সিসা তৈরির অবৈধ কারখানা, হুমকিতে পরিবেশ

বাংলারজমিন

মো. জোবায়ের হোসেন, মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) থেকে | ২৭ মে ২০১৯, সোমবার
দিনে দিনে ব্যাটারিচালিত অটোরিকশার ব্যবহার বৃদ্ধির ফলে ব্যাটারির চাহিদা ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে। আর তাই ব্যাটারি তৈরির অন্যতম উপাদান সিসার চাহিদাও বাড়ছে সমানতালে। তাই পুরাতন ব্যাটারি থেকে সিসা তৈরির জন্য সারা দেশেই গড়ে উঠছে সিসা তৈরির কারখানা। যদিও এ ধরনের কারখানা সম্পূর্ণ রূপে পরিবেশ ও জনস্বাস্থ্যের জন্য হুমকি। সিসা তৈরির এমনি একটি অবৈধ কারখানার ক্ষতিকর ও বিষাক্ত রাসায়নিক পদার্থে হুমকিতে পড়ছে টাঙ্গাইলের মির্জাপুরের বংশাই-ত্রিমোহন এলাকা। উপজেলার লতিফপুর ইউনিয়নের বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ একাব্বর হোসেন সেতুর পশ্চিমাংশে সম্প্রতি গড়ে উঠা একটি সিসা তৈরির কারখানা থেকে এই ক্ষতিকর ও  বিষাক্ত রাসায়নিক পদার্থ বের হচ্ছে বলে জানা গেছে। সরেজমিন পরিদর্শনকালে দেখা যায়, বংশাই নদী সংলগ্ন আবাদী জমির উপর চারদিকে টিন দ্বারা বেষ্টিত ওই কারখানায় ৮ থেকে ১০ জন লোক সিসা তৈরির পূর্ব প্রস্তুতিমূলক কাজ করছিল। কর্মরত জহিরুল নামের একজন শ্রমিক জানান, পুরাতন ব্যাটারি কিনে ওগুলোর কোষ আলাদা করার পর একটি চুল্লির ভেতর  কাঠ ও কয়লা দিয়ে স্তরে ব্যাটারির কোষগুলো সাজিয়ে উচ্চ তাপ সৃষ্টি করা হয়।
ফলে ব্যাটারির কোষে থাকা সিসা গলে চুল্লির নিচের স্তরে জমা হয় সেখান থেকে বড় হাতল দিয়ে সিসা নির্দিষ্ট ডাইসে ভরা হয়। তৈরিকৃত ২৫ থেকে ৩০ কেজি ওজনের ওসব সিসার ডাইস টন প্রতি ৪০ থেকে ৮০ হাজার টাকা দরে বিভিন্ন ব্যাটারি তৈরির কারখানায় বিক্রি হয় বলেও তিনি জানান। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবদুল মালেক জানান, আলোচিত ওই কারখানায় সম্প্রতি অভিযান পরিচালনা করে অর্থদণ্ড দেয়া হয়েছিল। পুনরায় তারা যদি এই কাজ করে থাকে তবে ভবিষ্যতে তাদের বিরুদ্ধে আরও কঠিনভাবে আইন প্রয়োগ করা হবে।





এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন