ডেঙ্গু পরীক্ষায় ব্যস্ত কর্মী এখন নিজেই ডেঙ্গু রোগী

প্রথম পাতা

পিয়াস সরকার | ২১ আগস্ট ২০১৯, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ২:৫৭
জাহিদুল ইসলাম। ২৮ বছর বয়সী এই তরুণ একজন ল্যাব টেকনিশিয়ান। কাজ করেন দোয়েল প্যাথলজি সেন্টার, মানিকগঞ্জে। ডেঙ্গু ভয়াবহ আকার ধারণ করার পর থেকে ব্যস্ত সময় পার করছিলেন তিনি। দিন রাত করে গেছেন রক্ত পরীক্ষা। এমনকি ঈদের দিনেও করতে হয়েছে কাজ। গত বৃহস্পতিবার প্রায় ১শ’ জনের রক্ত পরীক্ষা করেন। সেদিন রাতে হালকা জ্বর অনুভব হয় তার। পরদিন শুক্রবার নিজের কর্মস্থলেই করেন রক্ত পরীক্ষা। ধরা পড়ে ডেঙ্গু। সেদিনই ভর্তি হন মানিকগঞ্জ সরকারি হাসপাতালে। সেখানেই চলছিলো তার চিকিৎসা। কিন্তু হঠাৎ রক্তের প্লাটিলেট কমতে থাকে। অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় চিকিৎসকের পরামর্শে নিয়ে আসা হয় ঢাকা মেডিকেলে। এখানে তিনি ভর্তি হন সোমবার রাতে। তার বাবা কৃষক ও মা গৃহিণী। হাসপাতালে তার পাশে বড় ভাই। গতকাল দুপুরে মশারীর ভিতর শুয়ে ছিলেন জাহিদুল। হাতে ক্যানোলা লাগানো। জাহিদুল বলেন, এতোদিন রোগীদের দেখে আসছি এখন নিজেই রোগী। কি যে যন্ত্রণা ভাই। শরীর ব্যথা করে সারাদিন। খাইতে পারি না কিছু। খাইলেই বমি বমি লাগে। আরেক যন্ত্রণা মশারীর ভিতর থাকা লাগে সারাদিন। ফ্যান মাথার উপর। ঘোরে খুবই ধীরে। এমনি বাতাস লাগে না তার ওপর মশারী। গরমে অস্বস্তি লাগে বেশ।

তিনি আরো বলেন, হাসপাতালে চিকিৎসক সেবিকাসহ সবাই বেশ আন্তরিক। তবে প্যাথলজিক্যাল রিপোর্ট পেতে সময় লাগছে। আর দালালের আনাগোনাতো আছেই।

দালালের কথা উঠতেই তার বড় ভাই রাকিবুল ইসলাম বলেন, প্রথম যেদিন আসলাম সেদিন ভর্তি হবার আগেই দালাল হাজির। প্রথমে বেডের ব্যবস্থা করার কথা বলে। চায় ২ হাজার টাকা। শেষে ১ হাজার টাকা দিয়ে একটি বেডের ব্যবস্থা করে দেয়। শরীর দুর্বল হওয়ায় হুইল চেয়ারে নিয়ে আসতে হয়। তাকেও দিতে হয় ২শ’ টাকা। চেয়েছিলো ৫শ’ টাকা। এটা তার দায়িত্ব এরজন্য টাকা দিতে হবে কেন? এইকথা বলায় রীতিমতো হুমকি দিয়ে টাকা নিয়ে যায়। এরপর রক্ত পরীক্ষার সময় দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়েছি। আর তখনি বেশ কয়েকজন অফার করেন বাইরে থেকে রক্ত পরীক্ষা করিয়ে এনে দেবেন।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

বাংলাদেশের মানবাধিকার পরিস্থিতির কড়া সমালোচনা জাতিসংঘে

গোপালগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় পুলিশ কর্মকর্তাসহ নিহত ৪

বিধবাকে গণধর্ষণ, এএসআই প্রত্যাহার

মাফিয়া ডন শামীম গ্রেপ্তার

বদলে গেল ক্লাবপাড়ার দৃশ্যপট, তবে

তদন্তের জালে ছাত্রলীগের শতাধিক নেতা

কলাবাগান ক্রীড়াচক্রে র‌্যাবের অভিযান সভাপতি গ্রেপ্তার

পিয়াজের দাম কমছেই না

ছাত্র রাজনীতির ইতিবাচক পরিবর্তন দেখছি না

দুর্ঘটনায় প্রাণ গেল ১০ জনের

‘খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের আরো অবনতি’

৪ খুঁটির মূল্য দেড় লক্ষাধিক টাকা

নজরদারিতে আওয়ামী লীগের অনেক নেতা

যুবলীগ কইরা মাতব্বরি করবেন ওই দিন শেষ

ভুটানের জালে তিন গোল বাংলাদেশের

সিলেট চেম্বার নির্বাচন নিয়ে মর্যাদার লড়াই