যুদ্ধাপরাধ মামলা

নাম বাদ দেয়ার আশ্বাসে ৪৬ লাখ টাকা আত্মসাৎ

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, সোমবার
হবিগঞ্জে যুদ্ধাপরাধ মামলা থেকে নাম বাদ দেয়ার কথা বলে আওয়ামী লীগ নেতার বিরুদ্ধে বিপুল পরিমাণ অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে। গতকাল বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ করা হয়। হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার মামদপুর গ্রামের বাসিন্দা আবুল খায়ের গোলাপের স্ত্রী মিনারা বেগম এ অভিযোগ করে বলেন, তার স্বামী আবুল খায়ের গোলাপ দীর্ঘ ২৫ বছর নবীগঞ্জের ১১নং গজনাইপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। ওই ইউনিয়নের তিনবারের চেয়ারম্যান তিনি। তারই চাচাতো ভাই শাহনেওয়াজ এক সময় ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ছিলেন। পরবর্তীতে তার স্বামী আবুল খায়ের গোলাপ চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। সে থেকে শাহনেওয়াজ গোলাপের সঙ্গে দ্বন্দ্বে জড়ান। শেষ পর্যন্ত শাহনেওয়াজ তার স্বামীর বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধ মামলা সাজান।
ওই মামলায় তার স্বামী বর্তমানে জেলে রয়েছেন। মিনারা বলেন, আমার স্বামীর নাম ওই মামলা থেকে বাদ দেয়ার আশ্বাস দিয়ে শাহনেওয়াজের ছেলে আওয়ামী লীগ নেতা ফয়েজ আমিন রাসেল ৪৬ লাখ ৪০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়। এই মামলাটি দিয়ে শাহনেওয়াজের পরিবার এবং মামলার বাদী ও সাক্ষীরা স্থানীয় মানুষদের নানাভাবে হয়রানি করছে। মিনারা বলেন, ১৯৭১ সালে দিনারপুর হাইস্কুল শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন গোলাপ। তিনি এখনো ওই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি। তিনি নবীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের নির্বাচিত যুগ্ম সম্পাদক ছিলেন। এ ছাড়া তিনি জেলা যুবলীগেরও সদস্য ছিলেন। গোলাপকে গ্রেপ্তারের পর শাহনেওয়াজ ও তার ছেলে রাসেল নানাভাবে ভয়ভীতি দেখিয়ে আসছিলেন। এর মূল কারণ ছিল আমাদের পরিবার থেকে অর্থ আত্মসাৎ করা। বছর খানেক আগে সে জানায়, টাকা দিলে এই মামলা থেকে অব্যাহতি পাবেন আমার স্বামী। যে কারণে আমি আমার সারা জীবনের সঞ্চিত সম্পদ স্বর্ণালংকার বিক্রি করে এবং আত্মীয়স্বজনের কাছ থেকে অর্থ সংগ্রহ করে মোট ৪৬ লাখ ৪০ হাজার টাকা রাসেলকে দিই। ওই টাকা নিয়ে এখন নানা তালবাহানা করছেন। টাকা ফেরত চাইলে বলে ওই মামলা সাজাতে আমার অনেক টাকা খরচ হয়েছে। সে বাবদ টাকা নিয়েছি। আর এ নিয়ে তাদের বিরুদ্ধে যে-ই কথা বলছেন তাদেরকেই নানাভাবে হয়রানি করছে।
মিনারা বলেন, শাহনেওয়াজ এর আগেও তার স্বামীর বিরুদ্ধে মিথ্যা, গুম ও অস্ত্রের মামলা  করেন। কিন্তু ওই মামলা থেকে তার স্বামী অব্যাহতি পেয়েছেন।  সম্প্রতি শাহনেওয়াজ ও তার ছেলের এই কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে স্থানীয় ৬ গ্রামের বাসিন্দারা এলাকায় একটি সমাবেশ করেন। তারা আত্মসাৎকৃত টাকা ফেরত চেয়েছেন।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

চিত্রপরিচালক হাসিবুল ইসলাম মিজান আর নেই

পুঁজিতে টান

লিবিয়ায় সরিয়ে নেয়া হলো ২৫০ বাংলাদেশিকে

ফেরদৌসের পর নূরকে ভারত ছাড়ার নির্দেশ

আগুনে পুড়লো মালিবাগের ২৬০ ব্যবসায়ীর সম্বল

ভারতে ভোটে হাঙ্গামা, ইভিএম বিভ্রাট

জরুরি সফরে ঢাকা আসছেন ভারতের বিদেশ সচিব

ফেঁসে যাচ্ছেন রাজউকের ২০ কর্মকর্তা-কর্মচারী

সড়ক দুর্ঘটনায় ১১ জনের মৃত্যু

প্রধানমন্ত্রীর ব্রুনাই সফরে ছয় চুক্তি হতে পারে

সুবীর নন্দীর শারীরিক অবস্থা অপরিবর্তিত

দেশে এখন অবলীলায় হত্যা ধর্ষণ হচ্ছে: ফখরুল

গণমাধ্যমের স্বাধীনতায় ৪ ধাপ পিছিয়ে ১৫০তম বাংলাদেশ

প্রেমের ফাঁদে ফেলে অপহরণ, ৬ দিন পর উদ্ধার

ম্যালেরিয়া ঝুঁকিতে ১ কোটি ৮০ লাখ মানুষ

‘আমার সবকিছু কেড়ে নেয়ার পর মেয়ের দিকে কু-দৃষ্টি পড়ে যুবলীগ নেতা উজ্জ্বলের’