সন্ত্রাসবাদে মদদের অভিযোগ অস্বীকার ইমরানের

বাড়াবাড়ি করলে ভারতের বিরুদ্ধে যুদ্ধের নির্দেশ

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, শুক্রবার
যুদ্ধ যুদ্ধ রব এখন পাকিস্তান শিবিরেও। দেশটির সরকার সেনাবাহিনীকে যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত হওয়ার নির্দেশ দিয়েছে। পার্শ্ববর্তী রাষ্ট্র ভারত থেকে কোনো ধরণের আগ্রাসন বা ভুল আচরনের কঠিন ও সর্বাত্মক জবাব দেয়ার নির্দেশ রয়েছে সেনাবাহিনীর কাছে। কাশ্মীরে সন্ত্রাসী হামলার পর পাকিস্তানকে দায়ী করে ভারতের হুশিয়ারির পর এ নির্দেশ দেয়া হল পাক সেনাদের। এ খবর দিয়েছে আল-জাজিরা।
গত সপ্তাহে কাশ্মীরে ভারতীয় আধাসামরিক বাহিনীর ওপর আত্মঘাতি জঙ্গি হামলা হলে নিহত হন কমপক্ষে ৪৪ সেনা। ইতিহাসের অন্যতম ভয়াবহ এ হামলার পর তলানিতে অবস্থান করছে ভারত-পাকিস্তান সম্পর্ক। ভারত দাবি করেছে, এ হামলার মদদদাতা রাষ্ট্র পাকিস্তান। দেশটি পাকিস্তানকে নিয়মিত জঙ্গি অর্থায়ন ও আশ্রয়ের অভিযোগে অভিযুক্ত করেছে। কিন্তু কাশ্মীরে ভয়াবহ ওই হামলার পর পাকিস্তানকে ‘দাঁতভাঙ্গা জবাব’ দেয়ার দাবি উঠেছে ভারতীয়দের মাঝে।

বৃহস্পতিবার পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান জাতীয় নিরাপত্তা কমিটির সঙ্গে বৈঠক শেষে একটি বিবৃতি প্রদান করেন। এতে তিনি সেনাবাহিনীকে প্রস্তুত থাকার ওই নির্দেশ দেন। তিনি ভারতের অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, পাকিস্তান কোনোভাবেই এ ধরণের হামলার সমর্থন দেয়নি। ভারতের মধ্যেই এ হামলা পরিকল্পিতভাবে সংগঠিত করা হয়েছে। ভারত সরকার চাইলে এর তদন্তে পাকিস্তান সাহায্য করবে। একজনও যদি পাওয়া যায় যে পাকিস্তানের মাটি ব্যবহার করে ভারতের বিরুদ্ধে হামলা করেছে তাহলে তাকে শাস্তির মুখোমুখি করা হবে বলেও প্রতিশ্রুতি দেন ইমরান খান। বিবৃতিতে এ অঞ্চলে সন্ত্রাসবাদ দমনে ভারতের সঙ্গে আলোচনার প্রস্তাবও দিয়েছেন ইমরান।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

MD. Waliullah.Liton

২০১৯-০২-২২ ০৭:০৬:৫৮

একজন সঠিক নেতৃত্বের অধিকারী তিনি যা বলেছেন একজন দেশ প্রেমিক হিসেবে যথার্থই বলেছেন। আমি তাকে সাপোর্ট করি। কোন ভয়ভীতি নয়,কোন ছাড় নয়, আঘাত আসলে সর্বশক্তি প্রয়োগ করা উচিৎ।

Mohammed Ali

২০১৯-০২-২২ ০৩:৪৩:৩৮

Thanks Mr. Imran khan. পাকিস্তানের বাপকা বেটা

আপনার মতামত দিন