রাবির হলে সিট দখল নিয়ে...

শিক্ষাঙ্গন

রাবি প্রতিনিধি | ৮ জুন ২০১৬, বুধবার
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) শহীদ হবিবুর রহমান হলে সিট দখলকে কেন্দ্র করে বিপ্লবী ছাত্রমৈত্রীর এক কর্মীকে পিটিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে ওই হলে এ ঘটনা ঘটে। আহত মুনীর হোসেন বাংলা বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ও বিপ্লবী ছাত্রমৈত্রীর কর্মী। তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় বিশ্ববিদ্যালয় চিকিৎসা কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়। সূত্রে জানা যায়, বিপ্লবী ছাত্রমৈত্রীর দপ্তর সম্পাদক সবুজ হলের ২৫৩ নম্বর কক্ষের আবাসিক শিক্ষার্থী। সে ৩১৩ নম্বর কক্ষের আবাসিক শিক্ষার্থী সারওয়ার হোসেনের সাথে সিট বদল করার সিদ্ধান্ত নেন। কিন্তু সারওয়ারের রুমমেট ছাত্রলীগ কর্মী মনজেল সেই সিটে অন্য একজনকে ওঠাতে চাচ্ছিলেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সারওয়ার সিট বদল করে সবুজের কক্ষে চলে আসে। সবুজ তার সংগঠনের কয়েকজনের সহযোগিতায় জিনিসপত্র নিয়ে সারওয়ারের কক্ষে গেলেই সারওয়ারের রুমমেট মনজেল কক্ষে তালা লাগিয়ে দেয়। এসময় ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মীও মনজেলের সাথে যোগ দেয়। কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে উভয় পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি শুরু হয়। পরে ছাত্রলীগের কয়েকজন মিলে সবুজের সহযোগী মনীর হোসেনকে ধাওয়া দিয়ে বেধড়ক মারধর করে। এসময় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কৃত ছাত্র ও হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মামুনুর রশীদ ও সাধারণ সম্পাদক বায়েজিদ এবং বিপ্লবী ছাত্রমৈত্রীর সভাপতি মিনহাজ আবেদীন ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন। বিপ্লবী ছাত্রমৈত্রীর সভাপতি মিনহাজ আবেদীন বলেন, ‘ওই সিটে ছাত্রলীগের কাউকে উঠানোর জন্য হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নেতৃত্বে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা আমাদের ওপর হামলা চালায়।’ হবিবুর রহমান হল ছাত্রলীগের সভাপতি মামুনুর রশীদ মারধরের বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, ‘এ ঘটনায় ছাত্রলীগের কেউ জড়িত নেই। ব্যক্তিগত দ্বন্দ্বের জেরে এ ঘটনা ঘটেছে।’
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন