আইসিইউ থেকে কেবিনে এটিএম শামসুজ্জামান

বিনোদন

স্টাফ রিপোর্টার | ২০ মে ২০১৯, সোমবার | সর্বশেষ আপডেট: ১০:৪৮

একুশে পদকপ্রাপ্ত খ্যাতিমান অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামান সুস্থ হয়ে উঠছেন। গুরুতর অসুস্থ হলে গত ২৬শে এপ্রিল রাজধানীর আজগর আলী হাসপাতালে ভর্তি করা হয় এ অভিনেতাকে। অবস্থা সংকটাপন্ন হওয়ায় তাকে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয় বেশ কয়েকদিন। নন্দিত এই অভিনেতা দীর্ঘ ২৩ দিন ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে (আইসিইউ) থাকার পর ২০শে মে সোমবার কেবিনে ফিরেছেন। তথ্যটি জানিয়েছেন এটিএম শামসুজ্জামানের মেয়ে কোয়েল আহমেদ।

তিনি বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, বাবার শরীর অনেকটাই ভালো এখন। স্বাভাবিকভাবে সবার সঙ্গে কথা বলছেন। চিকিৎসক আজ তাকে কেবিনে পাঠিয়ে দিয়েছেন। সবার কাছে দোয়া চাচ্ছি তিনি যেন সুস্থ হয়ে দ্রুত বাসায় ফিরেতে পারেন।

গত ২৬শে এপ্রিল রাত ১১টার দিকে অসুস্থ বোধ করায় এটি এম শামসুজ্জামানকে আজগর আলী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপর হঠাৎ করেই তার রেচন প্রক্রিয়ায় জটিলতা দেখা দেয়। এ কারণে ২৭শে এপ্রিল তার একটি অস্ত্রোপচার হয়। কিন্তু ৩০শে এপ্রিল শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়। এরপর সুস্থতা অনুভব করলে লাইফ সাপোর্ট খুলে দেয়া হয়। কিন্তু পুনরায় শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় আবারো তাকে লাইফ সাপোর্ট দেয়া হয়।

প্রসঙ্গত, এটিএম শামসুজ্জামান অভিনয়ে পাঁচবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন। শিল্পকলায় অবদানের জন্য ২০১৫ সালে পান রাষ্ট্রীয় সর্বোচ্চ সম্মাননা একুশে পদক। অভিনয়ের পাশাপাশি তিনি একজন প্রযোজক, চিত্রনাট্যকার এবং নির্মাতাও।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

‘কাশ্মীরে জায়গা করে নেবে সন্ত্রাসীরা’

কাউন্সিলরদের জরুরি তলব, ৪টার মধ্যে ঢাকায় থাকার নির্দেশ

রাঙামাটিতে জেএসএসের ২ কর্মীকে গুলি করে হত্যা

আজাদ কাশ্মীর নিয়ে ভারত-পাকিস্তান বাকযুদ্ধ

ধামরাইয়ে ইট ভাটার মালিক খুন

বুথফেরত জরিপে মুখোমুখি নেতানিয়াহু ও বেনি গান্টজ

আকামা থাকার পরও ফেরত পাঠাচ্ছে বাংলাদেশিদের, ৯ মাসে ফিরেছেন ১০০০০

ট্রাম্পের জন্য তালেবানদের আলোচনার দরজা খোলা

গাজীপুর ও নারায়ণগঞ্জে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ২

আসামে কঠিন পরীক্ষার মুখে বাংলাভাষীরা

জাবির সাবেক ভিসিসহ শিক্ষক-ছাত্রনেতাদের মোবাইল ফোনসেবা বন্ধ

‘মনের মতো গানও আজকাল পাই না’

বার্সেলোনাকে বাঁচালেন টার স্টেগান

হার দিয়ে শুরু চ্যাম্পিয়ন লিভারপুলের

থাইল্যান্ডে নগ্ন কেরি কেতোনা

যে কারণে র‌্যাঙ্কিংয়ে ঢাবি’র পতন