টাইগার শিবিরে বিয়ের ধুম

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার | ২২ মার্চ ২০১৯, শুক্রবার
গেল সপ্তাহে হঠাৎ করেই বিয়ের পিঁড়িতে বসেন জাতীয় দলের ক্রিকেটার সাব্বির রহমান রুম্মান। গোপনেই পারিবারিকভাবে বিয়েটা সেরে ফেলেন তিনি। পাত্রীর নাম অর্পা। সেই রেশ কাটতে না কাটতেই বিয়ের পিঁড়িতে বসেছেন টাইগারদের আরো দুই তরুণ তারকা মোস্তাফিজুর রহমান ও মেহেদী হাসান মিরাজ। আর আগামী মাসেই বিয়ে করবেন মুমিনুল হক সৌরভ। ইংল্যান্ডে ওয়ানডে বিশ্বকাপের আর দুই মাস বাকি। তার আগে  হঠাৎ করেই যেন টাইগার শিবিরে পড়েছে বিয়ের ধুম। ৫ বছর প্রেমের পর গতকালই বিয়ের কাজটা সেরেছেন অফস্পিনার মিরাজ।
শুরু করেছেন জীবনের দ্বিতীয় ইনিংস। অন্যদিকে আজই মায়ের ইচ্ছাতে বিয়ের বন্ধনে আবদ্ধ হচ্ছেন  মোস্তাফিজ। জানা গেছে, এই তারকার বিয়েতে নেই বড় কোনো আয়োজন। একেবারেই ঘরোয়া পরিবেশে বিয়ে করছেন তিনি খুলনায় নিজের গ্রামের বাড়িতেই।  
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, আজ জুমার নামাজের পর স্বল্প পরিসরে পারিবারিক আয়োজনে সম্পন্ন হতে যাচ্ছে মোস্তাফিজুর রহমানের বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা। মায়ের ইচ্ছাতেই মামার মেয়েকে বিয়ে করছেন তিনি। মামাতো বোন হওয়ার সুবাদে তাদের দুজনের জানাশোনা রয়েছে আগে থেকেই। মোস্তাফিজের মামা দেবহাটা উপজেলার হাদিপুর গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য মো. রওনাকুল ইসলাম বাবু। তার সেজ মেয়ে সামিয়া পারভীন শিমুকে বিয়ে করছেন এই তারকা পেসার। পাত্রী বর্তমানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ালেখা করছেন।
মিরাজের পাঁচ বছরের সার্থক প্রেম
অবশেষে বিয়ের মাধ্যমে মেহেদী হাসান মিরাজের প্রেম সার্থক হলো। গতকালই তিনি বিয়ে করেছেন প্রেমিকা রাবেয়া আক্তার প্রীতিকে। ২২ বছর বয়সী এই অফস্পিন অলরাউন্ডার নিউজিল্যান্ড থেকে ফিরে এসেছেন গেল শুক্রবার। ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলা ও  বুলেটের ভয় নিয়েই দেশে ফিরে আসেন এই তরুণ তারকা। হয়তো সেই ভয়াল স্মৃতি ভুলতেই তড়িঘড়ি বিয়ে করছেন তিনি। খুলনার খালিশপুরের কাশিপুর মেঘনা অয়েলের কাছে রাজধানী মোড় এলাকায় কনের বাড়িতে বিবাহের এ আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়। মিরাজের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, খালিশপুরের বাসিন্দা রাবেয়া আক্তার প্রীতির সঙ্গে মিরাজের বিবাহের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়েছে। দীর্ঘ পাঁচ বছর প্রেমের সম্পর্ক শেষ হলো এ বিয়ের মাধ্যমে। কনে খুলনা বিএল কলেজের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী। মিরাজের শ্বশুর বেলাল হোসেন পেশায় একজন ব্যবসায়ী। বিয়ে হলেও এখনই কনেকে তুলে নেয়ার আনুষ্ঠানিকতা হচ্ছে না। মিরাজও বিশ্বকাপের পর আনুষ্ঠানিকতার কথা নিশ্চিত করেছেন সংবাদ মাধ্যমকে।
গতকাল খুলনায় মানবজমিন-এর  রিপোর্টার রাশিদুল ইসলামকে মিরাজের পিতা জালাল হোসেন বলেন, অনেকদিন ধরেই মিরাজের বিয়ের কথা ভাবছিলেন। কিন্তু কবে করবেন, ঠিক সময় হয়ে উঠছিল না। বিশ্বকাপের আগে পাওয়া লম্বা বিরতিটা কাজে লাগাতে চাইছে সবাই। বৃহস্পতিবার কাশিপুর মেঘনা অয়েল ডিপো সড়কের কনের বাড়িতে আক্‌দ সেরে ফেলেছি। বাইরের তেমন কাউকে বলিনি। বিয়ের অনুষ্ঠান করবো বিশ্বকাপের পর। তখন জানানো হবে সবাইকে।
এপ্রিলেই বিয়ে মুমিনুলের
টেস্ট স্পেশালিস্ট ব্যাটসম্যান মুমিনুল হক সৌরভের বিয়ে ঠিক হয়ে আছে অনেক দিন ধরেই। তিনি প্রেমও করেছেন অনেক দিন। বিয়ের মধ্য দিয়েই ঘটতে যাচ্ছে তার প্রেমের সফল পরিণতি।  তার পছন্দকেই পরিবার মেনে নিয়েছে। এবার বিয়ের পালা। কনের নাম ফারিহা বাশার। থাকেন মিরপুর ডিওএইচএসে। তিনি বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের (বিইউপি) ব্যবস্থাপনা বিভাগের শিক্ষার্থী। মুমিনুল বলেন, ‘বিয়ের সব প্রস্ততি সম্পন্ন হয়েছে। ইনশাআল্লাহ আগামী মাসের ১৯ তারিখ সব আনুষ্ঠানিকতা আমরা সেরে ফেলবো।’ তিনিও নিউজিল্যান্ডে ছিলেন টেস্ট সিরিজের জন্য। শেষ টেস্টের আগে সন্ত্রাসী হামলা থেকে বেঁচে ফিরেছেন দেশে। দেশে এসে সেই হামলার কথা ভোলা কঠিন বলেই জানিয়েছেন সংবাদ মাধ্যমকে।
২২শে এপ্রিলের আগেই ঘোষণা হবে ওয়ানডে বিশ্বকাপের চূড়ান্ত দল। মোস্তাফিজুর রহমান ও মেহেদী হাসান মিরাজ ও সাব্বির রহমান রুম্মানের সেই দলে থাকা প্রায় নিশ্চিত। তবে মুমিনুল শেষ পর্যন্ত থাকবেন কিনা সেটাই প্রশ্ন।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন