ভারতে ৭৯৩টি চলচ্চিত্রকে ছাড়পত্র দেয়নি সেন্সর বোর্ড

বিনোদন

কলকাতা প্রতিনিধি | ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, শুক্রবার | সর্বশেষ আপডেট: ৫:৩০
ভারতে গত ১৬ বছরে ৭৯৩টি চলচ্চিত্রকে ছাড়পত্র দেয়নি সেন্সর বোর্ড। এমনই তথ্য উঠে এসেছে মুম্বইয়ের এক সমাজকর্মীর তথ্য জানার অধিকার আইনে করা এক আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে। সমাজকর্মী নূতন ঠাকুর জানিয়েছেন, ২০০০ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ২০১৬ সালের ৩১ মার্চের মধ্যে সেন্সর  বোর্ড মোট ৭৯৩টি ছবিকে ছাড়পত্র দেয়নি। এই ছবিগুলির মধ্যে ৫৮৭টি ভারতীয় এবং ২০৭টি বিদেশি ছবি রয়েছে। সরকারের দেওয়া তথ্যে বলা হয়েছে,  ২৩১টি হিন্দি ছবির পাশাপাশি ৯৬টি তামিল, ৫৩টি তেলুগু, ৩৯টি কন্নড়, ২৩টি মালায়ালাম এবং ১৭টি পাঞ্জাবি ছবিকে সেন্সর বোর্ড প্রশংসাপত্র দিতে অস্বীকার করেছে। এই সময়ের মধ্যে বাংলা ও মারাঠি ছবি মিলিয়ে ১২টি ছবিকেও নিষিদ্ধ ঘোষণা করে সেন্সর বোর্ড। 

জানা গিয়েছে, ২০১৫ থেকে ২০১৬ সালের মধ্যে ১৫৩টি ছবিকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়। অন্যদিকে ২০১৪ থেকে ২০১৫ সাল পর্যস্ত ১৫২টি, ২০১৩ থেকে ২০১৪ সালে ১১৯টি এবং ২০১২ থেকে ২০১৩ সাল পর্যস্ত ৮২টি ছবিকে নিষিদ্ধ করেছে সেন্সর বোর্ড। নূতন ঠাকুরের মতে, এত সংখ্যক ছবি নিষিদ্ধ হওয়ার ফলে লক্ষ লক্ষ রুপি ক্ষতির মুখে পড়েছে বিভিন্ন প্রযোজনা সংস্থা। জানা গিয়েছে, ২০০৫ সালে পরজানিয়া, ২০১২ সালে আসাতোমা সদগাম্য এবং ২০১৫ সালে মহল্লা আশির মতো জনপ্রিয় ছবিকেও প্রশংসাপত্র দিতে চায়নি সেন্সর বোর্ড। ২০১৫ সালের ৩০ জুন মুক্তি হওয়ার কথা ছিল বলিউডের মহল্লা আশির। কিন্তু সেন্সর বোর্ড স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছিল যে, এই ছবিতে ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত হানা হয়েছে। তাই এই ছবিকে প্রশংসাপত্র দেওয়া যাবে না। যদিও পরে ২০১৮ সালের ১৬ নভেম্বর এই ছবিটি মুক্তি পেয়েছিল। সেন্সর বোর্ড জানিয়েছে, কিছু ছবিতে অতিরিক্ত মাত্রায়  যৌনতা এবং অপরাধ দেখানো হয়েছিল, তাই সেই ছবিগুলিকে প্রশংসাপত্র দেওয়া হয়নি।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন