গাজীপুরে প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় কলেজছাত্রী শারমিনকে খুন

শেষের পাতা

স্টাফ রিপোর্টার, গাজীপুর থেকে | ১৮ এপ্রিল ২০১৯, বৃহস্পতিবার | সর্বশেষ আপডেট: ১২:৫৩
প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় কলেজছাত্রী শারমিনকে হত্যা করেছে অপর কলেজছাত্র মোস্তাকিন রহমান রাজু। গাজীপুর সিটি করপোরেশনের  কোনাবাড়ী বাজার এলাকায় প্রকাশ্যে শারমিন আক্তার লিজা (১৬) নামের ওই ছাত্রীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা
করে। গতকাল দুপুর আড়াইটার দিকে কোনাবাড়ী কাঁচাবাজার এলাকায় লিংকন কলেজের পাশে এ খুনের ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় মোস্তাকিন রহমান রাজু (১৭) নামে এক কলেজছাত্রকে আটক করেছে পুলিশ। মোস্তাকিন কোনাবাড়ী লিংকন মেমোরিয়াল কলেজের ছাত্র। সে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের সদর থানাধীন সালনা এলাকার আবুল কাশেমের ছেলে। তারা কোনাবাড়ী আমবাগ এলাকায় বাসা ভাড়া থাকতো বলে জানা গেছে। শারমিন আক্তার লিজা গাজীপুর সিটি করপোরেশনের কোনাবাড়ী থানাধীন আমবাগ এলাকার শফিকুল ইসলাম শাফির মেয়ে। সে কোনাবাড়ী ক্যামব্রিজ কলেজের ছাত্রী ছিল।

পুলিশ ও নিহতের পরিবার জানায়, গতকাল সকালে পরীক্ষা দিতে কলেজে যায় শারমিন। পরীক্ষা শেষে দুপুর আড়াইটার দিকে বাসায় ফেরার পথে কোনাবাড়ী কাঁচাবাজার এলাকায় লিংকন কলেজের পাশে পৌঁছালে মোস্তাকিন তাকে প্রেমের প্রস্তাব দেয়। প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় শারমিনকে ছুরিকাঘাত করে মোস্তাকিন। পরে গুরুতর অবস্থায় শারমিনকে উদ্ধার করে স্থানীয় একটি হাসপাতালে নেয়া হয়। পরে সেখান থেকে ঢাকায় একটি হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক শারমিনকে মৃত ঘোষণা করেন। ওই সময় স্থানীয়রা মোস্তাকিনকে আটক করে পুলিশে দেয়।

কোনাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. এমদাদ হোসেন জানান, এ ঘটনায় মোস্তাকিন রহমান রাজুকে আটক করা হয়েছে। নিহতের মরদেহ গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে স্কুলছাত্রীকে ছুরিকাঘাত
চাটমোহর (পাবনা) প্রতিনিধি জানান, চাটমোহরে ধর্ষণ চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে এক স্কুলছাত্রীকে ছুরিকাঘাত করে আহত করেছে দুই যুবক। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় উপজেলার বোয়ালিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পরে এলাকাবাসী তার চিৎকারে এগিয়ে এলে পালিয়ে যায় ওই দুই যুবক।
স্থানীয়রা জানান, ওই স্কুলছাত্রী দীর্ঘদিন ধরে নানার বাড়ি থেকে পড়াশোনা করে আসছিল। সে মহেলা উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী। গত মঙ্গলবার বিকালে তার নানা বাইরে এবং নানী পার্শ্ববর্তী মাঠে ছাগল আনতে যান। তারা বাড়িতে আসতে দেরি হওয়ায় ওই ছাত্রীকে বাড়িতে একা পেয়ে অজ্ঞাত দুই যুবক ঘরে প্রবেশ করে তার হাত-পা বেঁধে ধর্ষণ চেষ্টা চালায়। পরে ওই স্কুলছাত্রীর চিৎকারে এলাকাবাসী এগিয়ে এলে ধর্ষণ চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে তারা তার শরীরের বিভিন্ন জায়গায় ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। পরে আহতাবস্থায় তাকে উদ্ধার করে পার্শ্ববর্তী ভাঙ্গুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। চাটমোহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সেখ মো. নাসির উদ্দিন জানান, ‘ভাঙ্গুড়া থানার ওসির মাধ্যমে বিষয়টি জেনেছি। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। মেয়েটিকে চাটমোহর হাসপাতালে আনা হচ্ছে। বিস্তারিত পরে জানাবো।’

