সাভারে পোশাক শ্রমিককে গণধর্ষণ, থানায় মামলা

অনলাইন

স্টাফ রিপোটার, সাভার থেকে | ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, রোববার, ১:৪৪ | সর্বশেষ আপডেট: ৯:২০
সাভারের হেমায়েতপুরে এক পোশাক শ্রমিক (২০) গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন। এ ঘটনায় আজ ভুক্তভোগী ওই নারীর ভাই বাদী হয়ে দু’জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরও দু’তিনজনের বিরুদ্ধে সাভার মডেল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেছেন।

এর আগে ১৪ই ফেব্রুয়ারী বিশ্ব ভালবাসা দিবসের রাতে সাভারের হেমায়েতপুরের নতুনপাড়া এলাকার একটি ফাঁকা মাঠে গণধর্ষণের শিকার হন ওই নারী শ্রমিক। ধর্ষণের শিকার ওই পোশাক শ্রমিক বরিশাল জেলার ইয়ারপুর থানার রবিন্দনগর গ্রামের মেয়ে। তিনি ভাইয়ের সঙ্গে সাভার পৌর এলাকায় ভাড়া থেকে হেমায়েতপুর আমান নিটিং কারখানায় চাকুরি করতেন। মামলা দায়েরের পর পুলিশ ভুক্তভোগী নারীকে উদ্ধার করে স্বাস্থ্য পরিক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছে।

ধর্ষিতার ভাই জানান, তার ছোট বোন চার মাস ধরে হেমায়েতপুর এলাকায় আমান গার্মেন্টসে নিটিং হেলপার পদে চাকুরি করছে। এ সময় ওই পোশাক কারখানার রাকিব নামের এক অপারেটরের সঙ্গে তার বন্ধুত্ব হয়। গত ১৪ই ফেব্রুয়ারি বিশ^ ভালোবাসা দিবসে আমার বোনকে গার্মেন্টসের পাশে একটি নির্জন স্থানে ডেকে নিয়ে যায় রাকিব। সেখানে আগে থেকে অবস্থানকারী সুলতান, রাকিব ও তাদের কয়েকজন বন্ধু মিলে আমার বোনকে ভয়ভীতি দেখিয়ে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোরপূর্বক গণধর্ষণ করে। একপর্যায়ে আমার বোনের চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে ধর্ষণকারীরা বিষয়টি কাউকে না জানানোর হুমকি দিয়ে পালিয়ে যায়।
এদিকে ঘটনাটি জানার পর আমি বোনকে নিয়ে আজ সাভার মডেল থানায় গিয়ে রাকিব ও সুলতানের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামাদের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করি।
সাভার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এএফএম সায়েদ মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, গণধর্ষণের শিকার নারী পোশাক শ্রমিককে উদ্ধার করে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলায় উল্লেখিত আসামীসহ অজ্ঞাতনামাদের দ্রুত গ্রেপ্তারে পুলিশী অভিযান চালানো হবে বলেও জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন