মির্জা ফখরুল সম্পর্কে কাদের

তিনি সজ্জন, ভালো মানুষ

শেষের পাতা

স্টাফ রিপোর্টার | ২২ জানুয়ারি ২০১৯, মঙ্গলবার | সর্বশেষ আপডেট: ১০:০৯
আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে সজ্জন ও ভালো মানুষ উল্লেখ করে বলেছেন, মহাসচিব পদে পরিবর্তন আসবে কি আসবে না- সেটা বিএনপির বিষয়। এখানে আওয়ামী লীগের নাক গলানোর  প্রয়োজন নেই। এটা আমার পাল্টা রাজনৈতিক বক্তব্য ছিল। আমি ফখরুল সাহেবের পক্ষ নিলে ভেতরে-ভেতরে তিনি পার্সোনালি ঝামেলায় পড়বেন। গতকাল বিআরটিসি প্রধান কার্যালয়ে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, মির্জা ফখরুল ইসলাম সজ্জন মানুষ, তা ছাড়া মানুষ হিসেবেও ভালো। তিনি আসলে দলের চাহিদা পূরণ করলেন কি না, সেটা দেখবে বিএনপি।

তিনি (মির্জা ফখরুল) দল করেন, তাই দলের পক্ষে অনেক কিছু বলছেন।
তিনি তো আর বিএনপির আবাসিক প্রতিনিধির মতো বক্তব্য রাখেন না। আমি মির্জা ফখরুল ইসলামের মুখে নোংরা ভাষায় কথা শুনিনি। এ সময় উপজেলা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে না বিএনপির পক্ষ থেকে এমন বক্তব্যের প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, নির্বাচনের পর বিএনপিকে দেখলে শিল্পী জয়নুলের কাদায় আটকে পড়া গরুর গাড়ির মতো মনে হয়। কাদায় আটকে আছে, সেটা ভুলের কাদায়। বিএনপির এখনকার কথাবার্তা, আচরণে ভুল থেকে শিক্ষা নেয়ার কোনো ইংগিত বা ইশারা নেই। ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি মহাসচিবের মুখে শোচনীয় ব্যর্থতার অসংলগ্ন প্রলাপ আমরা শুনতে পাচ্ছি।

এই সরকারের আমলে স্থানীয় সরকার নির্বাচনে পাঁচটি সিটি করপোরেশনে বিএনপি জিতেছে। সর্বশেষ সিলেটেও তারা জিতেছে। এখন কি কারণে বিএনপি অংশ নেবে না, এটা তাদের ব্যাপার। নির্বাচনে অংশ নেয়া তাদের অধিকার, এ অধিকার তারা প্রয়োগ না করলে সেটা তাদের সিদ্ধান্তের ব্যাপার। আপনাদের মনে আছে ১৯৭০-এর নির্বাচনের কথা? সে সময় লিগ্যাল ফ্রেমের মধ্যেও বঙ্গবন্ধু নির্বাচনে অংশ নিয়েছিলেন। আজকেও আমরা বিএনপির অবস্থানে থাকলে সব নির্বাচনে অংশ নিতাম। কোনো নির্বাচন বর্জন করতাম না। এদিকে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন করপোরেশনে (বিআরটিসি) দুর্নীতির বিষয়ে কঠোরভাবে ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি পালন করা হবে বলে জানান তিনি। একইসঙ্গে বলেন, আগামী এপ্রিলের মধ্যে বিআরটিসি’র বহরে ৬০০ বাস এবং ৫০০ ট্রাক যুক্ত হবে। ওবায়দুল কাদের বলেন, বিআরটিসিতে দুর্নীতির বিষয়ে কঠোরভাবে ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি পালন করা হবে। সংস্থার গাড়িবহর পরিচালনা, রক্ষণাবেক্ষণ এবং রাজস্ব আহরণে স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতে সফ্‌টওয়্যারভিত্তিক ডিজিটাল ব্যবস্থাপনা চালু করা হচ্ছে। এরই মধ্যে কল্যাণপুর, মতিঝিল ও গাবতলী ডিপোতে পরীক্ষামূলক ডিজিটাল ব্যবস্থাপনা শুরু হয়েছে।

এতে দুর্নীতি কমার পাশাপাশি সেবার মান বৃদ্ধি পাবে। সেতুমন্ত্রী বলেন, বিআরটিসিকে লাভজনক করার লক্ষ্যে নতুন উদ্যমে কাজ শুরু করা হবে। এ লক্ষ্য অর্জনের পথে যেসব বাধা রয়েছে তা সুষ্ঠু পরিকল্পনার মাধ্যমে দূর করা হবে। তিনি বলেন, আগামী এপ্রিলের মধ্যে ভারতীয় ঋণ কর্মসূচির আওতায় বিআরটিসি’র বহরে ৬০০ বাস এবং ৫০০ ট্রাক যুক্ত হতে যাচ্ছে। এতে একদিকে বিআরটিসি’র সক্ষমতা বাড়বে, অন্যদিকে যাত্রী পরিবহনের সুযোগও সমপ্রসারিত হবে। এ সময় মন্ত্রী বিআরটিসির জনবল বৃদ্ধির উদ্যোগ নিতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন। বৈঠকে বিআরটিসির চেয়ারম্যান ফরিদ আহমদ ভুইয়াসহ সংস্থার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও ডিপো ম্যানেজাররা উপস্থিত ছিলেন।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

নতুনদের কাছে কোনটা প্রিয়; ফেসবুক নাকি লিটল ম্যাগাজিন?

ফেসবুকে পরিচয়,প্রেম-বিয়ে অত:পর

পরিবারের সবাইকে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে শ্যালিকাকে ধর্ষণ

ভারতের সঙ্গে সৌদি আরবের সম্পর্ক ডিএনএতে: ক্রাউন প্রিন্স

'খালেদা জিয়া কবে মুক্তি পাবেন?'

গ্যাস সরবরাহ বন্ধ, দুর্ভোগ

এবার দল থেকে পদত্যাগ করলেন ৩ কনজারভেটিভ এমপি

চট্টগ্রামে পিকনিক বাসে ট্রেনের ধাক্কা, আহত ১৩

র‌্যাগিংয়ের অভিযোগে ইবির ৫ শিক্ষার্থী বহিষ্কার

রূপগঞ্জে ইভটিজিংয়ের অভিনব সাজা

আড়ং মোড়ে গ্যাস লাইন বিস্ফোরণ, ২ গাড়িতে আগুন, দগ্ধ ৫

পাবনায় হত্যা মামলায় ৫ জনের যাবজ্জীবন

অর্থনৈতিক সফলতায় বাংলাদেশি রেসিপি

প্রশ্নফাঁস ও ফলাফল পরিবর্তন করে দেয়ার নামে প্রতারণা, গ্রেপ্তার ৪

৪র্থ ধাপে ১২২ উপজেলায় নির্বাচন ৩১শে মার্চ

নিভৃতচারী এক ভাষাসৈনিক খলিলুর রহমান, মেলেনি রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি