পাসপোর্ট বইয়ের সংকটে দুর্ভোগ চরমে

প্রথম পাতা

দীন ইসলাম | ২২ এপ্রিল ২০১৯, সোমবার | সর্বশেষ আপডেট: ২:২৮
পাসপোর্ট বইয়ের চরম সংকটে পড়েছে বহিরাগমন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তর। এজন্য নতুন পাসপোর্ট বা পাসপোর্ট নবায়নের জন্য আবেদনকারী ব্যক্তিদের ভোগান্তি দিন দিন বাড়ছে। পাসপোর্টের পেছনে ঘুরতে ঘুরতে অনেক আবেদনকারী ও তাদের পরিবারের সদস্যরা ক্লান্ত হয়ে পড়েছেন। অবস্থা এমন পর্যায়ে ঠেকেছে যে, দিনের পর দিন বা কখনো মাসের পর মাস পাসপোর্ট পেতে আগ্রহীদের আবেদন ঝুলে থাকছে। নির্ধারিত সময়ের এক থেকে ছয় মাসের মধ্যেও অনেকে পাসপোর্ট বুঝে পাননি। বিদেশস্থ বাংলাদেশ মিশনে জমা হওয়া আবেদনগুলো সবচেয়ে ঢিমেতালে নিষ্পত্তি করা হচ্ছে। এরপরই রয়েছে জেলা পর্যায়ে জমা হওয়া আবেদনগুলো। এসব আবেদনগুলোর প্রতি কম নজর দেয়া হচ্ছে না। তবে আগারগাঁও ঢাকা বিভাগীয় অফিসে জমা হওয়া আবেদনগুলোর দিকে নজর দেয়া হচ্ছে বেশি।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, বর্তমানে বহিরাগমন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তরে মজুত পাসপোর্টের পরিমাণ খুব একটা আশাব্যঞ্জক নয়। এজন্য চাহিদার চেয়ে অর্ধেক পাসপোর্ট প্রিন্টিংয়ের জন্য পাঠানো হচ্ছে। ফলে গত কয়েক মাস জমা হওয়া আবেদনের অর্ধেকের বেশি ঝুলে আছে। গত ২৮শে মার্চ অনুষ্ঠিত সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি’র বৈঠকে ২০ লাখ পাসপোর্ট বুকলেট ও ২০ লাখ লেমিনেশন ফয়েল সরবরাহ করার প্রস্তাব অনুমোদন পেয়েছে। তাই আপাতত পাসপোর্টের সঙ্কট দূর হবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

পাসপোর্ট অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, কর্মসংস্থান, চিকিৎসা, শিক্ষা ও ভ্রমণসহ বিভিন্ন প্রয়োজনে প্রচুর মানুষ এখন বিদেশে যান। তাই বিদেশে যেতে চাইলে প্রথমেই প্রয়োজন পাসপোর্ট। সাধারণ পাসপোর্ট ২১ দিনের মধ্যে এবং জরুরি পাসপোর্ট সাত দিনের মধ্যে সরবরাহ করার বিধান রয়েছে। অথচ সময়মতো পাসপোর্ট না পাওয়ার কারণে অনেকেই জরুরি প্রয়োজনে দেশের বাইরে যেতে পারছেন না। তাই নতুন পাসপোর্টের জন্য গেলে বহিরাগমন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তর থেকে কোন সদুত্তর দেয়া হয় না।

বহিরাগমন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, প্রতিদিন ১৫ থেকে ২০ হাজার আবেদন জমা পড়ে। এসব আবেদন আগারগাঁও বিভাগীয় অফিস, জেলা অফিস এবং দূতাবাসে নেয়া হয়। কিন্তু আবেদনের বিপরীতে সময়মতো পাসপোর্ট দেয়া হচ্ছে না। সমপ্রতি এ সংকট তীব্র আকার ধারণ করে। এরই মধ্যে প্রায় আড়াই লাখ পাসপোর্ট আবেদন আটকে গেছে। এমন অবস্থার মধ্যে পাসপোর্ট সরবরাহকারি প্রতিষ্ঠান ডি লা রিওকে ২০ লাখ পাসপোর্ট বুকলেট ও ২০ লাখ লেমিনেশন ফয়েল সরবরাহে সম্পূরক কার্যাদেশ দেয়া হয়েছে।

