‘বিশ্বকাপের আগে চিন্তা থেকেই যাচ্ছে, তবে...’

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার | ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, শুক্রবার
নিউজিল্যান্ডে ওয়ানডে সিরিজটি ছিল বাংলাদেশের বিশ্বকাপ প্রস্তুতির মহড়া। ভাবা হচ্ছিল বিশ্বকাপ দলের সেরা পারফরম্যান্সের একটি প্রতিচ্ছবির এখানেই দেখা মিলবে। উল্টো ৩-০তে হোয়াইটওয়াশ হয়েই দেশে ফিরেছে মাশরাফি বিন মুর্তজার দল। ব্যাটিং-বোলিং ও ফিল্ডিং তিন বিভাগেই দারুণভাবে হতাশ করেছে দল। বিশেষ করে সিনিয়র ক্রিকেটাররা যেমন নিজেদের সেরাটা দিতে ব্যর্থ। তেমনি যে তরুণদের উপরও বিশ্বকাপের স্বপ্ন তারাও করেছেন চরম হতাশ। শুধুমাত্র সাব্বির রহমানের একটি সেঞ্চুরি শেষ পর্যন্ত দলের মুখরক্ষা করেছে। বিশ্বকাপের ১০০ দিনও বাকি নেই। তার আগে আয়ারল্যান্ড সফরে ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজ খেলবে টাইগাররা। তবে এর আগেই ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের দল ঘোষণা করতে হবে। এমন পারফরম্যান্সে চিন্তা থেকেই যাচ্ছে বলে মনে করেন দেশের দুই শীর্ষ কোচ নাজমুল আবেদিন ফাহিম ও মিজানুর রহমান বাবুল। ব্যাটিং ও বোলিং দুই বিভাগেই হতাশ করেছে দল। এ নিয়ে নাজমুল আবেদিন বলেন, ‘হ্যাঁ, বিশ্বকাপের আগে এমন পারফরম্যান্সের পর চিন্তাতো থাকেই। কিছুটা প্রভাবও পড়ে। তবে আমরা এখানে যতটা খারাপ করেছি আসলে ততোটা খারাপ দল কিন্তু বাংলাদশ নয়। নিউজিল্যান্ডে কঠিন কন্ডিশন ছিল। আবার দেশে লম্বা সময় ধরে খেলেও গেছে দলের অনেক ক্রিকেটার। যতটা বিশ্রাম পাওয়া দরকার ছিল ততোটা পাওয়া যায়নি। সব মিলিয়ে একটা কলাপ্স হয়েছে। তবে শেষ ম্যাচে অনেকটাই ঘুরে দাঁড়িয়েছে দল। আর ইংল্যান্ডে আশা করি উইকেটও অন্য রকম থাকবে। আশা করি সেখানে ঘুরে দাঁড়াবে দল। আমরা ওয়ানডেতে যে বাংলাদেশ দেখতে চাই সেটির আশা করি দেখা পাব।’
বিশ্বকাপে যে দল ঘোষণা হবে সেখানে ব্যাটিং ভরসা হিসেবে থাকবেন তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহীম, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। এই সিনিয়র ক্রিকেটাররা ছাড়াও যাদের উপর ভরসা করা হবে তারা হলেন- লিটন দাস, সৌম্য সরকার, মেহেদী হাসান মিরাজ, মোহাম্মদ মিঠুন ও সাব্বির রহমান। কিন্তু মিঠুন ও সাব্বির ছাড়া বাকি সবাই নিউজিল্যান্ডে পরীক্ষায় ফেল। বিশেষ করে সৌম্য ও লিটন তো নিজেদের হারিয়ে খুঁজছেন। দলের ব্যাটিংয়ের এমন দশা নিয়ে নাজমুল আবেদিন বলেন, ‘তামিম, মুশফিক, মাহমুদুল্লাহ এই তিন সিনিয়র ক্রিকেটার অনেক দিন ধরেই খেলছেন। কখনো খারাপ গেছে আবার তারা সেখান থেকে নিজেদের বেরও করে নিয়ে এসেছেন। আমি বিশ্বাস করি তারা নিজেদের ফিরে পাবেন। তামিম, মুশফিক জানে কীভাবে খারাপ সময় থেকে ঘুরে দাঁড়াতে হয়। তবে লিটন ও সৌম্য যেভাবে খেলছে তাদের নিয়ে দারুণ ভয়ের বিষয়। সৌম্যকে দেখে মনে হয় ওর কোনো আত্মবিশ্বাসই নেই। আর লিটনের যেমন আত্মবিশ্বাসের অভাব তেমনি টেকনিকেরও। আশা করি ওদের নিয়ে টিম ম্যানেজম্যান্ট আলাদাভাবে কাজ করবে। বিশেষ করে সৌম্যের আত্মবিশ্বাস ফেরানো জরুরি।’
লিটনকে নিয়ে চিন্তা অনেক বেশি। এশিয়া কাপে ভারতের বিপক্ষে প্রথম সেঞ্চুরি পেয়েছেন এই তরুণ ওপেনার। কিন্তু এরপর যেন ফের নিজেকে হারিয়ে ফেলেছেন। তাহলে তার সমস্যা কোথায়? ফাহিম বলেন, ‘সৌম্য যেমন ভালো শুরু করছে কিন্তু ইনিংস বড় করতে পারছে না। সেখানে একটু কাজ করতে হবে। আর আমার কাছে লিটনের বিষয়টা মনে হয়েছে ও শুরুটাই ভালো করতে পারছে না। এখানে শুধু আত্মবিশ্বাসই নয় কৌশলগত দিকেও সমস্যা আছে। তাই টিমম্যানেজম্যান্টের ওকে নিয়ে আলাদা ভাবে কাজ করা উচিত। ভুলগুলো কি ওর সঙ্গে আলাপ করা উচিত। সবচেয়ে বড় কথা হলো ও ভারতের বিপক্ষে যে সেঞ্চুরি করেছে তা অনেক দিন পর। যেমন সাব্বিরও ৫৭ ম্যাচ খেলে সেঞ্চুরি করেছে। তবে আমার কাছে মনে হয় অনেক দিন পরপর সেঞ্চুরির চেয়ে ধারাবাহিকভাবে রান করাই বড় ব্যাটসম্যানের কাজ।’
ওয়ানডেতে হোয়াইটওয়াশ শেষে এখন শুরু হবে টেস্ট সিরিজ। তাই দলের করণীয় নিয়ে নাজমুল আবেদিন বলেন, ‘শেষ ওয়ানডেতে সাব্বির ও সাইফউদ্দিন প্রমাণ করেছে আমরা পারি। নিউজিল্যান্ডে যে উইকেট সেখানে একটু সময় নিয়ে দেখে-শুনে না খেললে রান করা যাবে না। ওরা টেস্টে থাকবে না তবে ওদের এই পারফরম্যান্স বাকিদের ধারণ করতে হবে। এই আত্মবিশ্বাসকে কাজে লাগিয়ে প্রমাণ করতে হবে যে আমরাও পারি।’
‘পেসারদের গতির সঙ্গে কৌশলও থাকতে হবে’- -মিজানুর রহমান বাবুল
নিউজিল্যান্ডে ব্যাটিংয়ের সঙ্গে বোলিংও ছিল হতাশ করার মতো। বিশেষ করে পেসবান্ধব কন্ডিশনে তাদের কাছে যে প্রত্যাশা ছিল তার ধারে কাছেও যেতে পারেনি মোস্তাফিজুর রহমান, সাইফউদ্দিনরা। কেন এমন হলো! এ বিষয়ে ঘয়োয়া ক্রিকেটে পরীক্ষিত কোচ মিজানুর রহমান বাবুল বলেন, ‘দেখেন পেস বোলারদের গতির সঙ্গে বল মুভমেন্ট করানোরও ক্ষমতা থাকতে হবে। সুইং করানো, ভালো জায়গাতে বল করা এই সব নাহলে প্রতিপক্ষের ব্যাটসম্যানদের ঘায়েল করা খুবই কঠিন। নিউজিল্যান্ডের পেসারদের দেখেন সেটি করতে পারছে। কিন্তু আমাদের পেসাররা সেটি পারছে না। এমনিতেই গতি কম তার ওপর মুভমেন্টও নেই। যে কারণে হচ্ছে না। সুইং বোলারই নেই। যে কারণে ব্যাটসম্যানরা ভালো করেই খেলছে।’ এছাড়াও নিউজিল্যান্ড সফরে যাওয়ার আগে তেমন কোনো বিশ্রাম না পাওয়া পেসারদের খারাপ করার কারণ বলে মনে করেন এই কোচ। তিনি বলেন, ‘আসলে অনেক বোলারই খেলছে সেই অক্টোবর থেকে। জিম্বাবুয়ে, ওয়েস্ট ইন্ডিজ এরপর বিপিএল খেলেছে। ওদের আসলে এই সফরে যাওয়ার আগে যতটা বিশ্রাম দরকার ছিল বা প্রস্তুতির জন্য যতটা সুযোগ দরকার ছিল সেটি হয়নি। আমার মনে হয় এটাও একটা কারণ পেসারদের রিদমে না থাকার।’



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

এবার মালিবাগে পুলিশকে লক্ষ্য করে হামলা

বগুড়ায় নুরের ওপর হামলা

ধানের দাম নেই, চালে ছাড় নেই

বৃষ্টিতেও দৃঢ় মনোবল টাইগারদের

খালেদার মামলায় আদালত স্থানান্তরের বৈধতা নিয়ে রিট

তরুণ সাংবাদিক ফাগুনের লাশ উদ্ধারের ঘটনায় হত্যা মামলা

ট্রাভেল পারমিটে কড়াকড়ি জটিলতার আশঙ্কা

গতবছর ফেসবুকের কাছে ১৯৫ ব্যবহারকারীর তথ্য চেয়েছিল বাংলাদেশ

রঙ লাগিয়ে ঈদে সড়কে নামছে লক্করঝক্কড় বাস

তারেকের স্মৃতি হাতড়ে ফেরেন নুরুন নাহার

রাজাকারদের তালিকা সংরক্ষণের সুপারিশ

মামলার আগেই গ্রেপ্তার, শাহপরাণে তোলপাড়

ইতালিতে প্রদর্শিত হলো ড. ইউনূসের জীবনীভিত্তিক অপেরা

৩০শে মে সন্ধ্যায় শপথ নেবেন মোদি

পদত্যাগ করলেন মহারাষ্ট্র কংগ্রেস প্রধান

চিকিৎসকদের আরো দায়িত্বশীল হওয়ার আহ্বান ডা. এ আর খানের