কি কারণে ইরানে হামলা চালালেন না ডনাল্ড ট্রাম্প!

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ২২ জুন ২০১৯, শনিবার | সর্বশেষ আপডেট: ৩:৪১
চারদিকে রণসজ্জা সাজিয়ে প্রস্তুত। ট্রিগারে আঙ্গুলের চাপ পড়তে বাকি। এমন সময় পিছু হটলেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প। ইরানে হামলা চালানোর ঠিক ১০ মিনিট আগে এমন সিদ্ধান্ত নিলেন তিনি। কিন্তু কেন? এর উত্তর তিনি নিজেই দিয়েছেন। বলেছেন, এমন হামলা সামঞ্জস্যপূর্ণ হবে না। এ বিষয়ে তিনি টুইটে বলেছেন, আমি জানতে চাইলাম (হামলা চালালে) কত মানুষ মারা যাবে। আমাকে একজন জেনারেল বললেন, স্যার ১৫০ হতে পারে।
তাই হামলা চালানোর ঠিক ১০ মিনিট আগে আমি যুদ্ধ থামিয়ে দিলাম। কারণ, একটি মনুষ্যবিহিন ড্রোন গুলি করে ভূপাতিত করার জবাবে এ হামলা সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়। ট্রাম্প আরো বলেন, ইরানে হামলা চালানোতে তার তাড়াহুড়ো নেই। এ খবর দিয়েছে অনলাইন আল জাজিরা, বিবিসি।

ইরান ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে বেশ কতদিন ধরে যে যুদ্ধ পরিস্থিতি বিরাজ করছে তারই চূড়ান্ত আকার ধারণ করতে যাচ্ছিল শুক্রবার। এর আগের দিন ইরান ‘তার আকাশসীমা’ অতিক্রমের অভিযোগে যুক্তরাষ্ট্রের একটি ড্রোন গুলি করে ভূপাতিত করে। এরপর থেকেই উত্তেজনার পারদ সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছে যায়। এ ছাড়া সম্প্রতি হরমুজ প্রণালীতে তেলবাহী কয়েকটি ট্যাংকারে হামলার জন্য ইরানকে দায়ী করেছে যুক্তরাষ্ট্র, সৌদি আরব সহ আরো কয়েকটি দেশ। কিন্তু জার্মানি এ বিষয়ে আরো প্রমাণ চায়। এরই মধ্যে ওই ড্রোন ভূপাতিত করা হয়। ইরান বলছে, তারা যুদ্ধ চায় না। তবে আকাশ, স্থল ও জলপথে তাদের আত্মরক্ষার অধিকার আছে। দেশটির অভিজাত রেভ্যুলুশনারি গার্ড কোর শুক্রবার বলেছে, বৃহস্পতিবার মনুষ্যবিহীন একটি ড্রোন ভূপাতিত করার পর দ্বিতীয় আরেকটি মার্কিন এয়ারক্রাফট উড়ে গেছে ওই এলাকা দিয়ে, যেখানে নেভি আরকিউ-৪ গ্লোবাল হক গুলি করে ভূপাতিত করেছে তারা। তবে এতে প্রায় ৩৫ জন আরোহী ছিলেন বলে ইরানি বাহিনী তাতে গুলি করে নি। তবে দ্বিতীয় এই এয়ারক্রাফটের বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্র কোনো মন্তব্য করে নি।  

ট্রাম্পের টুইট থেকে স্পষ্ট তিনি হতাহতের কথা চিন্তা করেই ইরানে হামলা চালান নি। কিন্তু, এই মুহূর্তে তার পূর্ণাঙ্গ একজন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী নেই। ফলে এ সিদ্ধান্ত তাকে একাই নিতে হচ্ছে। তাই যুদ্ধের সিদ্ধান্ত দিয়েও তাকে পিছু ফিরতে হচ্ছে।
কি পরিকল্পনা নিয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র

