পুলিশের ওপর হামলা

ছাত্রলীগ নেতাসহ ৯ জন রিমান্ডে

শেষের পাতা

স্টাফ রিপোর্টার | ২৪ জানুয়ারি ২০১৯, বৃহস্পতিবার | সর্বশেষ আপডেট: ১১:২৬
ছাত্রলীগের পল্টন থানার সভাপতিসহ গ্রেপ্তারকৃতদের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। অন্যের পাওনা টাকা উদ্ধারে ছাত্রলীগ সভাপতি ও তার সঙ্গীরা সশস্ত্র অবস্থায় বাণিজ্যিক ভবনে ঢুকে হামলা চালায়। এতে আশেপাশে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। চিৎকার শুনে এগিয়ে যায় টহল পুলিশ। তারাও রেহাই পায়নি। হামলা করা হয় পুলিশের ওপর। হামলায় আহত হন পুলিশ সদস্যরা। এমনকি তাদের অবরুদ্ধ করে রাখেন ছাত্রলীগের পল্টন থানার সভাপতি শেখ নাজমুল হোসাইন মিরন ও তার সঙ্গীরা।
পরবর্তীতে অতিরিক্ত পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে তাদের উদ্ধার করে।

এ ঘটনায় ১৬ জনকে আটক করা হয়েছে। মামলা করা হয়েছে দুটি। পুলিশ জানিয়েছে, গভীর রাতে থানার বেতার যন্ত্রের মাধ্যমে টহলরত পুলিশ জানতে পারে ৫৫ পুরানা পল্টনের ১৮/সি’র ফ্ল্যাটে বিশ্বাস ট্রেড ইন্টারন্যাশনালের অফিসে সন্ত্রাসী হামলা হচ্ছে। তাৎক্ষণিকভাবে পুলিশ ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন পল্টন থানার উপ-পরিদর্শক কাজী আশরাফুল হক। সেখানে গিয়ে তিনি দেখতে পান অফিসের চেয়ার-টেবিল ভাঙচুর করা হচ্ছে। এসময় ভাঙচুরে বাধা দিলে পুলিশের ওপর হামলা চালানো হয়। হামলায় পুলিশের কনস্টেবল সাইফুল ইসলামের পোশাক ছিঁড়ে যায়।

এ ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার বাদী এসআই কাজী আশরাফুল হক অভিযোগ করেছেন, পুলিশ সদস্যদের হত্যার উদ্দেশ্যে এলোপাতাড়ি মারধর করতে থাকে সন্ত্রাসীরা। এসময় ছাত্রলীগের পল্টন থানার সভাপতি শেখ নাজমুল  হোসাইন মিরন একটি ধারালো ছোরা হাতে নিয়ে কাজী আশরাফুল হকের ওপর হামলা করেন। আশরাফুল হক দূরে সরে গিয়ে নিজেকে রক্ষা করেন। এসময় পুলিশ সদস্যদের অবরুদ্ধ করে রাখা হয়। তাৎক্ষণিকভাবে বেতার যন্ত্রের মাধ্যমে ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তাদের সহযোগিতা চান আশরাফুল হক। খবর পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে জিম্মিদশা থেকে পুলিশ সদস্যদের উদ্ধার করে। এসময় ধারালো ছোরাসহ ছাত্রলীগ নেতা শেখ নাজমুল হোসাইন মিরনসহ অন্যদের আটক করা হয়। এ ঘটনায় কনস্টেবল সাইফুল ইসলাম, আনসার মঞ্জুরুল হক, আনসার আনোয়ার হোসেন গুরুতর আহত হয়েছেন। তাদেরকে রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

পল্টন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুল হক জানিয়েছেন, পুলিশকে মারধরের অভিযোগে শেখ নাজমুল হোসাইন মিরনসহ আসামিদের এক সপ্তাহের রিমান্ডে চেয়েছে পুলিশ। এ ঘটনায় দুটি মামলা হয়েছে। এর মধ্যে পুলিশকে মারধরের ঘটনায় নয়জনকে আর প্রতারণার মামলায় সাতজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানান তিনি। গ্রেপ্তারের পর পুলিশকে মারধর করার ঘটনায় মিরনসহ নয় জনের একদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

গতকাল দুপুরে তাদের ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করে রিমান্ড আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পল্টন থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) জাহাঙ্গীর হোসেন। এসময় আসামিপক্ষের আইনজীবীরা রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিন আবেদন করেন। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সাদবির ইয়াসির আহসান চৌধুরী জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে নয় জনের একদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। তারা হচ্ছেন, শেখ নাজমুল হোসেন, ওয়াহিদুল ইসলাম, আরিফ, শেখ রহিম, রাসেল, শাহ্‌ আলম চঞ্চল, আরিফ হোসেন, কাওসার আহমেদ সাইফ ও মোয়াজ্জেম।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

বাংলাদেশের জনগণ ভালো থাকলে কিছু মানুষ অসুস্থ হয়ে যায়

ভারত ও পাকিস্তান দুই দেশই সুর চড়াচ্ছে

বোনের খোঁজে দিশেহারা ভাই

বিয়ের দাওয়াত না দেয়ায় বরের উপর হামলা

অনিশ্চিত ভবিষ্যতের পথে শামছলের পরিবার

পশ্চিমবঙ্গে মাতৃভাষা দিবস সাড়ম্বরে পালিত

সরকারের অবহেলা খতিয়ে দেখবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের তদন্ত কমিটি

কেন্দ্রীয় নেতারা কেন ব্যর্থ হলেন সেই উত্তর চান প্রার্থীরা

মাকে খুঁজছে অবুঝ সানিন

যুক্তরাষ্ট্র চাইলে আরেকটি ‘কিউবার মিসাইল সংকটের’ জন্য প্রস্তুত রাশিয়া

বাড়াবাড়ি করলে ভারতের বিরুদ্ধে যুদ্ধের নির্দেশ

টার্গেটে বিশ্বের সব থেকে বড় বাংলা ব্লগ

সিলিন্ডার গ্যাসের বিকল্প খুঁজছি: কাদের

ডিএনএ টেস্টের জন্য রক্ত সংগ্রহ করছে সিআইডি

গ্যাস সংকটে চকবাজারের বাসিন্দারা

ইসলামিক স্টেটের ১৩ সন্ত্রাসীকে আটক করেছে ইরানী গোয়েন্দারা