বেগমগঞ্জে মাদক সম্রাট শামীম হোসেনের গ্রেপ্তার দাবি

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, নোয়াখালী থেকে | ১৬ জুলাই ২০১৯, মঙ্গলবার | সর্বশেষ আপডেট: ১:২৪
বেগমগঞ্জ পূর্বাঞ্চলের ত্রাস ইয়াবা কারবারী মাদক সম্রাট শামীম হোসেনের গ্রেপ্তারের দাবিতে ফুঁসে উঠেছে এলাকাবাসী। শামীমের গ্রেপ্তারের দাবিতে গতকাল ১৬ নং কাদিরপুর ইউনিয়নের পূর্ব কাদিরপুর গ্রামের আইরের পুকুর পাড়ে বিশাল মিছিল নিয়ে রাস্তায় নামে এলাকার সর্বস্তরের মানুষ। এ ঘটনার ভিডিওচিত্র সামছুউদ্দিন নামে এক ব্যক্তি ধারণ করে তা ফেসবুকে শেয়ার করায় ইয়াবা সম্রাট শামীম ও তার সহযোগীরা দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সামছুদ্দিনকে খোঁজাখুজি করে। কোথাও না পেয়ে সামছুদ্দিনের ছোট ভাই আবু নাছেরকে পিটিয়ে জখম করে। সে বেগমগঞ্জ ১০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে চিকিৎসাধীনে রয়েছেন। এ ব্যাপারে ভিকটিম আবু নাছেরের পিতা এছাক মিয়া বাদী হয়ে বেগমগঞ্জ মডেল থানা এজাহার দায়ের করেছে। উল্লেখ্য, ইয়াবা কারবারী স্বপন কিছুদিন আগে মাদক মামলায় গ্রেপ্তার হয়ে জামিনে বের হয়ে আরো বেপরোয়া হয়ে ওঠে। তার আরো ২ সহযোগী মাদক সম্রাজ্ঞী হল নুরজাহান বেগম ও মীম আক্তার। যাদেও বিরুদ্ধে বিরুদ্ধে কুমিল্লা, ফেনী, সেনবাগ, চট্টগ্রাম, ঢাকা জেলার বিভিন্ন থানা প্রায় ৫০টিরও বেশী খুন, অস্ত্র ও মাদক দ্রব্য মামলা রয়েছে। গত ঈদুল ফিতরের দিন স্থানীয় পূর্ব কাদিরপুর ভুঁইয়া কাজী ব্যাপারী বাড়ি জামে মসজিদে মাদক সম্রাট শামীম ও স্বপন মাদক বেচাকেনার ১ লাখ টাকা অনুদান দিতে গেলে মসজিদ কমিটি স্থানীয় কুতুবের হাট দাখিল মাদ্রাসার ভাইস প্রিন্সিপাল মাওলানা ইয়াকুবের সাথে আলোচনা করিয়া তাহার মতামত নেয়। মাওলানা ইয়াকুব এ হারামের টাকা মসজিদে গ্রহণ করা যাবে না মর্মে আদেশ দেন। বেগমগঞ্জ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ হারুন-উর-রশিদ জানান, ইয়াবাকারবারীদের গ্রেপ্তারের প্রচেষ্টা চলছে।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Goni

২০১৯-০৭-১৬ ০৬:১২:৩৪

আমার দাবি হল, এই সকল জানোয়ারদের ধরে ফাসি দেয়া উচি।

আপনার মতামত দিন

রাঙ্গামাটিতে সন্ত্রাসীদের গুলিতে সেনাসদস্য নিহত

ঈদে সড়কেই প্রাণ গেল ২২৪ জনের

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন আদৌ শুরু হচ্ছে কি?

কুমিল্লায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৮

এখনো উচ্চ ঝুঁকি ২৪ ঘণ্টায় ১৭০৬ রোগী ভর্তি

পার্বত্য চট্টগ্রাম ভারতের অবিচ্ছেদ্য অংশ

ডেঙ্গুর প্রজননস্থলে কতটা যেতে পারছেন মশক নিধন কর্মীরা?

বৈঠকের পর চামড়া বিক্রিতে সম্মত আড়তদাররা

জনগণকে সতর্ক পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকার পরামর্শ

ছিনতাইকারীর হাতে খুন হন কলেজছাত্র রাব্বী

শিক্ষিকাকে গণধর্ষণের পর হত্যা

শহিদুল আলমের মামলা স্থগিতই থাকবে

ডেঙ্গুর ভয়ে স্কুলে যাওয়া বন্ধ তবুও...

রক্ত পরীক্ষার রিপোর্ট নিয়ে ঢামেকে সংঘর্ষ, আহত ২৫

টার্গেট রাজনৈতিক সম্পর্ক দৃঢ়করণ

ইউজিসি প্রফেসর হলেন ডা. এবিএম আব্দুল্লাহ