চাকরি ফিরে পেলেন জাহালম

শেষের পাতা

পলাশ (নরসিংদী) সংবাদদাতা | ২৬ এপ্রিল ২০১৯, শুক্রবার | সর্বশেষ আপডেট: ১১:৫২
বিনা দোষে তিন বছর কারাভোগের পর উচ্চ আদালতের নির্দেশে মুক্তি পেয়েছেন পাটকল শ্রমিক জাহালম। একই সঙ্গে ফিরে পেলেন চাকরিটিও। গত মঙ্গলবার থেকে তিনি তার কর্মস্থল নরসিংদীর ঘোড়াশালের বাংলাদেশ জুটমিলে তাঁতী হিসেবে কাজ শুরু করেন।

সোনালী ব্যাংকের অর্থ কেলেঙ্কারিতে দুদকের দায়ের করা ৩৩টি মামলায় ছালেকের পরিবর্তে ২০১৬ সালের ৬ই ফেব্রুয়ারি জাহালমকে আটক করা হয়। দীর্ঘ তিনবছর ভুল আসামি হিসেবে জেলে থাকার পর এ বছরের ৩রা ফেব্রুয়ারি রাত ১২টা ৫৮ মিনিটে গাজীপুরের কাশিমপুর কারাগার থেকে তিনি মুক্তি পান। মুক্তির পর তার চাকরি ফিরে পাওয়ার আশায় সকল প্রকার কাগজপত্র নিয়ে বিজেএমসি’র চেয়ারম্যান বরাবর আবেদন করেন। আবেদনের প্রেক্ষিতে বিজেএমসি চেয়ারম্যান জাহালমের সকল প্রকার কাগজপত্র পর্যালোচনা করে তাকে স্বপদে যোগদানের জন্য নির্দেশ দেন। এই নির্দেশনা মোতাবেক এ মাসের ১৬ তারিখে তিনি পলাশ উপজেলার ঘোড়াশালে অবস্থিত বিজেএমসি’র নিয়ন্ত্রণাধীন বাংলাদেশ জুট মিল কর্তৃপক্ষের কাছে তার কাগজপত্র পেশ করেন। কর্তৃপক্ষ নির্দেশনা মোতাবেক তাকে স্বপদে যোগদান গ্রহণ করেন।

দীর্ঘ তিনবছর পর চাকরি ফিরে পাওয়ার বিষয়ে জাহালম জানান, এই তিনটি বছর বিনাদোষে কারাবরণ করে শরীর অনেকটা দুর্বল হয়ে গেছে। মানসিক অবস্থাও আগের মতো নেই। ফলে আগের মতো এখন আর কাজে মন বসে না। কেমন যেন একটা অমানিশার ঘোর অন্ধকার দেখতে পাই। তাই জীবন থেকে চলে যাওয়া তিনটি বছরের ক্ষতিপূরণ দাবি করছি।

উল্লেখ্য, পাঁচবছর আগে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) থেকে জাহালমের গ্রামের বাড়ি টাঙ্গাইলের ঠিকানায় একটি চিঠি পাঠানো হয়। ওই চিঠিতে ২০১৪ সালের ১৮ই ডিসেম্বর সকাল সাড়ে ৯টায় জাহালমকে দুদকে হাজির হতে বলা হয়। জাহালম সেসময় নরসিংদীর ঘোড়াশালের বাংলাদেশ জুট মিলে শ্রমিকের কাজ করছিলেন।

যথা সময়ে দুদকে হাজিরা দিয়ে জাহালম আবার তার নরসিংদীর জুট মিলের কর্মস্থলে চলে যান। এর দুইবছর পর ২০১৬ সালের ৬ই ফেব্রুয়ারি ঘোড়াশালের ওই জুট মিল পার্শ্ববর্তী কালীগঞ্জ গুদারাঘাট থেকে জাহালমকে গ্রেপ্তার করা হয়। এর আগে সোনালী ব্যাংকের ১৮ কোটি ৪৭ লাখ টাকা আত্মসাতের মামলায় জাহালমের বিরুদ্ধে চার্জশিট দেয় দুদক।

জাহালমের চাকরি ফিরে পাওয়ার বিষয়ে বাংলাদেশ জুট মিলের মহাব্যবস্থাপক মো. গোলাম রব্বানী জানান, জাহালম এই মিলেরই একজন স্থায়ী তাঁতী ছিলেন। দীর্ঘদিন অনুপস্থিতির কারণে নিয়মানুযায়ী চাকরি চলে যায়। দীর্ঘ তিনবছর অনুপস্থিতির পর অবশেষে জাহালমের যোগদানের বিষয়ে বিজেএমসি একটি নির্দেশনা জারি করে। এই নির্দেশনায় আমরা জাহালমের স্বপদে যোগদান গ্রহণ করি। জাহালম এ মাসের ১৬ তারিখে মিলের কার্যালয়ে এসে যোগদান করেন। বর্তমানে তিনি মিলে কর্মরত রয়েছেন।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

পাকুন্দিয়ায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে দুই কিশোর আটক

‘ইরানিদের হুমকি দেবেন না, সম্মানের সঙ্গে কথা বলুন’

খালেদা জিয়ার আদালত স্থানান্তরের প্রজ্ঞাপন প্রত্যাহারে নোটিশ

মক্কায় ক্ষেপণাস্ত্র হামলা, ইরান সমর্থিত হুতিকে অভিযুক্ত সৌদির

বিচারাধীন বিষয়ে সংবাদ পরিবেশন, ব্যাখ্যা দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট

পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির উত্থানের নেপথ্যে বামভোট নাকি মেরুকরণের রাজনীতি

মোদিকে থামাও

হিমালয়ান ভায়াগ্রা নিয়ে দুই গ্রামের সংঘর্ষ

ঋণখেলাপিদের বিশেষ সুবিধা আটকে গেলো হাইকোর্টে

কেরানীগঞ্জে আদালত স্থাপন সম্পূর্ণ অসাংবিধানিক : মওদুদ

ভোট গণনায় কারচুপি ঠেকাতে ইসি’র দ্বারস্থ মোদি বিরোধী জোট

প্রেমিকার বাসা থেকে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের লাশ উদ্ধার

ভারতে বিরোধীদের মধ্যে অস্থিরতা!

কুষ্টিয়ায় ধর্ষণ মামলায় প্রধান শিক্ষকের যাবজ্জীবন

সরাসরি কৃষকদের কাছ থেকে ধান কেনার দাবিতে নাটোরে বিএনপির স্মারকলিপি

সারাদেশের পাস্তুরিত দুধ পরীক্ষার নির্দেশ হাইকোর্টের