টেকনাফে মাদক ব্যবসায়ী নিহত

বাংলারজমিন

টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি | ১৫ জুলাই ২০১৯, সোমবার
কক্সবাজার টেকনাফে মাদক উদ্ধার অভিযানে গুলিতে মাদক ব্যবসায়ী গুলিবিদ্ধ হয়ে হাসপাতালে নিহত হয়েছে। এ সময় পুলিশের ৩ সদস্য আহত হলেও ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র, বুলেট ও ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে। জানা যায়, গতকাল ভোররাতে টেকনাফ মডেল থানা পুলিশের হাতে আটক মাদক ব্যবসায়ী ও একাধিক মামলার আসামি হোয়াইক্যং নয়াপাড়ার মৃত নজির আহমদের পুত্র মুফিদুল আলম প্রকাশ মংগ্যাইয়া (৪২)কে নিয়ে নয়াপাড়া বালিকা মাদ্রাসার পেছনে মাদকের চালান উদ্ধার অভিযানে যায়। এ সময় তার সহযোগীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ করে। এতে পুলিশের এএসআই অহিদ, কনস্টেবল রুবেল মিয়াও আহত হয়। পুলিশও সরকারি সম্পদ এবং আত্মরক্ষার্থে ৩৮ রাউন্ড পাল্টা গুলিবর্ষণ করে। কিছুক্ষণ পর গুলিবর্ষণকারীরা পালিয়ে গেলে পরিস্থিতি শান্ত হয় এবং ঘটনাস্থল তল্লাশি করে ২টি অস্ত্র, ১০ রাউন্ড বুলেট ও ছিটিয়ে থাকা ৫ হাজার পিস ইয়াবাসহ গুলিবিদ্ধ মুফিদুলকে উদ্ধার করে। তাদের চিকিৎসার জন্য টেকনাফ উপজেলা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। পুলিশ সদস্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে গুলিবিদ্ধ মুফিদুলকে উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার হাসপাতালে রেফার করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সে মারা যায়। টেকনাফ মডেল থানার অফিসার্স ইনচার্জ প্রদীপ কুমার দাশ, উপরোক্ত মাদক উদ্ধার অভিযান এবং হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মাদক ব্যবসায়ী নিহতের সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি আরো বলেন, তদন্ত সাপেক্ষে এই ঘটনায় সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে।







এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

রাঙ্গামাটিতে সন্ত্রাসীদের গুলিতে সেনাসদস্য নিহত

ঈদে সড়কেই প্রাণ গেল ২২৪ জনের

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন আদৌ শুরু হচ্ছে কি?

কুমিল্লায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৮

এখনো উচ্চ ঝুঁকি ২৪ ঘণ্টায় ১৭০৬ রোগী ভর্তি

পার্বত্য চট্টগ্রাম ভারতের অবিচ্ছেদ্য অংশ

ডেঙ্গুর প্রজননস্থলে কতটা যেতে পারছেন মশক নিধন কর্মীরা?

বৈঠকের পর চামড়া বিক্রিতে সম্মত আড়তদাররা

জনগণকে সতর্ক পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকার পরামর্শ

ছিনতাইকারীর হাতে খুন হন কলেজছাত্র রাব্বী

শিক্ষিকাকে গণধর্ষণের পর হত্যা

শহিদুল আলমের মামলা স্থগিতই থাকবে

ডেঙ্গুর ভয়ে স্কুলে যাওয়া বন্ধ তবুও...

রক্ত পরীক্ষার রিপোর্ট নিয়ে ঢামেকে সংঘর্ষ, আহত ২৫

টার্গেট রাজনৈতিক সম্পর্ক দৃঢ়করণ

ইউজিসি প্রফেসর হলেন ডা. এবিএম আব্দুল্লাহ