মানিকগঞ্জে যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ
স্টাফ রিপোর্টার, মানিকগঞ্জ থেকে জানান, ভয়ভীতি ও  প্রতারণার মাধ্যমে ৪ বছর ধরে এক নারীকে বিভিন্ন সময় ধর্ষণ করেছে ঘিওর উপজেলার নালী ইউনিয়ন যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আলী উজ্জল। শুধু তাই নয়, ওই নেতার  লালসার কু-দৃষ্টি পড়েছে  ওই নারীর স্কুলপড়ুয়া মেয়ের দিকেও। মেয়ের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক না করতে দিলে ওই নারীর সঙ্গে তার গোপন সম্পর্কের ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ারও  হুমকি দেয়া হচ্ছে। মেয়ের সম্মান বাঁচাতে বাধ্য হয়ে ওই নারী মঙ্গলবার রাতে মানিকগঞ্জ সদর থানায় মামলা করেছেন। এ ছাড়া বুধবার ওই নারীর ডাক্তারি পরীক্ষাও সম্পন্ন হয়েছে বলে জানিয়েছেন মানিকগঞ্জ সরকারি হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. লুৎফর রহমান।

নির্যাতিত ওই নারীর অভিযোগ, যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আলী উজ্জল ভয়ভীতি ও প্রতারণার মাধ্যমে তার ওপর অমানবিক শারীরিক নির্যাতন চালিয়ে আসছিল। তাছাড়া সে বিভিন্ন সময়ে ভিন্ন ভিন্ন মানুষের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করতেও বাধ্য হয়েছে। শুধু তাই নয়, তাকে  দিয়ে বিভিন্ন এনজিও থেকে ৮ লাখ ২৫ হাজার টাকা ঋণ উঠিয়ে নিয়েছে আলী উজ্জল। এখন তার  কুনজর পড়েছে তার মেয়ের দিকে। মেয়ের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক না করতে দিলে এ বিষয়ে বিদেশে থাকা তার স্বামীকে জানাবে এবং তার গোপন ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ার ভয়ও দেখাচ্ছে। প্রথমে মান-সম্মানের ভয়ে কাউকে কিছু না বললেও, সে তার মেয়ের ইজ্জত বাঁচাতে মঙ্গলবার রাতে মানিকগঞ্জ সদর থানায় মামলা দায়ের করেছেন।  

মামলায় উল্লেখ করেছেন, মঙ্গলবার দুপুরে ওই নারীকে তার মেয়েসহ মানিকগঞ্জের উত্তর সেওতা এলাকার মনিরা বেগম মনোয়ারার ৪ তলাবিশিষ্ট বাসার চিলেকোঠার কক্ষে যেতে বলে। না গেলে কিস্তির ৮ লাখ ২৫ হাজার টাকা ফেরত না দেয়ার হুমকি দেয়। প্রাণনাশের হুমকিসহ ইন্টারনেটে তার ভিডিও ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দেয় সে।

উপায়ান্তর না দেখে ওই নারী তার মেয়েকে নিয়ে মঙ্গলবার দুপুরে ওই বাড়ির চিলেকোঠার কক্ষে যায়। প্রথমে ওই ব্যক্তি (আলী উজ্জল) ওই নারীকে ধর্ষণ করে এবং পড়ে অন্য কক্ষ থেকে তার মেয়েকে এনে ধর্ষণ করতে উদ্যত হয়। কিন্তু মাঝে মধ্যেই অপরিচিত পুরুষরা নারী নিয়ে ওই বাড়িতে আসে এমন সন্দেহের ভিত্তিতে কয়েকজন স্থানীয় লোক উক্ত সময়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়। তাদের উপস্থিতি টের পেয়ে আলী উজ্জল তার ব্যবহৃত স্মার্ট মোবাইল ফোনটি ফেলেই পালিয়ে যায়। ওই নারীকে সেখানে পেয়ে স্থানীয়রা জিজ্ঞেস করতেই এই লোমহর্ষক ঘটনা জানা যায়। অভিযুক্ত  মো. আলী উজ্জল (৪০) ঘিওর উপজেলার নালী ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য  দরবেশ ব্যাপারীর ছেলে।

নালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক দিলসাদ খান দেলোয়ার জানান, বিষয়টি আমরা শুনেছি। তবে আলী উজ্জলের নারীঘটিত সমস্যা আছে, এটা সত্য।
নালী  ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল কুদ্দুস মধু জানান, বিষয়টি  শুনেছি। তবে না জেনে কোনো মন্তব্য করতে চাই না।
মানিকগঞ্জ সদর থানার অফিসার ইনচার্জ রকিবুজ্জামান বলেন, এ ব্যাপারে মো. আলী উজ্জল এবং তার এই অপকর্মে সহায়তা করার জন্য ওই বাড়ির মালিক মনিরা বেগম মনোয়ারার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই আশরাফুল ইসলাম বলেন, ভিকটিমের স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেলা হাসপাতালে পাঠানো হলে সেখানে তার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়েছে। এ ছাড়া আসামিদের ধরার চেষ্টাও চলছে। পাশাপাশি উদ্ধার হওয়া মোবাইলটি পরীক্ষা করা হচ্ছে।  
ওই হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. লুৎফর রহমান বলেন, ভিকটিমের স্বাস্থ্য পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। রিপোর্টটি পাওয়ার পর বিষয়টি নিশ্চিত হতে পারবো।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

মোঃ সালাহ উদ্দিন

২০১৯-০৪-১৮ ১৩:২৭:৩২

এপ্রিল ২০১৯ সালে জঘন্ন নুসরাত হত্যাকান্ডের পর পর সারা দেশে হত্যাকান্ডের ঘটনা দিন দিন বৃষ্টির ফোটার মত বাড়ছে। এর কারণ কী আপনারা বলতে পারেনঃ আল্লাহর কাছে আমরা সবাই মিলে প্রার্থনা করি- তিনি যেন আমাদের এ আযাব থেকে রক্ষা করেন। আমিন।

আপনার মতামত দিন

৭শ’ বস্তা চাল আটক

রাষ্ট্রের মেরামতে নতুন রাজনীতির উত্থান অপরিহার্য: জন আকাঙ্ক্ষার বাংলাদেশ

‘মোদি ফের সরকার গঠন করলে বাংলাদেশের জন্য ভালো হবে না ’

চাল আমদানিতে দ্বিগুণ হলো শুল্ক

সরকার সব ক্ষেত্রে ব্যর্থ: ড. কামাল

টাঙ্গাইলে ৪ জনের যাবজ্জীবন

‘ঢাকায় ছিনতাইকারী নেই, সকলকে ধরে জেলে পাঠানো হয়েছে’

এফআর টাওয়ারে আগুন: নির্মাণে ত্রুটি, দায়ী ৬৭ জন

নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় ইন্দোনেশিয়ায় নিহত ৬

বালিশ কাণ্ডে নির্বাহী প্রকৌশলী প্রত্যাহার

ম্যাচমেকার শারদ পাওয়ার

ভারতে স্টোর রুমে ২৪ ঘন্টার নজরদারি

১০০ দিনের এজেন্ডা প্রস্তুতের নির্দেশ

খালেদা জিয়াসহ ৫ জনকে প্রাথমিক মনোনয়ন বিএনপির

আজও ক্ষতিপূরণ দেয়নি গ্রিনলাইন, তীব্র ক্ষোভ হাইকোর্টের

শ্রীলঙ্কায় বৌদ্ধ-মুসলিম রক্তাক্ত পরিণতির আশঙ্কা ভারতের