২৩ বছর পর মুক্ত মর্জিনা

বাংলারজমিন

বাগেরহাট প্রতিনিধি | ১২ জুন ২০১৯, বুধবার
হত্যা মামলায় ২৩ বছর সাজা ভোগের পরে মুক্তি পেয়েছে মর্জিনা বেগম (৫২)। দীর্ঘ কারাভোগের পর মুক্ত হয়ে বাড়ি ফেরার সময় তাকে একটি সেলাই মেশিন প্রদান করেছে কারা কর্তৃপক্ষ। গতকাল দুপুরে জেলা কারাগার গেটে ওই নারীর হাতে সেলাই মেশিন তুলে দেন জেল সুপার গোলাম দস্তগীর। এসময় জেলার এসএম মহিউদ্দিন হায়দার, সমাজসেবা অধিদপ্তরের প্রবেশন অফিসার এসএম নাজমুস সাকিবসহ জেলা কারাগারের অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। মর্জিনা বেগম মোরেলগঞ্জ উপজেলার গুয়াবাড়িয়া গ্রামের সাহেব আলী শেখের স্ত্রী। জেলা কারাগার সূত্রে জানা যায়, ১৯৯৬ সালের ২০শে জুলাই স্বামীর বাড়িতে নিজ সতীনকে হত্যা করে মর্জিনা বেগম। ওইদিনই পুলিশ মর্জিনাকে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়। পরে মামলার সাক্ষী-প্রমাণ শেষে আদালত মর্জিনাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দেন। যশোর কারাগারে ১০ বছর এবং বাগেরহাট কারাগারে অবশিষ্ট ১৩ বছর কাটে মর্জিনা বেগমের। ভালো আচরণের জন্য ৭ বছর সাজা কমিয়ে গতকাল দুপুরে মর্জিনাকে মুক্তি দেয় কর্তৃপক্ষ।
মর্জিনা বলেন, জীবনের বেশির ভাগ সময় কারাগারে কাটিয়েছি। এখানে স্যারদের কথামতো চলেছি। আজ মুক্ত হয়ে বাড়ি ফিরে যাচ্ছি। আমি যে সেলাই মেশিনটা পেয়েছি সেটা দিয়ে বাড়ির সামনে একটি দোকান দেওয়ার চেষ্টা করবো।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

ছাত্রদলের ভোট শুরু

অভিযানে যুবলীগ নেতা খালেদের বাসায় যা পাওয়া গেল

পার্লামেন্ট স্থগিত নিয়ে রায় দেয়ার ক্ষমতা নেই আদালতের: সরকার পক্ষ

কী হবে যুবলীগের ট্রাইব্যুনালে?

দেশের অর্থনীতিতে বেক্সিমকোর অবদান অনস্বীকার্য: টিআইবি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্দোলনকারীদের ওপর হামলা

শেখ হাসিনা নরেন্দ্র মোদি বৈঠকে এনআরসি নিয়ে আলোচনা হবে

অর্থশাস্ত্রকে সামাজিক বিজ্ঞানে পরিণত করতে হলে পুনর্বিন্যাস জরুরি

নারায়ণগঞ্জে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১, লাশ দাফনে বাধা

পিয়াজের দাম আর কত বাড়বে?

ডেঙ্গুতে ২৪ ঘণ্টায় নতুন ভর্তি ৫৩৬

৯ আসামির বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

পৈতৃক সম্পত্তি রক্ষায় মাকসুদা বেগমের আকুতি

তারা টকশোর অ্যাংকর নাকি অনভিজ্ঞ বক্তা?

‘টাকা দিয়ে ছাত্র প্রতিনিধি এর নাম কি রাজনীতি’

পার্লামেন্ট স্থগিত নিয়ে রায় দেয়ার ক্ষমতা নেই আদালতের: সরকার পক্ষ