কালবৈশাখীর তাণ্ডবে লণ্ডভণ্ড নাসিরনগর

বাংলারজমিন

নাসিরনগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি | ১৫ মে ২০১৯, বুধবার
ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগরে কালবৈশাখীর তাণ্ডবে ৫ শতাধিক ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এ ছাড়াও উপড়ে পড়েছে শতশত গাছপালা। সরজমিন সদর উপজেলার আনন্দপুর গ্রামের আলী আজম মিয়ার বাড়িতে গিয়ে দেখা যায় তার তিনটি ঘর ভেঙে চুরমার করে ফেলেছে। ঘরের চালা উড়িয়ে পার্শ্ববর্তী খালে ফেলেছে। এ ছাড়াও আক্কাস মিয়া ও রাসেল মিয়ার বসত ঘরটি ঝড়ে ভেঙে গেছে। আশুরাইল গিয়ে দেখা যায় বিধবা নারী পারুল বেগম তার ঘরের চালা খুঁজচ্ছেন।
গতকাল ঝড়ে তার একমাত্র ঘরটি উড়িয়ে নিয়ে গেছে। এই গ্রামে প্রায় ২০টি ঘর বিধ্বস্ত হয়েছে।
অধিকাংশ ঘরের ধ্বংসাবশেষ খুঁজে পায়নি। নাসিরপুর গ্রামের ভানু আচার্য বলেন ১০ লাখ টাকা খরচ করে নতুন একটি পোলট্রি ফার্মের ঘর তৈরি করি কিন্তু গতকালের ঝড়ে উড়ে যায়।
সরকারি কোনো সহায়তা না পেলে আমি পথের ভিখারি হয়ে যাব। বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে নাসিরনগর উপজেলার উপর দিয়ে প্রবলবেগে কালবৈশাখী বয়ে যাওয়ায় এ ক্ষয়ক্ষতি হয়। তবে উপজেলা প্রশাসন বলছে শুধু বসতঘর বিধ্বস্ত হয়েছে প্রায় ২ শতাধিক। সমগ্র উপজেলার প্রকৃত ক্ষয়ক্ষতির হিসাব পেতে আরো ৭ দিন সময় লাগতে পারে। রোববার (১৩ই মে) সন্ধ্যা ও রাত সাড়ে ১২টা দুইদফা কালবৈশাখীর তাণ্ডবে উপজেলার কিছু কিছু এলাকা ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে। পুরো উপজেলার বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ। উপজেলা সদরে বিকালে বৈদ্যুতিক সংযোগ দিলেও দু’মিনিট পর আবার বন্ধ হয়ে যায়। নাসিরনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ সাইফুল কবির জানান, উপজেলার ক্ষয়ক্ষতির চিত্র এখনই বলা যাচ্ছে না। তবে আপাতদৃষ্টিতে মনে হচ্ছে শতাধিক ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। সরকারিভাবে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য কোনো ত্রাণের ব্যবস্থা নেই। সরকারের কাছে আবেদন করব ত্রাণ সহায়তা দিতে।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

বানভাসি মানুষের দুর্ভোগ বাড়ছে

নৈরাজ্য

১৯ জনকে গণপিটুনি নিহত ৩

মার্কিন দূতাবাসের দুরভিসন্ধি

মিন্নির জামিন মেলেনি

পুঁজিবাজারে একদিনেই ৫ হাজার কোটি টাকার মূলধন হাওয়া

মশায় অতিষ্ঠ মানুষ ঘরে ঘরে ডেঙ্গু আতঙ্ক

অর্থনৈতিক কূটনীতির ওপর গুরুত্ব দিতে বললেন প্রধানমন্ত্রী

সাত কলেজের অধিভুক্তি বাতিলের আন্দোলনে অচল ঢাবি

যে কারণে সিলেটে মহিলা কাউন্সিলর লাকীর ওপর হামলা

৬ ঘণ্টা বিদ্যুৎ ও পানিবিহীন শাহজালাল বিমানবন্দর

সাত দিনের মধ্যে প্রথম কিস্তি পরিশোধের নির্দেশ

এ যেন খোঁড়াখুঁড়ির নগরী

বৃষ্টি হলেই জলজট

শিমুল বিশ্বাসের পাসপোর্ট প্রদানের নির্দেশ হাইকোর্টের

এক সিগন্যালেই ৬৭ মিনিট