ভারত ও পাকিস্তান দুই দেশই সুর চড়াচ্ছে

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, শুক্রবার
ভারত ও পাকিস্তান একে অন্যের বিরুদ্ধে সুর ক্রমশ চড়াচ্ছে। জম্মু ও কাশ্মীরের পুলওমায় সিআরপিএফের কনভয়ে জইশ জঙ্গী হানায় ৪৯ জন জওয়ানের মৃত্যুর পর ভারত এর সমুচিত জবাব দেবে বলে জানিয়েছে। তবে গত এক সপ্তাহে পরিস্থিতির কোনও অবনতি না হলেও গত বুধবার থেকে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হওয়ার পথে। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান সেনাবাহিনীকে যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত থাকার নির্দেশ দিয়েছেন। জম্মু ও  কাশ্মীরে সন্ত্রাসী হামলার পর পাকিস্তানকে দায়ী করে ভারতের হুশিয়ারির পর এ নির্দেশ দেয়া হয়েছে পাক সেনাদের। তবে শুক্রবারই এর পাল্টা হিসেবে সুর চড়িয়ে ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী রাজনাথ সিং বলেছেন, পাকিস্তান যদি যুদ্ধের জন্য তৈরি থাকে, তাহলে ভারতও পিছিয়ে নেই।  

টিভি চ্যানেল ‘আজ তক’-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে রাজনাথ সিং বলেছেন,  পুলওয়ামা হামলার বদলা নেওয়া হবে, একথা তিনি বলছেন না। তবে তিনি মনে করিয়ে দেন যে নরেন্দ্র মোদী সেনাবাহিনীকে পূর্ণ স্বাধীনতা দিয়েছেন। তিনি আরও জানিয়েছেন, এই হামলার ইস্যুতে পাকিস্তান একেবারে একঘরে হয়ে পড়েছে। এমনকি চীনও ভারতকেই সমর্থন করেছে। জাতী সংঘের নিরাপত্তা পরিষদও পুলওয়ামায় জঙ্গী হামলার নিন্দা করে বিবৃতি দিয়েছে। এই প্রসঙ্গে জইশ-ই-মহম্মদের নামও বলা হয়েছে।

এদিকে, নিয়ন্ত্রণ রেখার কাছে পাক অধিকৃত কাশ্মীরে সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের ভয় তাড়া করছে পাকিস্তানকে। এর আগে সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের মাধ্যমেই প্রতিবেশী এই রাষ্ট্রকে উরি হামলার প্রত্যুত্তর দিয়েছিল ভারত। আর এবার পুলওয়ামাকান্ডে ফের এমন স্ট্রাইকের আশঙ্কায় পাকিস্তান তড়িঘড়ি নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীর  সীমান্তে  সতর্কতা জারি করেছে বলে সংবাদ মাধ্যম সুত্রে জানা গেছে। পুলওয়ামার হামলার পর ভারত জুড়ে বদলার দাবি উঠেছে। ভারতের গোয়েন্দাদের মতে,আইএসআই-এর পরিলল্পনামাফিকই এই হামলা চালিয়েছে জইশ-ই-মহম্মদ।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন