ইরানের জবাব হবে কড়া

মানবজমিন ডেস্ক

বিশ্বজমিন ২৭ জুন ২০১৯, বৃহস্পতিবার

সীমান্তরেখা লঙ্ঘন করার বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রকে আবারও হুঁশিয়ারি দিয়েছে ইরান। অন্যদিকে পার্লামেন্ট স্পিকার আলি লারিজানিও কঠোর প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন। বৃহস্পতিবার ইরানের বার্তা সংস্থা তাসনিমকে উদ্ধৃত করে এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। বুধবার আলি লারিজানি বলেছেন, আমাদের সীমান্ত অতিক্রম করে যেকোনো আগ্রাসন থেকে যুক্তরাষ্ট্রকে বিরত রাখা হয়েছে ড্রোন ভূপাতিত করার মাধ্যমে। এটা তাদের জন্য একটি ভাল শিক্ষা। যদি আমাদের সীমান্ত অতিক্রম করার মতো ভুল আরো করে তাহলে ইরানের জবাব হবে আরো কঠিন।
 
ইরানের দাবি, সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের যে ড্রোন তারা ভূপাতিত করেছে তা ইরানের আকাশসীমা লঙ্ঘন করেছিল। তবে এ অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে ওয়াশিংটন। এর জবাবে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প ইরানে আকাশপথে হামলার নির্দেশ দিয়েছিলেন।
কিন্তু বহু মানুষের প্রাণহানির কথা বিবেচনা করে শেষ মুহূর্তে তিনি সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসেন।

ওদিকে দুই পক্ষের মধ্যেই উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় চলছে। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ইরানকে ধ্বংস করে দেয়ার হুমকি দিয়েছেন। বুধবার তিনি বলেছেন, ইরান ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে যেকোনো যুদ্ধ দ্রুততর হতে পারে। তবে তিনি যেকোনো সামরিক অভিযান এড়িয়ে চলতে চান বলে জানান।  বিশ্বজুড়ে ইরানের ১১৬ জন মানবাধিকারকর্মী ও গ্রুপ হুঁশিয়ারি দিয়েছে। তারা বলছে, বৈরি এই দুই শক্তির মধ্যে সামরিক যুদ্ধ হলে তার বিধ্বংসী এক পরিণতি হবে। নিউ ইয়র্ক ভিত্তিক সেন্টার ফর হিউম্যান রাইটস ইন ইরান এ কথা বলেছে। অধিকারকর্মী, আইনজীবী ও সাংবাদিকদের স্বাক্ষর করা এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, আমাদের আশঙ্কা ইরানের বিরুদ্ধে সামরিক অভিযান হবে বহু কোটি সাধারণ মানুষের জন্য বিপর্যয়কর। তা থেকে প্রতিবেশী দেশগুলোতে জাতিগত গৃহযুদ্ধ ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে।

আপনার মতামত দিন

বিশ্বজমিন অন্যান্য খবর

মালয় মেইলের খবর

মাহাথির-আনোয়ার আস্থায় সঙ্কট!

২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০

নিউ ইয়র্ক টাইমসের খবর

মারা গেছেন কিংবদন্তি সম্পাদক স্যার হ্যারল্ড ইভানস

২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০



বিশ্বজমিন সর্বাধিক পঠিত



আরব নিউজের প্রতিবেদন

৪ অক্টোবর শুরু হচ্ছে ওমরাহ