মৌলভীবাজারে সিইসি

দেশে নির্বাচন এলেই যুদ্ধ অবস্থা আসে

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার, মৌলভীবাজার থেকে | ১৫ মার্চ ২০১৯, শুক্রবার
 প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা বলেছেন  আমাদের দেশে নির্বাচন এলেই যুদ্ধ অবস্থা আসে। সেখানে লোক থাকতে হবে। সেন্টার পাহারা দিতে হবে। নির্বাচন নিয়ে এরকম একটি পরিস্থিতি ও পরিবেশ তৈরি হয়। যেমনটি বিদেশি নির্বাচনে কখন দেখা যায় না। একদিন আমাদের দেশেও এমন পরিবেশ আসবে। অবশ্য এখনো সে সময় আসেনি। জাতীয় নির্বাচনের পর এই স্থানীয় নির্বাচনটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ উল্লেখ করে সিইসি বলেন নির্বাচনে  সংখ্যালঘু ও প্রার্থীর এজেন্টরা যাতে বাধা বিপত্তিতে না পড়ে তাদের নিরাপত্তার বিষয়ে সংশ্লিষ্টরা সে দিকটা গুরুত্ব দিয়ে খেয়াল রাখবেন। নির্বাচন কেন্দ্রেই সাংবাদিক, পর্যবেক্ষক ও প্রার্থীদের প্রতিনিধির সামনেই ভোট গণনা ও ফলাফল ঘোষণা করতে হবে। তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশন শুধু নির্বাচনের আয়োজন ও প্রেক্ষাপট তৈরি করে। কারা নির্বাচন করবেন কারা করবেন না এটা সম্পূর্ণ  তাদের স্বাধীনতা। দেশের একজন নাগরিক হিসেবে সবদলকে নির্বাচনে  আনার ভূমিকা রাখতে পারেন কি না। এমন প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন আমার অবস্থান থেকে সেটা সম্ভব নয়। কারণ আমি প্রধান নির্বাচন কমিশনার।  তিনি বলেন, ১৯৮২ সাল থেকে উপজেলা নির্বাচন হয়ে আসছে। এটি ৫ম উপজেলা পরিষদ নির্বাচন। নির্বাচন কমিশন কিছু বিধি করে থাকে। ভোট কেন্দ্রে প্রিজাইডিং অফিসার ভোট গ্রহণ করে থাকেন। কোনো কারণে ভোট গ্রহণ করা সম্ভব না হলে প্রিজাইডিং অফিসার রিটার্নিং অফিসারকে জানাবেন। নুরুল হুদা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উদ্দেশ্যে বলেন, নির্বাচন নিয়ে পক্ষপাতিত্বমূলক আচরণ করা যাবে না। সকল বাহিনী আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। ভোটার ও প্রার্থীর নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। কোনো প্রার্থী ও তার এজেন্টকে যেন কেন্দ্র থেকে বাহির করার চেষ্টা না করা হয়। নির্বাচনে ভোটার উপস্থিতি কম নিয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে নূরুল হুদা বলেন, ১০ তারিখের নির্বাচনে ভোটার উপস্থিতি কম ছিল। কারণ প্রধান বিরোধী দল নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেনি। গতকাল (বৃহস্পতিবার) বিকালে জেলা প্রশাসকের সভাকক্ষে মৌলভীবাজারে পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক রোকন উদ্দিনের সভাপতিত্বে নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মকর্তাদের সঙ্গে আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্ত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শাহজালাল, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আশরাফুর রহমান, জেলা প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা, গোয়েন্দা সংস্থার কর্মকর্তা, বিজিবি, আনসার কর্মকর্তাসহ জেলার সবক’টি উপজেলার নির্বাহী অফিসার ও থানার অফিসার ইনচার্জবৃন্দসহ প্রশাসনের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির উত্থানের নেপথ্যে বামভোট নাকি মেরুকরণের রাজনীতি

মোদিকে থামাও

হিমালয়ান ভায়াগ্রা নিয়ে দুই গ্রামের সংঘর্ষ

ঋণখেলাপিদের বিশেষ সুবিধা আটকে গেলো হাইকোর্টে

কেরানীগঞ্জে আদালত স্থাপন সম্পূর্ণ অসাংবিধানিক : মওদুদ

ভোট গণনায় কারচুপি ঠেকাতে ইসি’র দ্বারস্থ মোদি বিরোধী জোট

প্রেমিকার বাসা থেকে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের লাশ উদ্ধার

ভারতে বিরোধীদের মধ্যে অস্থিরতা!

কুষ্টিয়ায় ধর্ষণ মামলায় প্রধান শিক্ষকের যাবজ্জীবন

সরাসরি কৃষকদের কাছ থেকে ধান কেনার দাবিতে নাটোরে বিএনপির স্মারকলিপি

সারাদেশের পাস্তুরিত দুধ পরীক্ষার নির্দেশ হাইকোর্টের

গাজীপুর সিটির ১৪ জনকে কারণ দর্শানোর নোটিশ

রুমিন ফারহানার মনোনয়নপত্র বৈধ

হুয়াওয়ের ওপরকার বিধিনিষেধ শিথিল করছে যুক্তরাষ্ট্র

১০ গ্রামের মানুষের ভরসা একটি বাঁশের সাঁকো

দেশে ফিরেছেন ভূমধ্যসাগরে প্রাণে বেঁচে যাওয়া ১৫ বাংলাদেশি