তবুও বিপিএলে দেশিদের আক্ষেপ

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার | ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, রোববার
শেষ পর্যন্ত ব্যাটিং তালিকার সেরা পাঁচে জায়গা করে নিয়েছেন তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহীম।  সেরা ১০ আছেন রনি তালুকদার, ইয়াসির আলী ও সাকিব আল হাসান। তবে স্টিভেন স্মিথ, অ্যালেক্স হেলস, ভিলিয়ার্স, ওয়ার্নাররা শেষ পর্যন্ত খেলতে পারলে পাল্টে যেতে পারতো চিত্র। তারপরেও ষষ্ঠ আসরে ব্যাট হাতে রাজত্ব করেছেন আসলে বিদেশি ব্যাটসম্যানরাই। ১৩ ইনিংসে ৫৫৮ রান করে শীর্ষে আছেন রাইলি রুশো। আসরের ৬ সেঞ্চুরির পাঁচটিই বিদেশিদের ব্যাট থেকে। সৌম্য সরকার, মোসাদ্দেক হোসেন, নূরুল হাসান সোহান, সাব্বির রহমান, লিটন দাস, এনামুল হক বিজয়রা খুব একটা সফল হতে পারেননি। সবচেয়ে আতঙ্কের বিষয় তামিম-মুশফিকদের বিকল্প হিসেবে কোনো তরুণই নিজেদের অবস্থানের জানান দিতে পারেননি। আশা ছিল আফিফ, জাকির, শান্তদের নিয়ে।
কিন্তু হতাশ করেছেন তারাও। অবশ্য বল হাতে  সেরা পাঁচে দেশিদেরই দাপট। শীর্ষে আছেন সাকিব। তার সঙ্গে জায়গা করে নিয়েছে তরুণ পেসার তাসকিন ও সাইফ উদ্দিন। তরুণদের হতাশ করা পারফরম্যান্স ভাবাচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকেও (বিসিবি)। যে কারণে প্রিমিয়ার লীগের দলগুলোকে নিয়ে শুধু দেশিদের জন্য একটি টি-টোয়েন্টি লীগের আয়োজনেরও চেষ্টা চলছে।
দেশসেরা ওপেনার তামিম ইকবালের শুরুটা ভালো হয়নি। ফাইনালের আগে কুমিল্লার হয়ে মাত্র দুটি ফিফটি হাঁকিয়েছিলেন দেশসেরা এই ওপেনার। শেষ পর্যন্ত ফাইনালে নিজের ১৪তম ম্যাচে ব্যাট হাতে বিস্ফোরণ ঘটান তামিম। ৬১ বলে ১৪১ রান করেন। তাতেই দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৪৬৭ রানের মালিক এখন তিনি। শেষ বেলায় তামিম সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে মান বাঁচায় দেশিদের। তারপর আছেন চিটাগংয়ের অধিনায়ক মুশফিক। এই উইকেট কিপার ব্যাটসম্যান ছিলেন দারুণ ধারাবাহিক। ১৩ ম্যাচে ৩ ফিফটিতে করেন ৪২৬ রান। তারপর আছেন সিলেটের ক্যারিবীয় তারকা নিকোলাস পুরান ও ৫ম স্থানে রাজশাহীর লরি ইভান্স।  সেরা দশে ৬ষ্ঠ স্থানে রনি তালুকদার, ঘরোয়া ক্রিকেটে দীর্ঘদিনের পরীক্ষিত ক্রিকেটার তিনি। জাতীয় দলেও সুযোগ হয়েছিল। এবার ঢাকার হয়ে নিয়মিত ব্যাট হাতে পারফরম্যান্স করেছেন। ১৩ ম্যাচে ৩ ফিফটি করেছেন ৩১৭ রান। ফাইনাল ম্যাচে  খেলেছেন ৬৬ রানের ঝড়ো ইনিংস। এরপরই আছেন চট্টগ্রামের ইয়াসির আলী। ২২ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার আশরাফুলের জায়গাতে সুযোগ পেয়ে ১১ ম্যাচে ৩ ফিফটিতে করেছেন ৩০৭ রান। তার দল খেলেছে শেষ চারের এলিমিনেটর পর্বেও।
সিনিয়র ক্রিকেটারদের মধ্যে বিপিএলে এবার বেশ ব্যর্থ খুলনার অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। ১২ ম্যাচে ২শ’র মতো রান করেন। এছাড়াও জাতীয় দল থেকে দীর্ঘদিন আগে বাদ পড়া জুনায়েদ চমক দেখিয়েছেন খুলনার হয়ে। ১২ ম্যাচে করেছেন ২৯৮ রান। সামসুর রহমান শুভ কুমিল্লার হয়ে ২২২ রান করে দাবি রেখেছেন জাতীয় দলে ফিরে আসার। চ্যাম্পিয়ন দলে অধিনায়ক হলেও কুমিল্লার ইমরুল কায়েসও ছিলেন ব্যর্থ।
অন্যদিকে ঘরোয়া ক্রিকেটে নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে সাব্বিরের বিপিএল ব্যাট হাতে কেটেছে ভালোমন্দে। ১২ ম্যাচে ১ ফিফটিতে করেছেন ২৭৬ রান। এই পারফরম্যান্সে অবশ্য কপাল খুলেছে তার। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ৬ মাস নিষিদ্ধ হলে শেষ পর্যন্ত তা শেষ হওয়ার এক মাস আগেই ফিরেছেন জাতীয় দলে। হতাশ করেছেন সৌম্য সরকার, রাজশাহীর হয়ে ৯ ম্যাচে করেছেন মাত্র ৮০ রান। এই পারফরম্যান্সের পরও জাতীয় দলে তার উপর আস্থা রাখা হয়েছে। একই ভাবে ব্যর্থ দারুণ আলোচনায় থাকা আরিফুল হকও। খুলনার হয়ে ১১ ম্যাচ করেছেন ১২৪ রান। আলোতে আসতে ব্যর্থ হয়েছেন লিটন দাস। সেই তুলনাতে মোহাম্মদ মিঠুন ছিলেন ধারাবাহিক। ইনজুরি কাটিয়ে মাঠে ফেরা মোসাদ্দেকের শুরুটা ভালো না হলেও শেষ পর্যন্ত তিনি করেছেন ২৩৩ রান। তবে রাজশাহীর হয়ে ব্যাটে বলে ধারাবাহিক ছিলেন বিপিএলের সর্বোকনিষ্ঠ অধিনায়ক মেহেদী হাসান মিরাজ। তবে একেবারেই তরুণদের মধ্যে আফিফ হোসেন ও জাকিরকে নিয়ে আশা থাকলে নিজেদের তেমন ভাবে মেলে ধরতে ব্যর্থ হয়েছেন। ১২ ম্যাচে ২৪৮ রান করেছেন আফিফ। কিন্তু পারফরম্যান্সে ছিল না ধারাবাহিকতা। জাকির করেছেন ১২৬ রান। এছাড়াও চরম ব্যর্থ নাজমুল হোসেন শান্ত। সব মিলিয়ে তার ব্যাট থেকে এসেছে ১০ ম্যাচে ১৩৮ রান।   
ব্যাটে দেশিরা হতাশ করলেও বল হাতে ২৩ উইকেট নিয়ে শীর্ষে সাকিব। তার পরই আছেন ২২ উইকেট পাওয়া তরুণ পেসার তাসকিন। এই পারফরম্যান্সে ফিরেছিলেন জাতীয় দলেও। তবে শেষ পর্যন্ত ইনজুরিতে ছিটকে পড়েন তিনি। ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি এ বয়সেও ছিলেন অসাধারণ। বল হাতে তার শিকার ২২ উইকেট। তারপরই আছেন একই সমান উইকেট পাওয়া রুবেল হোসেন ও ৫ম স্থানে ২০ উইকেট পাওয়া সাইফ উদ্দিন। এছাড়াও নতুনদের মধ্যে পেসার আবু জায়েদ রাহী ১৮, খালেদ আহমেদ ১৭ উইকেট নিয়ে নিজেদের প্রমাণ করেছেন। অভিজ্ঞদের মধ্যে ফরহাদ রেজার শিকারও ১৮ উইকেট। আর ১৬ উইকেট নিয়ে তাসকিনের পরিবর্তে ওয়ানডে দলে ফিরেছেন আরেক অভিজ্ঞ শফিউল ইসলাম।