নিউ ইয়র্ক টাইমস তার প্রাথমিক রিপোর্টে জানায়, বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৭টায় যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক ও কূটনৈতিক কর্মকর্তারা নিশ্চিত ছিলেন যে, ইরানের রাডার ও মিসাইল ব্যাটারিজ সহ তিনটি স্থাপনায় হামলা চালানো হচ্ছে। ফলে আকাশে যুদ্ধবিমান উড়িয়ে দেয়া হয়। সমুদ্রে যুদ্ধজাহাজ তার পজিশন নিয়ে নির্দেশের অপেক্ষায় থাকে। চারদিকে তখন আতঙ্কে স্তব্ধতা। তবে শুক্রবার এ রিপোর্ট প্রত্যাখ্যান করেন ট্রাম্প। তিনি এনবিসিকে বলেন, কোনো যুদ্ধবিমান উড়ানো হয় নি। শুক্রবার ভোরে সামান্য আগে হামলা চালানোর পরিকল্পনা হয়েছিল, যাতে বেসামরিক জনগণের ক্ষতি কম হয়। পরে শুক্রবারেই ট্রাম্প আরেকটি টুইট করেন। বলেন, হামলার জন্য তিনটি স্থান নির্ধারণ করা হয়েছিল। যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তাদের উদ্ধৃত করে বার্তা সংস্থা এপি বলেছে, পেন্টাগন থেকে হামলার সুপারিশ করা হয়েছিল। তা সিনিয়র প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের জানিয়ে দেয়া হয়েছিল। কিন্তু নিউ ইয়র্ক টাইমসের মতে, পেন্টাগনের শীর্ষ কর্মকর্তারা এমন সামরিক হামলার বিষয়ে সতর্ক করেছিলেন। তারা বলেছিলেন, ইরানে এভাবে হামলা চালানো হলে তাতে ওই অঞ্চলে অবস্থানরত মার্কিন বাহিনীর জন্য প্রচ- ঝুঁকি সৃষ্টি করবে। জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা ও কংগ্রেশনাল নেতাদের নিয়ে বৃহস্পতিবার বেশির ভাগ সময় ইরান ইস্যুতে আলোচনা করেন ট্রাম্প। ওই আলোচনায় যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও এবং জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টন হামলার পক্ষে ছিলেন কঠোর অবস্থানে। কিন্তু কংগ্রেশনাল নেতারা সতর্কতা অবলম্বনের আহ্বান জানিয়েছিলেন।

অন্যদিকে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, ইরানের দু’জন কর্মকর্তা বলেছেন, ওমানের মাধ্যমে ট্রাম্প প্রশাসনের একটি বার্তা পেয়েছিল তেহরান। তাতে বলা হয়েছিল, ইরানে যুক্তরাষ্ট্রের হামলা অত্যাসন্ন। তবে এমন খবর পাওয়ার কথা পরে প্রত্যাখ্যান করেন ইরানের জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের একজন মুখপাত্র। তিনি জোর দিয়ে বলেছেন, তাদেরকে কোনো বার্তাই দেয়া হয় নি।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

