রোমানিয়ায় বাংলাদেশ মিশন খুলতে চিঠি চালাচালি

দেশ বিদেশ

মিজানুর রহমান | ২০ এপ্রিল ২০১৯, শনিবার
ইউরোপের দেশ রোমানিয়ায় দুই যুগ আগে বন্ধ করে দেয়া কূটনৈতিক মিশন ফের চালু করছে বাংলাদেশ। সোভিয়েত ইউনিয়নে ভাঙন, বলকান রাষ্ট্রগুলোর অর্থনীতি ক্রমশ দুর্বল হয়ে পড়া এবং বাংলাদেশ সরকারের ‘ব্যয় সংকোচন নীতি গ্রহণসহ বহুমাত্রিক কারণ দেখিয়ে নব্বইয়ের দশকের মাঝামাঝি মিশনটির কার্যক্রম গুটিয়ে নেয় ঢাকা। অবশ্য ‘পরিস্থিতি’ যাই হোক মিশন বন্ধের মতো ‘কঠিন’  সিদ্ধান্ত গ্রহণ সেই সময়ে কতটা যৌক্তিক ছিল তা নিয়ে অদ্যাবধি বিতর্ক চলছে। টানা তৃতীয় দফায় ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকার অনেক আগেই রোমানিয়াসহ বন্ধ সব মিশন খোলার ঘোষণা দেয়। এরইমধ্যে ব্রাজিল, আলজেরিয়া, অস্ট্রেলিয়ার সিডনিসহ অনেক মিশন চালু হয়েছে। বাকি ছিল ইউরোপিয় ইউনিয়নের নবম বৃহত্তম দেশ রোমানিয়া। চলতি বছরে এটি পুনরায় চালুর চূড়ান্ত টার্গেট নিয়ে চিঠি চালাচালি করছে ঢাকা ও  বুখারেস্ট। সেগুনবাগিচা বলছে, সাগর আর পর্বতমালা বেষ্টিত রোমানিয়ার সঙ্গে সম্ভাবনাময় আরো ৪টি দেশের বর্ডার রয়েছে। যেখানে বাংলাদেশের কোনো মিশন নেই। মধ্যম আয়ের দেশের কাতারে উন্নীত হতে যাওয়া বাংলাদেশের ব্যবসা-বাণিজ্য সম্প্রসারণ এবং রাজনৈতিক কারণেও বলকান রাষ্ট্রগুলোতে ফোকাস করা জরুরি হয়ে পড়েছে। সেই বিবেচনায় এ বছরেই মিশনটি খোলার নীতিগত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে বুখারেস্টের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ শুরু করেছে ঢাকা। সম্প্রতি বাংলাদেশ সরকারের একটি উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধি দল দেশটি সফর করেছে। সেখানে ঢাকার চাওয়া এবং বুখারেস্টের চাওয়ার সঙ্গে সমন্বয়ের চেষ্টা করা হয়েছে। সূত্র বলছে, ঢাকার তরফে এখন আর তেমন কাজ নেই। বুখারেস্টের সবুজ সংকেত পেলেই কূটনীতিক ও কর্মকর্তাদের নিয়োগ এবং প্রয়োজনীয় অবকাঠামোগত প্রস্তুতি সম্পন্ন করবে ঢাকা। উল্লেখ্য, রোমানিয়ার অর্থনীতিতে ছন্দ ফিরেছে বহু আগেই। ইউরোপীয় ইউনিয়ন জোটে থাকা দেশটিতে উন্নয়নশীল বিভিন্ন দেশ থেকে প্রচুর ছাত্র, কর্মী, ব্যবসায়ী এবং পর্যটক যাচ্ছেন। সেখানে বাংলাদেশিরাও রয়েছেন। তবে সংখ্যায় তা খুবই কম। দেশটিতে বাংলাদেশি পণ্য রপ্তানি হয় জার্মানি এবং ইউরোপের অন্য দেশ হয়ে। বিশেষ করে তৈরি পোশাক। বাংলাদেশে রোমানিয়ার কোনো দূতাবাস না থাকায় ভারত থেকে ভিসা সংগ্রহ করে দেশটি ভ্রমণে বা পড়াশোনার জন্য বাংলাদেশিদের যেতে হয় জানিয়ে বুখারেস্ট সফর করা এক সরকারি কর্মকর্তা মানবজমিনকে বলেন, পড়াশোনা, ব্যবসা-বাণিজ্য, কর্মসংস্থানে দেশটিতে বিশাল সম্ভাবনা রয়েছে। দেশটির শ্রমবাজার সম্প্রসারিত হচ্ছে উল্লেখ করে ওই কর্মকর্তা বলেন, সেখানে কয়েকশ বাংলাদেশি রয়েছেন। যারা বেশিরভাগই স্টুডেন্ট ভিসায় গেছেন। তবে খুব অল্প সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশি রয়েছেন যারা ইউরোপের অন্যদেশ থেকে গেছেন। তারা সেখানে ভালোই কামাই রোজগার করছেন। দেশটির শ্রমবাজারে অটোমোবাইল, চামড়া, ইলেক্ট্রনিক্স, আইটি খাতের কর্মীদের চাহিদা রয়েছে বলেও জানান তিনি।





এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

টেকনাফে যুবলীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা

বাংলাদেশী কিশোরীর অন্ধকার জীবন

‘লুকিয়ে সিনেমা হলে ঢুকেছিলাম’

রাজি নয় রোহিঙ্গারা শুরু হলো না প্রত্যাবাসন

তিন বিচারপতির বিরুদ্ধে তদন্ত

ইতিহাস গড়তে চান পাপন-ডালিয়া

যারা প্ররোচনা দিয়েছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী (অডিও)

প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধনের পর ডানা মেললো ‘গাঙচিল’

শামীমের লাশ মিললো কুমিল্লায়, নানা নাটকীয়তা

২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গু আক্রান্ত ১৫৯৭ জন হাসপাতালে ভর্তি

এডিসের লার্ভা নিয়ে হার্ডলাইনে সিসিক

বাসাবাড়িতে অভিযানে সুফল মিলবে কি?

দক্ষিণে যেভাবে চলছে অভিযান

ঠাকুরগাঁওয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৪

সেনাপ্রধান আজিজ আহমেদের ইন্দোনেশিয়া সেনা সদর পরিদর্শন

২১শে আগস্ট নিয়ে রাজনীতি করছে আওয়ামী লীগ: রিজভী