২ সদস্যের বাড়ির বিদ্যুৎ বিল ১২৮ কোটি রুপি

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ২১ জুলাই ২০১৯, রোববার | সর্বশেষ আপডেট: ১:০২
বাড়িতে ২ কিলোওয়াটের বিদ্যুতের লাইন। অথচ বিল এসেছে ১২৮ কোটি ৪৫ লাখ ৯৫ হাজার ৪৪৪ রুপি। এমন বিল দেখে ভারতের উত্তর প্রদেশের হাপুর এলাকার বাসিন্দা শামীম হতভম্ব। তিনি এ বিল নিয়ে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে বার বার ধরনা দিচ্ছেন। কিন্তু কোনো প্রতিকার পাচ্ছেন না। তাকে বলা হচ্ছে, আগে বিল পরিশোধ করতে হবে। তারপরই তার বিদ্যুতের লাইন সংযোগ দেয়া হবে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন জি নিউজ।

হাপুরের চামরি গ্রামে বসবাস করেন শামীম ও তার স্ত্রী। এ বিষয়ে তিনি বার্তা সংস্থা এএনআই’কে বলেন, ভৌতিক এই বিল নিয়ে তিনি বিদ্যুত বিভাগে গিয়েছেন তাদের ভুল সংশোধন করানোর জন্য। কিন্তু তাকে পাত্তাই দেয়া হয় নি। বলা হয়েছে বিল পরিশোধ করতে। তিনি বলেন, আমার কথায় কেউ কর্ণপাতই করে নি। এখন আমি কিভাবে এত বড় অংকের বিদ্যুত বিল পরিশোধ করবো? শামীম দাবি করেন, মনে হয়, পুরো হাপুর এলাকার বিদ্যুতের বিল আমার একাউন্টে দেখিয়েছে। এ নিয়ে আমি এক স্থান থেকে আরেক স্থানে দৌড়াচ্ছি। কেউ আমার কথা শুনছে না।

তবে বিদ্যুত বিভাগের একজন প্রকৌশলী বলেছেন, এটা বড় কোনো বিষয় নয়। যান্ত্রিক ত্রুটি থেকে এমনটা ঘটে থাকতে পারে। ইঞ্জিনিয়ার রাম শরণ নিশ্চিত করে বলেন, শামীম সংশ্লিষ্ট দপ্তরে ওই বিল নিয়ে গেলে তা সংশোধন করে দেয়া হবে। কিন্তু শামীম বলছেন, তিনি বার বার বিদ্যুত অফিসে গিয়েছেন। তাকে বিল পরিশোধ করতে বলা হয়েছে। এমন ঘটনা এবারই নতুন নয়। জানুয়ারিতে উত্তর প্রদেশের কান্নাউজের এক বাসিন্দার নামে বিদ্যুতের বিল পাঠানো হয়েছিল ২৩ কোটি রুপি।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Kazi

২০১৯-০৭-২০ ২১:৪৪:৩৩

Crazy people. Is it possible for a person to pay 128 crore rupee ?

আপনার মতামত দিন

রাঙ্গামাটিতে সন্ত্রাসীদের গুলিতে সেনাসদস্য নিহত

ঈদে সড়কেই প্রাণ গেল ২২৪ জনের

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন আদৌ শুরু হচ্ছে কি?

কুমিল্লায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৮

এখনো উচ্চ ঝুঁকি ২৪ ঘণ্টায় ১৭০৬ রোগী ভর্তি

পার্বত্য চট্টগ্রাম ভারতের অবিচ্ছেদ্য অংশ

ডেঙ্গুর প্রজননস্থলে কতটা যেতে পারছেন মশক নিধন কর্মীরা?

বৈঠকের পর চামড়া বিক্রিতে সম্মত আড়তদাররা

জনগণকে সতর্ক পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকার পরামর্শ

ছিনতাইকারীর হাতে খুন হন কলেজছাত্র রাব্বী

শিক্ষিকাকে গণধর্ষণের পর হত্যা

শহিদুল আলমের মামলা স্থগিতই থাকবে

ডেঙ্গুর ভয়ে স্কুলে যাওয়া বন্ধ তবুও...

রক্ত পরীক্ষার রিপোর্ট নিয়ে ঢামেকে সংঘর্ষ, আহত ২৫

টার্গেট রাজনৈতিক সম্পর্ক দৃঢ়করণ

ইউজিসি প্রফেসর হলেন ডা. এবিএম আব্দুল্লাহ