অংশীদারদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে কাজ সহায়তা করছে ফোর্টিনেট

তথ্য প্রযুক্তি

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | ২৯ মে ২০১৯, বুধবার
বিশ্বব্যাপী স্বয়ংক্রিয় সাইবার নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণে ২০১৮ সালের সেরা অংশীদার পুরস্কার পেয়েছে ফোর্টিনেট। সম্প্রতি তুরস্কের ইস্তানবুলে অংশগ্রহণকারী সার্কের অংশীদার সম্মেলনে এ পুরস্কার ঘোষণা করা হয়। ডিজিটাল নিরাপত্তা নিশ্চিত চ্যালেঞ্জ বাড়িয়ে তুলতে এবং সাম্প্রতিক সময়ে সাইবার নিরাপত্তা হুমকির প্রবণতা, উদ্ভাবন ও তথ্য সুরক্ষিত করার কৌশলগুলি সম্পর্কে সচেতন করতে ভারত, শ্রীলঙ্কা, বাংলাদেশ, নেপাল ও মালদ্বীপসহ ১২৫ টিরও বেশি অংশীদারকে নিয়ে সম্মেলনটি অনুষ্ঠিত হয়।

ডিজিটাল রুপান্তরের চাহিদা পূরণ করতে নেটওয়ার্ক সল্যুশন ও স্ট্রাটেজিক ডিজাইনের সাথে সাথে এসডি-ডব্লিউ যুক্ত, মোবাইল কম্পিউটিং, আইওটি এবং বহুমুখি ক্লাউড অবকাঠামো ও সেবার প্রয়োজন। একই সাথে সব ধরণের প্রতিষ্ঠান ও শিল্পের বিদ্যমান নিরাপত্তা ও অবকাঠামগত কার্যকারিতা নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য ফাইভ জি’র মতো উন্নত প্রযুক্তির নেটওয়ার্ক সেবা নিতে বাধ্য হচ্ছে।

ফোর্টিনেট’র ভারত ও সার্কের ভাইস প্রেসিডেন্ট জিও সারনো বলেন, ‘প্রতিযোগিতামূলক ডিজিটাল বাজারে টিকে থাকতে কোম্পানিগুলো এখন ক্লাউডে প্রবেশ ও সফটওয়ার ভিত্তিক সেবা প্রদানে রুপান্তরিত হচ্ছে। কিন্তু এর মধ্যে অনেকগুলো প্রতিষ্ঠানের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য সুুরক্ষা নিশ্চিত করার জন্য অবকাঠামগত অথবা দক্ষ জনবল নেই। এই কারণেই বিশ্বব্যাপী নিরাপত্তা সুরক্ষা নিশ্চিত করতে ফোর্টিনেট অংশীদার হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। এ ক্ষেত্রে ফোর্টিনেট অংশীদারদের মধ্যে বিভিন্ন দ্রব্য সামগ্রি, দিক নির্দেশনা এবং বিশেষজ্ঞদের মাধ্যমে হুমকি থেকে সব শিল্পকে নিরাপত্তা প্রদান করে। ’

নানা ধরণের এই চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করার পাশাপাশি ডিজিটাল অর্থনীতির সম্ভাব্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে কাজ করছে ফোর্টিনেট। ব্যবসায়িক, প্রযুক্তি এবং অবকাঠামোগত বিষয়গুলো আত্মবিশ্বাসের সাথে পরিচালিত করার লক্ষ্যে ফোর্টিনেট কিছু দিক নির্দেশনাও প্রদান উপস্থাপন করেছে।

এ বছরের সম্মেলনে আধুনিক সব হুমকি মোকাবেলা করে কিভাবে তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিক করা যায় অংশীদারদের মধ্যে সে বিষয়ে দিক নির্দেশনা, ক্রিটিক্যাল সাইবার নিরাপত্তা এবং হুমকি রোধে প্রিমিয়ার টেকনিক্যাল সেশন করে। এছাড়াও ফোর্টিনেট’র পণ্য ও সল্যুশন, অংশগ্রহণকারীদের উন্নয়ন এবং তুলনামূলক নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ব্রেক আউট সেশস পরিচালনা করা হয়। এর পাশাপাশি এসডি-ডব্লিউএএন, নেটওয়ার্ক অ্যাকসেস কন্ট্রোল, ওটি পরিবেশ ওপর বিশেষ সেশন করে। বিস্তৃত নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণ, ডিভাইসের ক্রমবর্ধমান চ্যালেঞ্জ এবং বর্তমান ও ভবিষ্যতে খাপখাওয়াকে কিভাবে নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করা যায় সে বিষয়ের ওপর প্যানেল আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

কুকুরের মৃত্যুতে ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রীর শোক, ফুলের মালা দিয়ে শেষ শ্রদ্ধা

টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ এক রোহিঙ্গা নিহত

আওয়ামী লীগ নেত্রী বলে কথা!

ভারতে সুপার ইমার্জেন্সি চলছে : মমতা

কাউকে যেন কোনো ধরণের হয়রানি না করা হয়- ডিএমপি কমিশনার

পাকিস্তানের প্রশংসা করলেন ভারতের রাজনীতিক শারদ পাওয়ার

শীর্ষ ২ টেলিকম কোম্পানিতে প্রশাসক বসাতে চায় বিটিআরসি

মুক্তিযুদ্ধে কলকাতার সাংবাদিকদের ভূমিকার প্রশংসায় বাংলাদেশের তথ্যমন্ত্রী

খাদিম সু বাংলাদেশে বিধিবদ্ধ হয়েছে

ভারতে পৌঁছেছে বাংলাদেশের যুদ্ধজাহাজ

সৌদি আরবে ড্রোন হামলার জন্য ইরানকে দায়ী করেছে যুক্তরাষ্ট্র

এগুলো হচ্ছে রোগের লক্ষণ, সেই রোগ গণতন্ত্রহীনতা

কাশ্মীর: মৃত্যু পর্যন্ত যুদ্ধ করবে পাকিস্তান

পাকিস্তান ভেঙে টুকরো টুকরো হয়ে যাবে

পাকুন্দিয়ায় বাসচাপায় দুই স্কুলছাত্র নিহত

শোভন বললেন- ভালো থেকো