সেরা পাঁচ ব্যাটসম্যান
ক্রিকেটার     দল     ইনিংস     রান     গড়      সর্বোচ্চ     ১০০/৫০
রাইলি রুশো     রংপুর      ১৩     ৫৫৮     ৬৯.৭৫     ১০০*     ১/৫
তামিম ইকবাল     কুমিল্লা    ১৪    ৪৬৭    ৩৮.৯১    ১৪১*      ১/২
মুশফিকুর রহীম     চিটাগং     ১১    ৪২৬    ৩৫.৫০    ৭৫    ০/৩
নিকোলাস পুরান     সিলেট    ১১    ৩৭৯    ৪৭.৩৭     ৭৬*    ০/৩
লরি ইভান্স    রাজশাহী    ১১    ৩১৭    ৩৭.৬৬    ১০৪*    ১/২

সেরা পাঁচ বোলার
ক্রিকেটার     দল    ইনিংস    উইকেট     ম্যাচসেরা     ইকো.
সকিব আল হাসান     ঢাকা     ১৫    ২৩    ৪/১৬    ৭.২৫
তাসকিন আহমেদ    সিলেট     ১২    ২২    ৪/২৮    ৮.৫৫
মাশরাফি বিন মুর্তজা    রংপুর     ১৪    ২২    ৪/১১    ৭.০৩
রুবেল হোসেন    ঢাকা     ১৫    ২২    ৪/২৩    ৭.৭২
মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিন    কুমিল্লা     ১৩    ২০    ৪/২২    ৭.৭৩



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

বাংলাদেশের জনগণ ভালো থাকলে কিছু মানুষ অসুস্থ হয়ে যায়

ভারত ও পাকিস্তান দুই দেশই সুর চড়াচ্ছে

বোনের খোঁজে দিশেহারা ভাই

বিয়ের দাওয়াত না দেয়ায় বরের উপর হামলা

অনিশ্চিত ভবিষ্যতের পথে শামছলের পরিবার

পশ্চিমবঙ্গে মাতৃভাষা দিবস সাড়ম্বরে পালিত

সরকারের অবহেলা খতিয়ে দেখবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের তদন্ত কমিটি

কেন্দ্রীয় নেতারা কেন ব্যর্থ হলেন সেই উত্তর চান প্রার্থীরা

মাকে খুঁজছে অবুঝ সানিন

যুক্তরাষ্ট্র চাইলে আরেকটি ‘কিউবার মিসাইল সংকটের’ জন্য প্রস্তুত রাশিয়া

বাড়াবাড়ি করলে ভারতের বিরুদ্ধে যুদ্ধের নির্দেশ

টার্গেটে বিশ্বের সব থেকে বড় বাংলা ব্লগ

সিলিন্ডার গ্যাসের বিকল্প খুঁজছি: কাদের

ডিএনএ টেস্টের জন্য রক্ত সংগ্রহ করছে সিআইডি

গ্যাস সংকটে চকবাজারের বাসিন্দারা

ইসলামিক স্টেটের ১৩ সন্ত্রাসীকে আটক করেছে ইরানী গোয়েন্দারা