স্ম র ণ

মাহফুজ উল্লাহ

ষোলো আনা

ষোলো আনা ডেস্ক | ৩ মে ২০১৯, শুক্রবার | সর্বশেষ আপডেট: ৬:৫৯
স্পষ্টভাষী মাহফুজ উল্লাহর জন্ম ১৯৫০ সালে নোয়াখালীতে। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পদার্থবিদ্যা ও সাংবাদিকতায় স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তান ছাত্র ইউনিয়নের কর্মী হিসেবে অংশ নিয়েছিলেন ঊনসত্তরের ১১ দফা আন্দোলনে। আইয়ুব খানের শাসনামলে তাকে ঢাকা কলেজ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছিল। তিনি পরে ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

ছাত্রাবস্থাতেই তিনি সাংবাদিকতা পেশার সঙ্গে জড়িয়ে পড়েন। সাপ্তাহিক বিচিত্রার জন্মলগ্ন (১৯৭২) থেকে জড়িত ছিলেন। এ ছাড়াও কাজ করেছেন বিভিন্ন বাংলা ও ইংরেজি দৈনিকে। বাংলাদেশে তিনিই পরিবেশ সাংবাদিকতার সূচনা করেন। তিনি চীনে বিশেষজ্ঞ হিসেবে, কলকাতায় বাংলাদেশ উপ-দূতাবাসে দায়িত্ব পালন করেন। এ ছাড়াও তিনি বিভিন্ন বিষয়ে বাংলা ও ইংরেজি ভাষায় পঞ্চাশের অধিক বই লিখেছেন।

মাহফুজ উল্লাহ মৃত্যুবরণ করেন গত ২৭শে এপ্রিল। ব্যাংককের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৯ বছর। সাংবাদিকতার পাশাপাশি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগে খণ্ডকালীন শিক্ষকতা করেছেন তিনি। তিনি ড্যাফোডিল বিশ্ববিদ্যালয়ে সাংবাদিকতা ও গণযোগাযোগ বিভাগে শিক্ষকতায় যুক্ত ছিলেন।


এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

সন্ত্রাসবাদে অর্থায়ন ঠেকাতে মার্কিন সহায়তা অব্যাহত থাকবে: রাষ্ট্রদূত

বৃটিশ কনজারভেটিভ পার্টির প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বিএনপির বৈঠক

মিয়ানমারকে রোহিঙ্গাদের ফেরত নিতে হবে : প্রধানমন্ত্রী

ধৃষ্টতা দেখালে পিঠের চামড়া থাকবে না

আপনারা এতোদিন আঙ্গুল চুষছিলেন? (অডিও)

ঢাকা শহরকে সরকার লাস ভেগাসে পরিণত করেছে: মঈন খান

অবৈধ জুয়ার আড্ডা বা ক্যাসিনো চলতে দেয়া হবে না: ডিএমপি কমিশনার

শুধু ক্যাসিনো নয়, সব অবৈধ ব্যবসার বিরুদ্ধে অভিযান চলবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

যুবলীগ নেতা খালেদের বিরুদ্ধে ৩ মামলা, গুলশান থানায় হস্তান্তর

একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজ কী হওয়া উচিত?

২ দিনের সফরে সৌদি আরবে ইমরান

ছিনতাইয়ের মামলায় পুলিশ কর্মকর্তাসহ ২ জনের কারাদণ্ড

আফগানিস্তানে তালেবানের ট্রাকবোমা হামলায় নিহত ২০, আহত ৯৫

প্রবাসীর স্ত্রীর সঙ্গে পরকিয়া, যুবকের বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার

প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার হুমকির অভিযোগে দুদুর বিরুদ্ধে মামলা

জলবায়ু পরিবর্তনের সবচেয়ে বড় বোঝা বাংলাদেশের দরিদ্রদের কাঁধে