মুসলিম যুবককে হত্যাকারী ১১ জনকেই দায়মুক্তি দিল ভারতের পুলিশ

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার
ভারতের ঝাড়খন্ডে পিটিয়ে মুসলিম যুবক তাবরেজ আনসারিকে হত্যার দায় থেকে পুলিশ মুক্তি দিয়েছে অভিযুক্ত ১১ জনকে। এ বছর জুনে তাবরেজ আনসারিকে নির্যাতন করা হয়। তাকে হিন্দুত্ববাদী স্লোগান দিতে বাধ্য করা হয়। তাকে নির্দয়ভাবে প্রহার করে হত্যার দৃশ্য ভাইরাল হয়ে যায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। কিন্তু ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে উদ্ধৃত করে মঙ্গলবার স্ক্রল ডট ইন জানায়, এ ঘটনায় অভিযুক্ত ওইসব ব্যক্তির অভিযোগ প্রত্যাহার করেছে ভারতের পুলিশ। তাতে বলা হয়েছে তাবরেজ আনসারির মৃত্যু হয়েছে হার্ট অ্যাটাকে।

শুরুতে তাবরেজকে হত্যার বিষয়ে পুলিশের দু’জন কর্মকর্তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। ওই সময় একটি ভিডিওতে দেখা যায় ২৪ বছর বয়সী তাবরেজ চিৎকার করছেন। সহায়তা চেয়ে আর্তনাদ করছেন। কিন্তু ঝাড়খন্ডের উত্তেজিত জনতা তাকে ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগান দিতে বাধ্য করছে। তার বিরুদ্ধে গ্রামবাসীর অভিযোগ ছিল চুরির। তাকে একটি বৈদ্যুতিক খুঁটির সঙ্গে বেঁধে ফেলা হয়। প্রহার করা হয় ১২ ঘন্টা। এরপর পুলিশ গিয়ে তাকে সেরাইকেলাতে তাদের জিম্মায় নেয়। তাৎক্ষণিকভাবে তাকে হাসপাতালে না নিয়ে রাখা হয় থানায়। এরপর তাকে হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে তিনি মারা যান। তাকে হাসপাতালে নেয়ার পরিবর্তে পুলিশ ইচ্ছাকৃতভাবে তাকে প্রথমে জেলে নিয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন তাবরেজের স্ত্রী।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

জাফর আলী

২০১৯-০৯-১০ ২২:০৩:৪৮

মি. কুদ্দুস্ , আপনি দুটো পয়েন্ট এ্যড করতে ভুলে গেছেন। ১) শুধু ওইসব পুলিশের চাকরীই যাবে না সাথে ওই জেলার ওসি এসপি ও ডিসি সাহেবদের প্রতাহার করে নেওয়া হতো। ২) ফাঁসি কার্যরক হওয়া ওই ১১ দনের পরিবারের অনেকেই গুম হয়ে যেত চিরদিনের জন্যে।

কুদ্দুস্ ব্যইয়্যতি।

২০১৯-০৯-১০ ২১:৪৩:৫৮

মনে করুন এ ঘটনা বাংলাদেশে ঘটেছিল এবং একজন হিন্দুকে একই ভাবে পিটিয়ে মারা হয়েছিল। তখন এদেশের চেতনাবাদীরা, বিজ্ঞান মনোষ্ক মনারা, টিভি টকশোতে বুদ্ধিজীবিরা এদের ফাসিঁর দাবীতে আকাশ-পাতাল কাপায়ে একাকার করে ফেলতো। স্বাধীন-নিরপেক্ষ (!) আদালত ওই ১১জনকেই ফাসিঁ আদেশ দিয়ে আপিল রিভিউ খারিজ করে এ রায় কার্যকর করতো। অতঃপর তাদের লাশবাহী গাড়ী লক্ষ্য করে চেতনা বিশ্বাসীদের সহযোগিরা তাদের প্রতি থুতু ও জুতা নিক্ষেপ করতো।

তঠ

২০১৯-০৯-১০ ২১:১০:৫৯

খুবই প্রত্যাশিত রায় । এইসব মালাউনদের কারণেই ভারত ভাগ হয়েছিল ।

Nurul haque

২০১৯-০৯-১০ ১১:৩৬:২৭

ধর্মান্ধ হিন্দু উগ্রবাদী রাষ্ট্র ভারতের কাছে এমন মানবতাবিরোধী রায় অস্বাভাবিক নয়।

আপনার মতামত দিন

কোটি টাকা চাঁদা দাবির অডিও ফাঁস

টিআইবির নির্বাহী পরিচালকের মন্তব্য অনভিপ্রেত: বেক্সিমকো

ডিপ্লোম্যাটের প্রচ্ছদে শেখ হাসিনা

জনগণের সঙ্গে পুলিশের নিবিড় সম্পর্ক থাকতে হবে

‘ছাত্রলীগ নেতাদের বহিষ্কারেই বোঝা যায় দেশে কতটা দুর্নীতি চলছে’

বিকেন্দ্রীকরণে বাধা দিচ্ছেন এমপিরা

বাংলাদেশে ৫টি অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তুলবে আরব আমিরাত

সিলেট সফরে যে বিতর্কের জন্ম দেন শোভন

পিয়াজের কেজি একলাফে বেড়ে ৭০ টাকা

প্রয়োজনে থানায় বসে ওসিগিরি করব

আসুন, ভাঙনের খেলাটা শুরু করি!

চাঁদাবাজির তথ্য পেলে সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা

ভিকারুননিসায় নতুন অধ্যক্ষ নিয়োগ

সিলেট বিভাগের পৌর মেয়রদের সঙ্গে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর মতবিনিময়

রাব্বানীর ডাকসু জিএস পদে থাকা নিয়ে প্রশ্ন

শোভন-রাব্বানীকে নিয়ে যা ছিল গোয়েন্দা রিপোর্টে