ফেসবুক লাইভে আহ্বান, পৌঁছামাত্রই গুলি

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম থেকে | ২৪ মার্চ ২০১৯, রোববার, ২:৪৩
‘তুই কই, তোর জন্য অপক্ষো করছি, আয় তাড়াতাড়ি আয়’- ফেসবুক লাইভে এমন আহ্বান জানান চট্টগ্রাম মহানগরীর পতেঙ্গা থানা যুবলীগের কর্মী তানভীর চৌধুরী। এই আহ্বানে ক্ষুব্ধ হয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির ধর্ম বিষয়ক সহ-স¤পাদক নুরুল আবছার ঘটনাস্থলে পৌঁছতেই তাকে লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়া শুরু করেন আহ্বানকারী। অগত্যা উপায় না দেখে পাশের এক বাড়িতে আশ্রয় নিয়ে কোনরকমে প্রাণে বেঁচে যান তিনি। তার বাড়িও পতেঙ্গা থানায়। এ ঘটনায় শনিবার রাতে নুরুল আবছারের বড় ভাই মোহাম্মদ নুর প্রতিপক্ষ যুবলীগ কর্মী তানভীর চৌধুরীসহ কয়েকজনের বিরুদ্ধে পতেঙ্গা থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

পতেঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) উৎপল বড়–য়া বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, যুবলীগ কর্মী মো. তানভীর চৌধুরী (৩৫), আহসান হাবীব সেতু (৩০), মো. তুষার ইমরানসহ (২২) আরও অনেককে ওই ঘটনায় জড়িত থাকার কথা অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে। তবে বিষয়টি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান তিনি।  

অভিযোগে মোহাম্মদ নুর বলেন, শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে পতেঙ্গা থানা যুবলীগের কর্মী তানভীর চৌধুরী নিজের ফেসবুক লাইভে গিয়ে ঘোষণা দিয়ে আওয়ামী লীগ নেতা নুরুল আবছারকে মুখোমুখি হওয়ার জন্য ডাকতে থাকেন।
এ লাইভের পর খবর পেয়ে নুরুল আবছার সেখানে পৌঁছতেই একদল অস্ত্রধারী যুবক গুলি চালায়। গুলির শব্দ শুনে তার ভাই নুরুল আবছার পার্শ্ববর্তী এক বাড়িতে আশ্রয় নিয়ে প্রাণে বাঁচেন।

এদিকে যুবলীগ কর্মী তানভীরের ওই ভিডিও এখন ভাইরাল। ৩২ সেকেন্ডের ওই ভিডিওতে নুরুল আবছারকে লক্ষ্য করে তানভীর চৌধুরীকে বলতে শোনা যায়, ‘তুই কই, তোর জন্য অপক্ষো করছি, আয় তাড়াতাড়ি আয়।’ আর যুবলীগ কর্মী তানভীর চৌধুরীর এই উদ্যত আচরণ সহ্য করতে না পেরে রাতেই পতেঙ্গা থানার জয় নগরে যান বলে জানান নুরুল আবছার।

নুরুল আবছার বলেন, দীর্ঘদিন ধরে তানভীর আমার রাজনৈতিক কর্মকান্ড বিভিন্নভাবে বাধাগ্রস্ত করে আসছে। শুক্রবারও কোনো ধরনের কারণ ছাড়া ফেসবুক লাইভে এসে আমাকে প্রথমে ডাকে, পরে জয় নগরে পৌঁছামাত্রই আমাকে লক্ষ্য করে গুলি করতে থাকে। আমি একটি বাড়িতে আশ্রয় নিয়ে কোনোভাবে প্রাণে বাঁচি।

এই ব্যাপারে জানতে একাধিকবার ফোন করা হলেও যুবলীগ কর্মী তানভীর চৌধুরীর মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া যায়।
স্থানীয় লোকজন জানান, যুবলীগ কর্মী তানভীর চৌধুরী ও আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির ধর্ম বিষয়ক সহ-স¤পাদক নুরুল আবছারের মধ্যে দীর্ঘদিনের আধিপত্য বিস্তারের লড়াই চলে আসছে। তার জের ধরে শুক্রবার যুবলীগ কর্মী তানভীর চৌধুরী ফেসবুক লাইভে ডেকে নিয়ে নুরুল আবছারকে গুলি করে প্রাণে মারার চেস্টা করে।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

NISHITA AFRIN

২০১৯-০৩-২৪ ১৭:৪৮:০৩

good

Kazi

২০১৯-০৩-২৪ ০৪:২২:০১

পৃথিবীর কোথাও রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের অংশ হিসাবে অস্ত্রের (দেশী বা বিদেশী) ব্যবহার নাই, বাংলাদেশ ছাড়া । বিরোধী দলের অস্তিত্ব বিলুপ্ত তাই বলে কি অস্ত্র প্রতিযোগিতা বন্ধ হয়ে যাবে ? তা হতে পারে না। গোপনে ও না। ডিজিটাল দেশে ডিজিটাল মিডিয়াতে লাইভ প্রদর্শন করে মহড়া নিজ দলে। সরকার কি বলে ?

আপনার মতামত দিন

‘বাংলাদেশ দৈবক্রমে সৃষ্টি হয়নি’

পবিত্র লাইলাতুল বরাত আজ

দল গোছাতে ব্যস্ত বিএনপি

অন্যদেশ থেকে লোক এনে প্রচার চালাচ্ছে তৃণমূল

ফেরদৌস-নূরের পর...

মোকাব্বির খানকে শোকজ

ভাই নেই, তাই থেমে গেছে নেহার পড়াশোনা

স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তির আগেই সফল হবো

৮ বছরেও বিচার হয়নি

প্রধানমন্ত্রী ব্রুনাই সফরে যাচ্ছেন আজ

অনুমতি পেলেই সিঙ্গাপুরে নেয়া হবে সুবীর নন্দীকে

‘অকুপেন্সি সার্টিফিকেট’ ছাড়া বহুতল ভবন ব্যবহার করা যাবে না

পোশাক শিল্পের অবদান বাড়লেও পরিবেশের জন্য উদ্বেগজনক

‘চীনের বিআরআই উদ্যোগের সম্ভাবনা কাজে লাগাতে চায় ঢাকা’

নুসরাত হত্যা ধামাচাপা দিতে অর্থ লেনদেন হয়েছে: সিআইডি

শতভাগ দুর্নীতিমুক্ত বলতে পারবো না: এমডি