পাকিস্তানি কিশোরী ধর্ষণের প্রধান আসামি আটক

অনলাইন

কামাল হোসেন, ভূঞাপুর (টাঙ্গাইল)প্রতিনিধি | ২৩ এপ্রিল ২০১৯, মঙ্গলবার, ৬:৪৪
টাঙ্গাইলের গোপালপুরে পাকিস্তানি এক কিশোরী ধর্ষণ মামলার এজাহারভুক্ত প্রধান আসামি আল-আমিনকে (২০) গ্রেফতার করেছে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) সদস্যরা। মঙ্গলবার সকালে কুড়িগ্রাম জেলার রাজিবপুর থানার পঞ্চনগর গ্রামে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। অভিযুক্ত আল-আমিন টাঙ্গাইল জেলার গোপালপুর এলাকার আবুল হোসেনের ছেলে। সিরাজগঞ্জ র‌্যাব-১২ এর অধিনায়ক আব্দুল্লাহ আল মোমেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, গোপালপুর এলাকার বাংলাদেশি এক নাগরিক চাকরির সুবাদে পাকিস্তানে বসবাস করেন। প্রায় ২০ বছর আগে তিনি পাকিস্তানের এক মেয়েকে বিয়ে করে সেখানকার নাগরিক হয়ে যান। তাদের সংসারে একটি কন্যা সন্তানের জন্ম হয়। গত ৫ মাস আগে তাদের মেয়ে পিতৃভূমি দেখতে তার মাকে সঙ্গে নিয়ে গোপালপুরে চাচার বাড়িতে বেড়াতে আসে।

সেখানে অবস্থানকালে ওই কিশোরীর অপর চাচার ছেলে আল-আমিন তাকে উত্যক্ত ও কু-প্রস্তাব দিতে থাকে। এরই একপর্যায়ে গত ১৬ এপ্রিল রাত সাড়ে ৯টার দিকে কিশোরীকে একা পেয়ে অন্যান্য সহযোগীদের সহায়তায় অপহরণ করে মোটরসাইকেলে করে নিয়ে যায়।
পরদিন ১৭ এপ্রিল ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করে জামালপুর জেলার সরিষাবাড়ি থানার মহিষাকান্দি এলাকায় ফেলে রেখে যায়। এ ঘটনায় কিশোরীর মা বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাব সদস্যরাও আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান শুরু করেন। এরই ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবার সকালে কুড়িগ্রামের রাজিবপুর থানার পঞ্চনগর গ্রামে অভিযান চালিয়ে মামলার প্রধান আসামি আল-আমিনকে গ্রেপ্তার করে বলেও জানান র‌্যাব-১২ এর অধিনায়ক আব্দুল্লাহ আল মোমেন।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Md Imran

২০১৯-০৪-২৩ ১০:৩৪:৩৪

Proud of RAB.

M A Hoque

২০১৯-০৪-২৩ ০৮:১৮:১৪

আর কতো নারী, শিশু ধর্ষীত হলে সরকারের বোধগম্য হবে - দেশে ধর্ষণের মেলা বসেছে ;

Shajusa

২০১৯-০৪-২৩ ০৬:৩১:৫১

ধষনের বিচার ভালো ভাবে করতে পারছে না সরকার তাই দিন দিন ধষন বেড়েই চলছে

আপনার মতামত দিন

‘গান আগের মতো স্থায়িত্ব পাচ্ছে না’

রংপুরেই এরশাদের সমাধি

লক্ষাধিক বিও অ্যাকাউন্ট বন্ধ

যে কারণে পুঁজিবাজারে পতন থামছে না

মিন্নি গ্রেপ্তার

হাসপাতালে হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগীদের ভিড়

ছুরি নিয়ে কীভাবে গেল তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে

সব আদালতে নিরাপত্তা বাড়ানো হবে

ঘাতকের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি, মামলা ডিবিতে

উদ্যোক্তা সৃষ্টিতে উপজেলা পর্যায়ে কারিগরি প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলা হচ্ছে

বাসর হলো না নবদম্পতির

১১ কোম্পানির দুধে সিসা ও ক্যাডমিয়াম

চীনা ডেমু ট্রেন আর কেনা হবে না

বিচারকদের নিরাপত্তা চেয়ে রিট

আসাদকে পাল্টা জবাব আরিফের

৩ মাস পর কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে অ্যাকশন শুরু