ছাত্রলীগ করবো না, মার খাওয়ার পর নেতার আহাজারি

অনলাইন

অনলাইন ডেস্ক | ২০ মে ২০১৯, সোমবার, ১০:৫৫ | সর্বশেষ আপডেট: ১০:৫৮
ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটিতে জায়গা না পেয়ে শনিবার মধ্যরাতে টিএসসিতে অবস্থান নেয় পদবঞ্চিত নেতারা। এ সময় বর্তমান কমিটির নেতৃবৃন্দের সঙ্গে তাদের আলোচনাও হয়। কিন্তু আলোচনার একপর্যায়ে হামলা চালানো হয় পদবঞ্চিত নেতাদের ওপর। মারধরের শিকার ছাত্রলীগ নেতাদের দাবি, সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীর নেতৃত্বে এ হামলা হয়।  

এদিকে এ হামলার শিকার এক নেতার আহাজারির একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে গেছে।

ওই ভিডিও দেখা যায়, তিনি বলছেন- সারা শরীরে কোথাও বাদ রাখে নাই। আমারে যে যেমনে পারছে, তেমনে মারছে। আমার অপরাধ কি? আমার মা কই? আমি ছাত্রলীগ করবো না।
আমি শোভন ভাই আর রাব্বানী ভাইয়ের মাঝখানে বসা ছিলাম। আমি কিচ্ছু করি নাই, কিচ্ছু করি...। আমারে সবাই মারছে। এ সময় তার কান্নায় চারপাশের পরিবেশ ভারী হয়ে ওঠে।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Md Kamrul

২০১৯-০৫-২০ ১০:১৬:০৯

গুটিকয়েক সুবিধাবাদী নেতা আর কর্মীর জন্য স্বনামধন্য এই সংগঠনের বদনাম কোনভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। ভাষা আন্দোলন, স্বাধীনতা যুদ্ধ ও গনতন্ত্র পুনরুদ্ধার এই সব কয়টি গুরুত্বপূর্ণ সময় এই ছাত্র সংগঠনটি বলিষ্ঠ ভূমিকা রেখেছে। জাতির সব সংকটে ছাত্রলীগ সবার আগে এগিয়ে এসে, সবসময় প্রশংসা কুড়িয়েছে। এখন কে কমিটিতে জায়গা পেল আর কে পেল না, তা নিয়ে যদি প্রতিদিন মধুর ক্যান্টিনে আর টিএসসিতে নিজেরা নিজেরা মারামারি করে তবে প্রতিদ্বন্দ্বী অন্য সংগঠনগুলো ছাত্রলীগের দুর্বলতা তুলে ধরবে আর মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ভাবমূর্তি এতে ক্ষুণ্ন হবে। সবচেয়ে ভালো হয়, আগামী ১ বছরের জন্য ছাত্রলীগের সমস্ত কর্মকান্ড স্থগিত ঘোষণা করা হোক !!!

M A Hoque

২০১৯-০৫-২০ ০৮:১২:৫৩

এইউদ্যোগ কে স্বাগতম। অনেক চোর আছে , যে চুরি কাজ ছেড়ে তওবা করে মাসজিদে গিয়ে পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়ে ঠিক তাই হবে। ভালো, চরিত্র বানদের ছাত্রগীগে জায়গা নেই। আর বাকীটা বললা্ম না....... ।

shishir

২০১৯-০৫-২০ ০১:৩৬:৫৮

এই ছাএলিগ দিয়ে আওয়ামীগের কোন লাভ হবে না।সাধারন মানুষের আস্থালাভ তো দুরের কথা একটা ভোট ও দলের বারবে না,বরং দূড়নাম কূরাছে।তাই বিলুপ্ত করে নতুনভাবে সাজানো হোক।

আপনার মতামত দিন

বিশেষ বরাদ্দের চাল-গমের জন্য তদবিরবাজদের ভিড়

বিজয়নগরে স্বতন্ত্র প্রার্থী নাছিমা বিজয়ী

ভাগ্নে অপহরণের ‘তদন্তে’ সোহেল তাজ

দুই মামলায় আটকে আছে খালেদার মুক্তি

ইফায় অচলাবস্থা, ডিজির পদত্যাগ দাবি কর্মকর্তাদের

কমিউনিটি ক্লিনিকে আরো ১২০০০ কর্মী নিয়োগ হচ্ছে

ক্রাইম পেট্রোল দেখে খুন, অতঃপর...

৫ স্কুলছাত্রীসহ ৭ নারী ধর্ষিত

ধর্ষণ মামলার প্রতিবেদন বিলম্বে দেয়ায় চিকিৎসককে তলব

অর্থমন্ত্রী বাসায় ফিরেছেন

বিচারাধীন মামলা ৩৫ লাখ ৮২ হাজার

মধ্যপ্রাচ্যে আরো ১০০০ সেনা মোতায়েন করছে যুক্তরাষ্ট্র

এক মাসের মধ্যে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ সরিয়ে নেয়ার নির্দেশ

ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে সরাসরি যান চলাচল বন্ধ

রাষ্ট্র ও বিচার ব্যবস্থার ওপর জনগণের আস্থা হারিয়ে গেছে

রংপুরে জেলা পরিষদের প্রায় অর্ধকোটি টাকা লুটপাট