১৪ ঘন্টা পরও খোঁজ নেই

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার,সাভার থেকে | ২২ জুলাই ২০১৯, সোমবার, ১২:৩৮ | সর্বশেষ আপডেট: ৫:৪৩
সাভারে থেকে ঢাকাগামী একটি হলুদ রংয়ের যাত্রীবাহী ট্যাক্সিক্যাব নিয়ন্ত্রন হারিয়ে রোববার রাত সাড়ে ৮ টার দিকে তুরাগ নদীতে পড়ে যায়। টানা ১৪ ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে এখন পর্যন্ত গাড়িটির অবস্থান সম্পর্কে নিশ্চিত হতে পারেনি ফায়ার সার্ভিস। নদীর গভীরতা বেশী এবং প্রবল স্রোতের কারণে উদ্ধার কাজ ব্যাহত হচ্ছে অভিযোগ করেছে ফায়ার সার্ভিস। এদিকে আধুনিক উদ্ধার সরঞ্জাম না থাকায় সনাতন পদ্ধতিতে এ্যাঙ্কর ফেলে গাড়ির অবস্থান সনাক্তে কাজ করছে বলে অভিযোগ করেছে উৎসুক জনতা।

গাড়িটি উদ্ধারে ফায়ার সার্ভিসের ৪ টি ইউনিটের প্রায় ৩০ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং ৭ ডুবুরি কাজ করছে। তারা গাড়িটি পড়ে যাওয়ার পর থেকে টানা অভিযান পরিচালনা করে যাচ্ছে। ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের ঢাকা-৪ এর জোন কমান্ডার মো. আনোয়ারুল হক বলেন, তুরাগ নদীতে পড়ে যাওয়া যাত্রীবাহী ট্যাক্সিক্যাবটি উদ্ধারে আমাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। এখন পর্যন্ত আমাদের ৭ জন ডুবুরি কাজ করছে। সম্ভাব্য জায়গাগুলোতে ডুবুরিরা খোঁজার চেষ্টা করে যাচ্ছে। কিন্তু পানির উপরে যতটুকু স্রোত দেখা যায় তার দ্বীগুন স্রোত রয়েছে পানির নিচে। ডুবুরিরা সেখানে গিয়ে ঠিক থাকতে পারছেনা। এখন আমরা ২০-৩০ ফুট গভীর পর্যন্ত এ্যাঙ্কর ফেলে ফেলে গাড়ির অবস্থান সনাক্তের জন্য ভাটির দিকে যাচ্ছি।

রবিবার রাত ৮ টার দিকে সাভারে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের আমিনবাজার এলাকায় সালেহপুর সেতুতে উঠার আগেই দ্রুতগতির একটি যাত্রীবাহী ট্যাক্সিক্যাব নিয়ন্ত্রন হারিয়ে উড়ে গিয়ে পানিতে পড়ে বলে জানিয়েছে প্রত্যক্ষদর্শীরা।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন