নাদিমের অন্যরকম সেলুন

আবিদুল হক সোহেল

রকমারি ২১ এপ্রিল ২০১৯, রোববার

একটি সাধারণ মানের  সেলুনে চুল কাটাতে যখন লাগে ৫০/৬০ টাকা। ঠিক তখন মোহাম্মদপুরে টাউন হল-এর যাত্রী ছাউনির পাশেই দেখা যায় একজন নাপিতকে। যিনি ৩০ টাকায় চুল কাটান আর সেভ ২০ টাকা। নেই তার কোনো সেলুন ঘর, নেই দামি দামি চুল কাটার মেশিন। খোলা আকাশের নিচে আছে শুধু একটা চেয়ার, আয়না আর কিছু যন্ত্রাংশ।

বলছিলাম ৪১ বছর বয়সী মোহাম্মদ নাদিমের কথা। যার দুটি মেয়েকে নিয়েই সংসার। তার মধ্যে বড় মেয়ের বিয়ে হয়ে গেছে।
আর ছোট  মেয়েটির বয়স মাত্র ১০। সাড়ে চার বছর ধরে  ছোট্ট মেয়েকে নিয়ে থাকেন মোহাম্মদপুর বিহারী ক্যাম্পে।
পূর্ব পুরুষের হাত ধরে এই পেশায় না আসলেও এই পেশায় কাজ করে যাচ্ছেন বহু বছর ধরেই। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত চুল কেটে থাকেন তিনি। মাস শেষে উপার্জন হয় দশ থেকে বার হাজার টাকা।

নিজে পড়ালেখা করতে পারেন নি কিন্তু তিনি ঠিকই তার ছোট মেয়েকে স্কুলে ভর্তি করিয়ে দিয়েছেন। মোহাম্মদপুরের একটি স্কুলে তৃতীয়  শ্রেণিতে অধ্যয়নরত আছে সে।
আমার একটিই স্বপ্ন। ছোট মেয়েটিকে ঘিরে।  মেয়েটি যেন বড় হয়ে ভালো মানুষ হয়। শিক্ষিত হয়। আর ভালো পরিবারে বিয়ে হোক তার এটাই স্বপ্ন।

আপনার মতামত দিন

রকমারি অন্যান্য খবর

শহরে চকোলেট বৃষ্টি !

২৪ আগস্ট ২০২০

তৈরী হচ্ছে রেলকোচের ১৬০ প্রকার পণ্য

সৈয়দপুরে অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিকদের কারিশমা

৪ মার্চ ২০২০

কাশ্মীরী আপেল কুলে সাফল্য

১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০

জমজে জমজে বিয়ে

৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০

চাষীদের মুখে হাসি

৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০



রকমারি সর্বাধিক পঠিত