এর মধ্যে পাসপোর্ট বুকলেট কিনতে তিনশ’ ৬২ কোটি ৫৪ লাখ ৩৫ হাজার ৭৭৪ টাকা এবং লেমিশেন ফয়েল কিনতে ৪০ কোটি ৭১ লাখ ৬৯ হাজার ৫৬২ টাকা লাগবে। সব মিলিয়ে ৪০৩ কোটি ২৬ লাখ পাঁচ হাজার ৩৩৭ টাকায় পাসপোর্ট বুকলেট ও লেমিশেন ফয়েল কেনার চুক্তি হয়েছে। এরই মধ্যে ১০ লাখ বইয়ের শিপমেন্ট শেষ হয়েছে। এসব পাসপোর্ট বুকলেট দেশে আসার আগ পর্যন্ত পাসপোর্ট সঙ্কট কমার লক্ষণ নেই। বহিরাগমন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তরের সংশ্লিষ্টরা বলছেন, পাসপোর্ট আবেদনের হার হঠাৎ করেই যেন বেড়ে গেছে। তাই পাসপোর্টগুলো হাতে পৌঁছানোর পর সঙ্কট কতটা মিটবে তা সময়ই বলে দেবে।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Kazi

২০১৯-০৪-২৩ ০৭:১৯:৩১

All passports must be Issued for 10 years. If the pages remain empty it should be renewed another two times 5 years at a time.

[email protected]

২০১৯-০৪-২৩ ১১:৩৭:০৬

পাসপোটের ছাপার মান ও ফনট ভালো নয় ।এ দিগে নজর দিয়ে মেয়াদ দশ বছর করা উচিত।

আবুল খায়ের মোহাম্মদ

২০১৯-০৪-২২ ১৭:১৩:২১

পাসপোর্টের মেয়াদ পাঁচ বৎসরের পরিবর্তে দশ বৎসর করা হলে সংকট অনেক কমে যাবে। এর ইতিবাচক ও নেতিবাচক দিকগুলো বিবেচনা করে সরকারকে যথাযথ সিদ্ধান্ত গ্রহণের অনুরোধ করা হ।

ফাহিম আহমদ

২০১৯-০৪-২২ ১৪:৫৫:০৮

কয়দিন পর পর পাসপোর্ট সংকট ! এসব শুনতে শুনতে ক্লান্ত লাগে। তার চাইতে ভালো পাসপোর্ট দেয়া বন্ধ করে দিন। পাসপোর্ট দিয়ে কি হবে? এই পাসপোর্ট দেখলে বিদেশের মাটিতে বেইজ্জত হইতে হয় এখন।

আপনার মতামত দিন

‘মোদি ফের সরকার গঠন করলে বাংলাদেশের জন্য ভালো হবে না ’

চাল আমদানিতে দ্বিগুণ হলো শুল্ক

সরকার সব ক্ষেত্রে ব্যর্থ: ড. কামাল

টাঙ্গাইলে ৪ জনের যাবজ্জীবন

‘ঢাকায় ছিনতাইকারী নেই, সকলকে ধরে জেলে পাঠানো হয়েছে’

এফআর টাওয়ারে আগুন: নির্মাণে ত্রুটি, দায়ী ৬৭ জন

নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় ইন্দোনেশিয়ায় নিহত ৬

বালিশ কাণ্ডে নির্বাহী প্রকৌশলী প্রত্যাহার

ম্যাচমেকার শারদ পাওয়ার

ভারতে স্টোর রুমে ২৪ ঘন্টার নজরদারি

১০০ দিনের এজেন্ডা প্রস্তুতের নির্দেশ

খালেদা জিয়াসহ ৫ জনকে প্রাথমিক মনোনয়ন বিএনপির

আজও ক্ষতিপূরণ দেয়নি গ্রিনলাইন, তীব্র ক্ষোভ হাইকোর্টের

শ্রীলঙ্কায় বৌদ্ধ-মুসলিম রক্তাক্ত পরিণতির আশঙ্কা ভারতের

ভারতে শ্বাসরুদ্ধকর অবস্থা, কে বসবেন দিল্লির মসনদে?

যৌনতা কমছে দেশে দেশে