ইংল্যান্ডের খেলোয়াড়রা কে কোথা থেকে এসেছেন?

ক্রিকেট বিশ্বকাপ-২০১৯

স্পোর্টস ডেস্ক | ১৬ জুলাই ২০১৯, মঙ্গলবার
ইংল্যান্ড এবার আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ জেতার পর এই বিজয়ে অভিবাসী বংশোদ্ভূত ক্রিকেটারদের ভূমিকা নিয়ে সামাজিক মাধ্যমে বেশ আলোচনা হচ্ছে। দক্ষিণপন্থি ইংলিশ রাজনীতিবিদ জ্যাকব রিস-মগ বিশ্বকাপ জয়ের পর টুইট করেছেন, ইংল্যান্ড কোনোমতে জিতেছে, তবে স্পষ্টতই আমাদের জেতার জন্য ইউরোপকে দরকার নেই। ব্রেক্সিটের দিকে ইঙ্গিত করে করা এই তীর্যক মন্তব্যের পর সামাজিক মাধ্যমে হাজার হাজার ক্রিকেট ভক্ত ক্ষিপ্ত হয়ে পাল্টা আক্রমণ চালান রিস-মগকে লক্ষ্য করে । একজন লেখেন, আপনার ইংল্যান্ড দলের অধিনায়কই তো একজন আইরিশ। অন্য অনেকে চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দেয়ার চেষ্টা করেন- এই ইংল্যান্ড দলে একাধিক খেলোয়াড় আছেন যাদের জন্ম অন্য দেশে। কিথ বার্জ নামে একজন লিখেছেন, ‘ইংল্যান্ড দারুণ খেলেছে, যার অধিনায়ক, প্রধান ব্যাটসম্যান, দ্রুততম বোলার, সেরা অলরাউন্ডার এবং প্রধান স্পিনার সবাই অভিবাসী বা অভিবাসীর সন্তান।’ ব্রিটিশ টেনিস তারকা অ্যান্ডি মারে, যিনি একজন স্কটিশ- তিনি মন্তব্য করেছেন নিউজিল্যান্ডে-জন্মানো স্টোকস আর বার্বাডোজে-জন্মানো আর্চার ইংল্যান্ড দলে থাকলেও ব্রেক্সিট-সমর্থকরা অভিবাসনকে সমাজের প্রতি হুমকি হিসেবে দেখছে। এই ইংল্যান্ড দলে শ্বেতাঙ্গ ইংরেজ খেলোয়াড় যেমন আছেন, তেমনি পাঁচজন আছেন, যাদের জন্ম অন্য দেশে, বা অভিবাসী পরিবারের। বাস্তবেই তাই।
ইংল্যান্ড দলের অধিনায়ক এউইন মরগানের জন্ম আয়ারল্যান্ডে, বেন স্টোকসের জন্ম নিউজিল্যান্ডে, জাফরা আর্চারের জন্ম বার্বাডোজে, জেসন রয়ের এবং টম কারেন দক্ষিণ আফ্রিকান বংশোদ্ভূত। আর মঈন আলী এবং আদিল রশিদের জন্ম পাকিস্তান থেকে আসা অভিবাসী পরিবারে। ইংল্যান্ড দলের ‘হিরো’ বেন স্টোকস নিজেই জন্মসূত্রে একজন নিউজিল্যান্ডার- জন্মেছেন ক্রাইস্টচার্চে, তার বাবা নিউজিল্যান্ড দলের হয়ে রাগবি খেলেছেন, রাগবি কোচ হিসেবে চাকরি নিয়েই তার বাবার ইংল্যান্ডে আসা। তখন বেন স্টোকসের বয়স ১২। আগে নিয়ম ছিল ইংল্যান্ড দলে খেলতে হলে তাকে ব্রিটিশ নাগরিক হতে হবে, তার জন্ম ইংল্যান্ড বা ওয়েলসে হতে হবে। তবে গত বছর এই নিয়মে একটি ধারা সংযোজন করা হয় যাতে বলা আছে তিন বছর ইংল্যান্ড বা ওয়েলসে বসবাস করলেই একজন ব্রিটিশ পাসপোর্টধারী ইংল্যান্ডের হয়ে খেলতে পারবেন। এ শর্ত পূরণ করেই ইংল্যান্ড দলের হয়ে খেলার সুযোগ পেয়েছেন জাফরা আর্চার। কেউ কেউ বলেন তাকে খেলার সুযোগ দিতেই ওই নিয়মে পরিবর্তন করেছে ইসিবি। আর্চারের জন্ম বার্বাডোজের ব্রিজটাউনে, তবে তিনি ব্রিটিশ পাসপোর্টধারী এবং তার বাবা ইংরেজ। তিনি ২০১৪ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের হয়ে খেলেছেন। ইংল্যান্ড দলের অধিনায়ক এউইন মরগান একজন আইরিশ-বংশোদ্ভূত ক্রিকেটার। শুধু তাই নয় তিনি ২০০৭ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপে আয়ারল্যান্ডের হয়ে খেলেছিলেন। মরগানের মা ইংরেজ, বাবা আইরিশ। তিনি আয়ারল্যান্ডের হয়ে ২৩টি একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছেন। কিন্তু তার মা ইংরেজ বলে তার জন্ম থেকেই ব্রিটিশ পাসপোর্ট ছিল, সে সূত্রেই তিনি ইংল্যান্ডের হয়ে ক্রিকেট খেলতে শুরু করেন ২০০৭ থেকে।





এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

ওসি মোয়াজ্জেমের জামিন আবেদনের শুনানি শেষ, আদেশ ৩রা নভেম্বর

‘র‌্যাগিংয়ের অভিযোগ পেলেই ব্যবস্থা’

জরাজীর্ণ টিনশেড ঘরে পাঠদান

ছেলের ইটের আঘাতে প্রাণ গেলো বাবার

বড়পুকুরিয়ার সাবেক এমডিসহ ৩ কর্মকর্তা জেলে

‘নীতি নৈতিকতা, মূল্যবোধ তলানিতে ঠেকেছে’

কুষ্টিয়ায় কৃষক হত্যা: স্ত্রীসহ ৪ জনের ফাঁসি

এনএসআইয়ের সাবেক মহাপরিচালকের বিরুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধের বিচার শুরুর নির্দেশ

যুদ্ধবিরতির মার্কিন আহ্বান প্রত্যাখ্যান করলেন এরদোগান

বুয়েট শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের শপথ গ্রহণ (ভিডিও)

বিক্ষোভের মুখে হংকং পার্লামেন্টে বক্তব্য দিতে পারলেন না ক্যারি লাম

দ্বিতীয় দিনের মতো আন্দোলনে বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারিরা

বিকালে ঐক্যফ্রন্টের জরুরি বৈঠক

ভাল রাঁধেন অভিজিত, খেটেছেন জেল

রাস্তায় সতর্ক হয়ে চলার পরামর্শ প্রধানমন্ত্রীর

শহীদ আবরার হল!, খুনীদের নামে টয়লেটের লোকেশন