যাত্রী সেজেই ওরা ছিনতাই করতো অটোরিকশা

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার | ১৮ জুন ২০১৯, মঙ্গলবার
যাত্রী সেজে সিএনজি অটোরিকশা ছিনতাইকারী চক্রের ছয় সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। গতকাল ভোরে ঢাকার দারুসসালাম, ডেমরা ও দক্ষিণখান এলাকায় বিশেষ অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃতরা হলো, মো. হারুন অর রশিদ (২৮), মো. রুহুল আমিন (৩৬), মো.জামাল হোসেন (৬০), মো.  সোহেল খাঁ (৪০), ওয়ালী উল্লাহ (২১) ও মো.রশিদ খান (৪৫)। এসময় তাদের কাছ থেকে একটি চোরাই সিএনজি ও কয়েকটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়। গতকাল কাওরান বাজারের র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে এসব তথ্য জানান র‌্যাব-৪ অধিনায়ক চৌধুরী মঞ্জুরুল কবির। সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ছিনতাইকারী চক্রের সদস্যরা যাত্রী সেজে সিএনজি ভাড়া করে নির্জন স্থানে নিয়ে চালককে মারধর করে। পরে চালককে রাস্তার পাশে ফেলে দিয়ে সিএনজি নিয়ে চলে যায়। আরেকটি চক্র আছে যারা রাস্তার পাশের চায়ের বা শরবতের দোকানের পাশে সিএনজির জন্য অপেক্ষমান থাকে।  কোন সিএনজি চালক যখন তার তৃঞা মেটানোর জন্য এসব দোকানে যায় তখন ছিনতাইকারীরা ওই চালকদের টার্গেট করে।
কৌশলে তারা চা বা শরবতের সঙ্গে চেতনানাশক ওষুধ খাইয়ে দেয়। পরে ছিনতাইকারী চক্রের অন্য সদস্যরা এসে ওই চালককে ভাড়া করে নিয়ে যায়। কিছুদুর যাওয়ার পর যখন চালক অজ্ঞান হয়ে যায় তখন চালককে রাস্তার পাশে ফেলে রেখে সিএনজি ও তার পাশে থাকা মোবাইল, টাকা ও গাড়ির কাগজপত্র নিয়ে যায়। ছিনতাই করা সিএনজি তাদের নির্ধারিত স্থানে রেখে দেয়। পরবর্তীতে কাগজপত্র দেখে সিএনজির মালিকের সঙ্গে যোগাযোগ করে টাকার বিনিময়ে সিএনজি ফিরিয়ে দেয়। মঞ্জুরুল কবির বলেন, এছাড়া ঢাকা শহরের কিছু সিএনজি চালকরা মালিকের কাছে থেকে সিএনজি নিয়ে ছিনতাইকারী চক্রের সঙ্গে যোগসাজোশ করে। অসুস্থতার ভান করে ওই চালক হাসপাতালে ভর্তি হয়ে মালিককে ফোনে জানায় ছিনতাইকারীরা সিএনজি নিয়ে গেছে। পরবর্তীতে চক্রের অন্য সদস্যরা মালিকের কাছে ফোন দিয়ে বলে তাদের কাছে সিএনজি আছে। টাকা দিয়ে যেন সিএনজি নিয়ে যায়। প্রতিটা সিএনজির জন্য ৬৫ হাজার থেকে এ লাখ টাকা পর্যন্ত দাবি করা হয়। চাহিদামত টাকা পরিশোধ করা হলে নির্জন কোন স্থানে সিএনজি রেখে মালিককে ঠিকানা জানিয়ে দেয়া হয়। তবে টাকা নেয়া ও সিএনজি বুঝিয়ে দেয়ার জন্য ছিনতাইকারীরা নানা কৌশল অবলম্বন করে। ঢাকা শহর সিএনজির জন্য নিরাপদ নয় মন্তব্য করে তিনি বলেন, এজন্য সিএনজির মালিক ও চালকদের সচেতন হতে হবে।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

বানভাসি মানুষের দুর্ভোগ বাড়ছে

নৈরাজ্য

১৯ জনকে গণপিটুনি নিহত ৩

মার্কিন দূতাবাসের দুরভিসন্ধি

মিন্নির জামিন মেলেনি

পুঁজিবাজারে একদিনেই ৫ হাজার কোটি টাকার মূলধন হাওয়া

মশায় অতিষ্ঠ মানুষ ঘরে ঘরে ডেঙ্গু আতঙ্ক

অর্থনৈতিক কূটনীতির ওপর গুরুত্ব দিতে বললেন প্রধানমন্ত্রী

সাত কলেজের অধিভুক্তি বাতিলের আন্দোলনে অচল ঢাবি

যে কারণে সিলেটে মহিলা কাউন্সিলর লাকীর ওপর হামলা

৬ ঘণ্টা বিদ্যুৎ ও পানিবিহীন শাহজালাল বিমানবন্দর

সাত দিনের মধ্যে প্রথম কিস্তি পরিশোধের নির্দেশ

এ যেন খোঁড়াখুঁড়ির নগরী

বৃষ্টি হলেই জলজট

শিমুল বিশ্বাসের পাসপোর্ট প্রদানের নির্দেশ হাইকোর্টের

এক সিগন্যালেই ৬৭ মিনিট