ্ত জানান, তিনি আরও শুনানির জন্য সময় চেয়েছিলেন। আদালত আজ দিন ধার্য রেখে ফওজিয়া রেজওয়ান যেন সকাল ১১টা পর্যন্ত যোগদান না করেন সেটি রাষ্ট্র পক্ষকে নিশ্চিত করতে বলেছে।
এর আগে গত ১৫ই সেপ্টেম্বর ঢাকার সবুজবাগ সরকারি মহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালনরত মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতরের (মাউশি) বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ফওজিয়া রেজওয়ানকে ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ হিসেবে নিয়োগ দেয় সরকার। পরে ফওজিয়া রেজওয়ানের নিয়োগ স্থগিত চেয়ে গতকাল সকালে রিট আবেদনটি দায়ের করেন ভিকারুননিসার গভর্নিং বডির সাবেক সদস্য ও সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো. ইউনুছ আলী আকন্দ। তিনি রিট আবেদনে বলেন, ১৯৭৯ সালের রেগুলেশন ২(এ)(ই), ৩(১) (২) অনুযায়ী অধ্যক্ষ নিয়োগের ক্ষমতা গভর্নিং বডির এবং ২০০৯ সালের রেগুলেশন ৪১ (২)(খ)(৪) অনুযায়ী শিক্ষক-কর্মচারী নিয়োগের ক্ষমতা গভর্নিং বডির। কিন্তু সরকার অবৈধ ক্ষমতা ব্যবহার করে মাউশির একজন কর্মকর্তাকে অধ্যক্ষ পদে নিয়োগ দেয়।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

যানবাহনের অসুস্থ প্রতিযোগিতা বন্ধ করতে হবে

ক্রিকেটারদের ধর্মঘট ষড়যন্ত্রের অংশ

যেভাবে কোটিপতি ‘পলিথিন তবারক’

কীভাবে ভিআইপি লাউঞ্জ ব্যবহার করতেন সম্রাট?

ক্রিকেটারদের আন্দোলনে ফিকা’র সমর্থন

দুদকের আট কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অনুসন্ধান শুরু

ইডেন টেস্টে উপস্থিত থাকবেন শেখ হাসিনা

‘আমার মনে হয় বোর্ডের সবাই ব্যর্থ’

বিশ্বনাথে পংকি খান ও ফারুককে নিয়ে জল্পনা

পদ্মা সেতুর ১৫তম স্প্যান বসলো

ব্রেক্সিট চুক্তি পাস করাতে জনসনের শেষ প্রচেষ্টা

এনু-রূপণের ৩৫ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ

মাদক-দুর্নীতি-চাঁদাবাজি ও অনুপ্রবেশকারীদের বিষয়ে জিরো টলারেন্স: যুবলীগ

সাদাতের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি

বায়তুল মোকাররমে হেফাজতের বিক্ষোভ

বাংলাদেশ উন্নয়নের মডেল: আইনমন্ত্রী