রিপন

২০১৯-০৬-২৪ ২০:০৮:৫৩

অন্যেরা জানার চেয়ে মানবজমিনের জানাটা জরুরি হয়ে গেছে বেশি, বিশেষত, এত কষ্ট করে এমন একখান তথ্যবহুল রিপোর্ট লিখেছে, কোন দরকার ছিল কি আদৌ এটির? পাঠকরা কি জানেন না প্রেসিডেন্ট পাল্টায় কিন্তু আমেরিকার পররাষ্ট্রনীতি সমরনীতি এসব কখনই পাল্টায় না, বরাবর একই থাকে এবং ওয়াশিংটনে শপথ নেবার আগে নয়া প্রেসিডেন্টকে আগে ইসরাহেলে গিয়ে শপথ নিতে হয়? ইহুদিবাদীদের সমরনীতি যুগ যুগ ধরে একই, এর বাইরে কোন প্রেসিডেন্টই যায় না। গেলে তার প্রেসিডেন্টগিরি থাকে না। ইহুদিবাদীদের সমরনীতিতে সংযম, পরিমিতিবোধ, সামরিক বেসামরিক বাছবিচার এসব সভ্যতার বালাই নেই। তাই যুগ যুগ ধের চলে আসা ইহুদিবাদীদের সমরযজ্ঞে বেশুমার বেসামরিক লোকজন বেঘোরে খুন হয়েছে, এমনকি ঘুমের ঘোরেও। হিরোসিমা নাগাসাকিতে যারা রাতে ঘুমের মাঝে খুন হলো, তারা কি বেসামরিক লোকজন নয়? ভিয়েতনামে নাপাম বোমা ফেলে কত বেসামরিক মানুষ খুন করা হয়েছে তার শুমারি করা হয়েছে কি কখনও? পাকিস্তানে ড্রোন হামলা চালিয়ে সন্ত্রাসী কায়দায় যেসব নিরীহ বেসামরিক লোকজনকে হত্যা করা হয়েছে তার জন্য ক্ষমা চেয়েছে কি কখনো আমেরিকা, ক্ষতিপূরণ দেয়া তো দূরের কথা? কথায় কথায় নানা দেশের ওপর অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে সাধারণ বেসামরিক লোকজনের জীবনে যে দুর্ভোগ নামানো হয়, সেসময় বেসামরিক লোকদের কথা কি একটিবারও ভাবে আমেরিকা? এতকিছুর পরও মানবজমিন প্রাসঙ্গিকভাবে এসব দিকে আলোকপাত না করে, একতরফাভাবে ট্রাম্প দুই ঠ্যাংয়ের মাঝে ন্যাজ দাবিয়ে চম্পট লাগাবার কারণ হিসেবে যে শেয়ালী যুক্তি আঙুর ফল টক তত্ত্ব উত্থাপন করলো, কেবল সেটুকুই ফলাও করে প্রচারে বসে গেল আর তাতেই আমরা মহাউল্লাসে গ্রেট গ্রেট বলে বগল বাজাতে বসে গেলাম - মোটেই শোভন নয়। গ্রেট বলে কিছু কি আদৌ আছে আর আজ? অমন যে সূর্য অস্তাচলে না যাওয়া গ্রেট ব্রিটেন, তারও গ্রেটগিরির গোমর ফাঁক হয়ে গেছে বহু আগেই। আজ তার ওখানেও সুর্য অস্তাচলে যায়।

বি বি

২০১৯-০৬-২২ ১৬:২৯:৫৯

সামনে হজ্বের মৌসুম। এই মুহুর্তে মধ্যপ্রাচ্য অস্থির হলে প্রকারান্তরে ক্ষতি সৌদি’রই হবে। হজ্ব থেকে সৌদি’র আয় তাদের জিডিপি’র ২% এর বেশী। বিশ্বস্ত সূত্রকে অনুসার যুবরাজ-লমানের সঙ্গে ফোনালাপের পরই ট্রাম্প ইরান হামলা থেকে সরে আসে। আর যুদ্ধ মানেই প্রাণহানি এটা জেনেও যারা প্রচার করছে প্রাণহনি ঘটবে এইজন্য ট্রাম্প ইরানের সাথে যুদ্ধ জড়ালো না তারা আপাততঃ জানুক ট্রাম্প ইজ গ্রেট।

আপনার মতামত দিন

শ্রীলঙ্কায় যাচ্ছেন না মাশরাফি

পানিবন্দি মানুষ মানবেতর জীবন

‘তুইতোকারিকে’ কেন্দ্র করে চার খুন

ঢাকায় বাড়ছে জীবনযাত্রার ব্যয় কাবু মধ্যবিত্ত

আদালতে মিন্নির স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি

ডেঙ্গু রোগীদের ভিড়

ভয়ঙ্কর মাদক আইস ছড়িয়ে দিচ্ছে আন্তর্জাতিক চক্র

দুই মামলা, আতঙ্কিত না হওয়ার পরামর্শ পুলিশের

ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে ডিএনসিসির সংশ্লিষ্ট বিভাগের ছুটি বাতিল

দুর্নীতিকে দুর্নীতি হিসেবেই দেখব- ওবায়দুল কাদের

সিলেটে ধর্ষিতার স্বামীর ফরিয়াদ

কাঁচাবাজারে বন্যার প্রভাব

কিশোর গ্যাংয়ের অন্তর্দ্বন্দ্বে খুন

পাকুন্দিয়ায় নিহত স্কুলছাত্রীর ময়নাতদন্তে ধর্ষণের আলামত

টিআইবি’র উদ্বেগ প্রত্যাহারের আহ্বান

ভূমিকম্পের তীব্রতা ছিল সিলেটে