আইএসের শামিমার ছেলেকে লন্ডনে নিতে চান পরিবারের সদস্যরা

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, শনিবার | সর্বশেষ আপডেট: ৪:০১
‘আইএসের বধু’ শামিমা বেগমের পুত্র জেরাহ’কে লন্ডনে নিয়ে যেতে চান তার আত্মীয়-স্বজনরা। এ জন্য লন্ডনে অবস্থানরত তার পরিবারের সদস্যরা সব রকম আইনি পদক্ষেপ নেবেন। ওদিকে পরিবারটির আইনজীবী তাসনিম আকুঞ্জের সিরিয়া সফরে যাওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে। সিরিয়ায় যে শরণার্থী শিবিরে পুত্র জেরাহ’কে নিয়ে শামিমা অবস্থান করছেন তিনি সেখানে যাবেন। এ খবর দিয়েছে লন্ডনের অনলাইন ডেইলি মেইল।  

আইএসে যোগ দেয়া শামিমা বেগমের নাগরিকত্ব গত সোমবার বাতিল করে বৃটিশ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এতে তিনি বৃটেন প্রবেশে নিষিদ্ধ হন। তবে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওই নির্দেশের বিরুদ্ধে তার আপিল করার সুযোগ আছে।
এ বিষয়টির সুরাহা হতে যে সময় লাগে ততক্ষণ তার নবজাতক সন্তানটিকে লন্ডনে এনে বড় করতে চান শামিমার পরিবারের লন্ডনে অবস্থানরত সদস্যরা । রিপোর্টে বলা হয়, বৃটিশ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাজিদ জাভিদ এর আগে বলেছেন এবং আইন বিশেষজ্ঞরাও নিশ্চিত করেছেন যে, শামিমা নাগরিকত্ব হারালেও জেরাহ বৃটিশ নাগরিক। কারণ, তার মা শামিমার বৃটিশ নাগরিকত্ব বাতিল হওয়ার আগে সে জন্মগ্রহণ করেছে। জেরাহ’র নাগরিকত্ব সরকার তখনই বাতিল করতে পারবে যখন তাকে একটি হুমকি হিসেবে দেখানো যাবে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাজিদ জাভিদের সিদ্ধান্তের পর শামিমা বেগম বলেছেন, তার ডাচ জিহাদি স্বামীর সঙ্গে আরো দুটি সন্তান জন্ম নিয়েছিল। কিন্তু অজ্ঞাত রোগে তারা মারা গেছে। এখন ১৯ বছর বয়সে তিনি আবার মা হয়েছেন। সন্তানের নাম রেখেছেন জেরাহ। বৃটিশ সরকার শামিমার বিরুদ্ধে সিদ্ধান্ত নেয়ায় তিনি রাজনীতিকদের কাছে করুণার দৃষ্টিতে বিষয়টি বিবেচনার অনুরোধ করেছেন। বলেছেন, তিনি পরিবর্তন হতে চান। ছেলে জেরাহকে নিয়ে বৃটেনে ফিরতে চান।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

ইসরাফিল

২০১৯-০২-২৪ ০০:০২:৪৯

মানুষ ভূল করে তাই তাকে সুঝোগ দেওয়া উচিত।

Nixon pandit

২০১৯-০২-২২ ২৩:৫১:৩২

কোথাও কোনও কাজে মায়ের নাম জিজ্ঞাসা করা হয় না । জিজ্ঞাসা করা হয় বাপের নাম । তার অর্থ বোঝায় সন্তান বাপের পরিচয়ে বেচে থাকে এবং বড় হয় । সুতরাং বাপ যখন নেদারল্যান্ডসের সন্তানের নাগরিকত্ব সেই দেশেরই হওয়া উচিত । বৃটিশ কেন সন্তানের নাগরিকত্ব ছাঁপতে যাবে ?

sdd

২০১৯-০২-২৩ ১১:৩৭:৫৮

শামীমার সন্তান জন্মসূত্রে আইএসের নাগরিক। তার বাবা একজন আইএস জঙ্গি। যদিও দেশটির অস্তিত্ব নাই, তবু শামিমার সন্তানের বাবা মা সেদেশেরই নাগরিক, সে দেশের জন্য লড়াই করেছে । এই সন্তানটি সে লড়াইয়ের ফসল। এই ভবিষ্যৎ জঙ্গিকেও তার মায়ের সঙ্গে কুর্দিদের হাতেই ছেড়ে দেয়া উত্তম। করবিন ব্রিটিশ জনগণের প্রতি দায়িত্ববোধের পরিচয় দিচ্ছেন না। বাংলাদেশের কাছে তার অনেক শেখার আছে। জঙ্গিদের নির্মূল করতে হয়, তবেই সমাজ সুস্থ থাকে।

আপনার মতামত দিন

নাটোরে আইবিএস মার্কেটে অগ্নিকান্ড

আরও দুঃসংবাদ ট্রুডোর জন্য

লক্ষ্মীপুরে ১৮ জেলের জেল-জরিমানা

কাল কাদেরের বাইপাস সার্জারি

হামলার আগে হ্যামিলটনে মসজিদের সামনে দেখা গিয়েছিল ব্রেনটনকে

রোহিঙ্গা নির্যাতন তদন্তে সেনা আদালত মিয়ানমারে

যুক্তরাষ্ট্রে ভয়াবহ বন্যা, মারা গেছেন ৩ জন

সহপাঠিদের তোপের মুখে চলে গেলেন মেয়র আতিকুল

হামলার ৩ বছর আগে নুর মসজিদে পাঠানো হয়েছিল শূকরের মাথাভর্তি বাক্স

রায়পুরায় আওয়ামী লীগের দু’পক্ষের গোলাগুলি, নিহত ২

নাটোরে ট্রাকের চাপায় নিহত ১

সুনামগঞ্জে আওয়ামী লীগ নেতা খুন

‘আমাদের দুজনের রসায়নটা উপভোগ্য হবে’

নর্দ্দায় বাসচাপায় বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী নিহত, প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ (ভিডিও)

বিলাইছড়ি আওয়ামী লীগের সভাপতিকে গুলি করে হত্যা

মুসলিম বিরোধিতায় তুরস্কে গেলে কফিনে ফিরতে হবে