থাইল্যান্ডে ভোট আজ

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ২৪ মার্চ ২০১৯, রোববার | সর্বশেষ আপডেট: ৫:৫০
২০১৪ সালের অভ্যুত্থানের পর প্রথমবারের মতো জাতীয় নির্বাচন হচ্ছে থাইল্যান্ডে। আজকের এ নির্বাচনে ভোটাধিকার প্রয়োগ করছেন প্রায় ৫ কোটি ভোটার। ২০১১ সালে সর্বশেষ সেখানে এমন নির্বাচন হয়েছে। তারপর প্রথম এই নির্বাচনে ভোটার উপস্থিতির হার অনেক বেশি হবে বলে প্রত্যাশা। এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি।

এ নির্বাচনে ১৮ থেকে ২৬ বছর বয়সের মধ্যে ৭০ লাখেরও বেশি ভোটার প্রথমবার ভোট দেবেন। তাই সব দলই তাদের দিকে দৃষ্টি রেখেছে। অর্থাৎ এই ভোটাররাই পাল্টে দিতে পারেন নির্বাচনী হিসাবনিকাশ।
ভোট গ্রহণের আগে শনিবার সন্ধ্যায় সবার প্রতি একটি বিবৃতি দিয়েছেন থাই রাজা মাহা ভাজিরালংকর্ন। এতে ভোট গ্রহণকালে শান্তি ও শৃংখলা বজার রাখার জন্য তিনি সবার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। রাতে জাতীয় টেলিভিশনে এই বিবৃতি প্রচার করা হয়। এতে ভোটারদের প্রতি আহ্বান জানানো হয় ভাল মানুষদের সমর্থন দিতে। উল্লেখ্য, আজকের এই ভোটকে দেখা হচ্ছে সেনাবাহিনীপন্থি দলগুলো ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী থাকসিন সিনাওয়াত্রাপন্থি দলগুলোর মধ্যকার লড়াই হিসেবে।  

খবরে বলা হয়, থাইল্যান্ডের রাজনীতি অনেক দিন ধরেই অস্থিতিশীল। বিশেষ করে এখানে লড়াই চলছে সেনাবাহিনীর সমর্থক ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী থাকসিন সিনাওয়াত্রার সমর্থকদের মধ্যে। ২০১৪ সালে রক্তপাতহীন সামরিক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে সেনাবাহিনী যখন ক্ষমতা দখল করে তখন তারা প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল শৃংখলা ও গণতন্ত্র ফেরানোর। কিন্তু বার বারই তারা ভোটকে স্থগিত করেছে। এরই মধ্যে নতুন সংবিধান প্রণীত হয়েছে। সমালোচকরা বলেন, সেনাবাহিনী যে সংবিধান প্রণয়ন করেছে তাতে নির্বাচনের ফল যা-ই আসুক, তাতে তাদের প্রভাব অব্যাহত থাকবে।

থাকসিন সিনাওয়াত্রাকে ক্ষমতাচ্যুত করা হয়েছে ২০০৬ সালে। তারপর থেকে তিনি স্বল্প সময়ের জন্য দেশে ফিরেছিলেন। কিন্তু ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগে অভিযুক্ত হওয়ার পর তিনি স্বেচ্ছা নির্বাসনে জীবন কাটাচ্ছেন। তা সত্ত্বেও দেশের গ্রামীণ জীবনে ভীষণ জনপ্রিয় তিনি। ব্যাপক সমর্থন আছে তার এখনও। ২০০১ সালের নির্বাচনের পর প্রতিটি নির্বাচনে তার প্রতি অনুগত দলগুলো বিজয়ী হয়েছে।

এবার নির্বাচনে তার প্রতি অনুগত দল পুয়ে থাই। তারা কি জেনারেল প্রায়ুথ চান ওচার বিরুদ্ধে শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বিতা গড়ে তুলতে পারবে কিনা তা সময়ই বলে দেবে। ২০১৪ সালে নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী ও থাকসিন সিনাওয়াত্রার বোন ইংলাক সিনাওয়াত্রাকে ক্ষমতাচ্যুত করেন প্রায়ুত চান ওচা। এই নির্বাচনে নবগঠিত সেনাবাহিনীপন্থি দল পালাং প্রাচা রাথ পার্টি সেই প্রায়ুত চান ওচাকে একমাত্র প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মনোনয়ন দিয়েছে। নির্বাচনে আর যেসব প্রথম সারির দল আছে তার মধ্যে রয়েছে সাবেক প্রধানমন্ত্রী অভিজিত ভেজাজিভার নেতৃত্বাধীন ডেমোক্রেট, তরুণ টেলিকম বিষয়ক বিলিয়নিয়ার থানাটর্ন জুয়াঙরুঙরুয়াংকিট নেতৃত্বাধীন নতুন ফিউচার ফরোয়ার্ড পার্টি।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন