গোয়াইনঘাটে মাঠে একাধিক প্রার্থী

বাংলারজমিন

মিনহাজ উদ্দিন, গোয়াইনঘাট (সিলেট) থেকে | ২০ জানুয়ারি ২০১৯, রোববার
গোয়াইনঘাটে জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আমেজ শেষ হতে-না-হতেই আবারও নির্বাচনী উৎসব শুরু হয়েছে। উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে ঘিরে শুরু হয়েছে নির্বাচনী ডামাঢোল। উৎসাহ-উদ্দীপনা শুরু হয়েছে এই স্থানীয় নির্বাচনকে ঘিরে। উপজেলা সদরের সবকটি হাট-বাজার, চায়ের দোকান কিংবা মুদির দোকানে নির্বাচনের সম্ভাব্য প্রার্থী এবং দলীয় সমর্থন পাওয়ার বিষয় প্রাধান্য পাচ্ছে আলোচনায়। নির্বাচনী আড্ডাও যেন জমে উঠছে শীতের উষ্ণতায়। উপজেলার ৯টি ইউনিয়নের মধ্যে সবকটি গ্রাম-হাট-বাজার, অলিগলিও নির্বাচনে সম্ভাব্য প্রার্থীদের লাগানো পোস্টার-ফেস্টুনে ভরে উঠছে। প্রচারণা আনুষ্ঠানিকভাবে যদিওবা শুরু হয়নি তবুও আওয়ামী লীগ বিএনপির মনোনীত প্রার্থী হতে দৌড়ঝাঁপে ব্যতিব্যস্ত প্রার্থীরা গ্রাম থেকে গ্রামে, হাট-বাজার থেকে হাট-বাজারে তাদের গণসংযোগ প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। শীতের তীব্রতা কিংবা কুয়াশায় ঢাকা সকালের মেঠোপথ অতিক্রম করে ভোটারদের দারস্থ হয়ে একজন প্রার্থী হিসেবে আগাম শুভেচ্ছা ও ভোট প্রার্থনায় ব্যস্ত রয়েছেন সম্ভাব্য প্রার্থীগণ।
উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রত্যাশীরা ছুটে বেড়াচ্ছেন উপজেলার সর্বত্র। বিভিন্ন এলাকায় বিয়ে-শাদী, ওয়ালিমা, ওয়াজ মাহফিল, কীর্ত্তন, পূজা-পার্বণ কিংবা সামাজিক যেকোনো অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে প্রার্থীগণ তাদের স্বপক্ষে ভোট প্রার্থনার পাশাপাশি অনুষ্ঠানসমূহে উপহার-সামগ্রী অনুদান দিচ্ছেন কেউ কেউ। আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে গোয়াইনঘাট থেকে যাদের নাম শোনা যাচ্ছে তারা হলেন, গত উপজেলা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী, উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা সাবেক জেলা মুক্তিযোদ্ধার কমান্ডার পূর্ব জাফলং ইউপি চেয়ারম্যান লুৎফুর রহমান লেবু, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. ইব্রাহিম, সাধারণ সম্পাদক ও আলীরগাঁও ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ গোলাম কিবরিয়া হেলাল, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক  ফারুক আহমদ, যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগ নেতা গোলাপ মিয়া, আলীরগাঁও ইউপি’র সাবেক চেয়ারম্যান যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী আবুল কাশেম মো. আনোয়ার শাহাদাত, বিএনপি থেকে দুবারের নির্বাচিত বর্তমান উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা বিএনপির সহসভাপতি
আব্দুল হাকিম চৌধুরী, জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি ও উপজেলা বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি লেঙ্গুড়া ইউপি’র সাবেক চেয়ারম্যান লুৎফুল হক খোকন, উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলহাজ শাহ আলম স্বপনসহ একাধিক নেতা। তাদের মধ্যে লুৎফুর রহমান লেবু, আব্দুল হাকিম চৌধুরী, ফারুক আহমদ, মো. ইব্রাহিম, গোলাম কিবরিয়া হেলাল, শাহ আলম স্বপন, গোলাপ মিয়াদের নামই আলোচিত হচ্ছে।

আওয়ামী লীগ, বিএনপি মনোনীত প্রার্থী থাকবেন ৪৮৭.৭৩ কিলোমিটারের সীমান্ত জনপদ গোয়াইনঘাটের ভোটারদের মনিকোঠায়। এ দুদলের মনোনীত প্রার্থীই উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিজয়ী হবেন- এমনটাই ধারণা সাধারণ ভোটারদের। এ ব্যাপারে কথা হলে উপজেলার ৫নং আলীরগাঁও ইউনিয়নাধীন পূর্ণানগর (উত্তর) গ্রামের বাসিন্দা আনোয়ার বাদশা জানান, উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে উভয় দলের একাধিক প্রার্থী মাঠ চষে বেড়াচ্ছে। আমার মনে হয় আওয়ামী লীগ কিংবা বিএনপির মনোনীত প্রার্থীই বিজয়ী হতে পারেন। তবে দল যেহেতু রাষ্ট্র ক্ষমতায় সেহেতু আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থীর বিজয়ী হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে জড়িত আব্দুল হক নামের একজন নেতা জানান, যদিওবা দলীয় প্রতীকে নির্বাচন হবে সেক্ষেত্রে বিএনপি যদি অংশগ্রহণ করে তাহলে বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুল হাকিম চৌধুরী কিংবা আমাদের দলীয় মনোনীত প্রার্থী বিজয়ী হবেন বলে আমি মনে করি। উপজেলা যুবলীগ নেতা মো. তাজ উদ্দিন জানান, আসন্ন নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ থেকে গোয়াইনঘাট উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. ইব্রাহিমকে দলীয় মনোনয়ন দিলে বিজয়ী হওয়া সম্ভব বলে মনে করি। গোয়াইনঘাট উপজেলা পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান ও বিএনপির মনোনীত প্রত্যাশী আব্দুল হাকিম চৌধুরী জানান, দল যদি নির্বাচনে যায় এবং আমাকে দলীয় প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দেয়া হয়- তাহলে আমি নির্বাচন করব এবং ইনশাল্লাহ আমি আবারও গোয়াইনঘাটের উপজেলা পরিষদে বিজয়ী হতে পারব বলে আশাবাদী। আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী পূর্ব জাফলং ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান বীরমুক্তিযোদ্ধা লুৎফুর রহমান লেবু জানান, বিগত নির্বাচনে নৌকা প্রতীক ছিল না। তবে আমি আওয়ামী লীগের প্রার্থী ছিলাম এবং অল্প ভোটের ব্যবদানে আমি পরাজিত হই। আসন্ন নির্বাচনে আমার দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ যদি আমাকে নৌকা প্রতীকের কাণ্ডারি হিসেবে আমাকে মনোনীত করে তাহলে ইনশাল্লাহ বঙ্গবন্ধুর নৌকা পছন্দের প্রতীক বিজয়ী হয়ে এই উপজেলা প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনাকে উপহার দেব। উপজেলা পরিষদের বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলহাজ শাহ আলম স্বপনও আশাবাদী বিএনপির দলীয় প্রতীক ধানের শীষ নিয়ে নির্বাচন করার। তিনি জানান, আসন্ন নির্বাচনে দলের প্রতি একজন নিবেদিত প্রাণ কর্মী হিসেবে কাজ করে এবং বিগত দিনগুলো একজন ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে জনগণের মন জয় করেছি। আমি মনে করি ধানের শীষের মনোনীত প্রার্থী হিসেবে আমাকে বিবেচিত করা হয় তাহলে ভোটাররা আমাকেই ভোট দিয়ে বিজয়ী করবেন। যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগ নেতা গোলাপ মিয়া জানান, আমি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের একজন নিবেদিত প্রাণ কর্মী হিসেবে দলীয় কর্মকাণ্ড চালিয়ে আসছি। সদ্যসমাপ্ত জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষ্যেও আমি সুদূর যুক্তরাজ্য থেকে দেশে এসে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী জননেতা ইমরান আহমদ ও নৌকার বিজয়ে বিরামহীন প্রচারণায় অংশগ্রহণ করেছি। আমি আশাবাদী আমার দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ গোয়াইনঘাট উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে যদি আমাকে নৌকা তথা আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী বিবেচনা করেন তাহলে বিজয়ী হতে পারব। এদিকে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ফারুক আহমদ, অপর যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী আওয়ামী লীগ নেতা আলীরগাঁও সাবেক চেয়ারম্যান, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল কাশেম মো. আনোয়ার শাহাদাতও আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী হতে ইচ্ছা পোষণ করেছেন। তারা উভয়ে সাংবাদিকদের জানান, দল যদি তাদের মনোনয়ন দেন তাহলে তারাই নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার যোগ্যতা দেন।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

রোহিঙ্গা সঙ্কটের স্থায়ী সমাধান চান ব্রুনেই সুলতান

রোহিঙ্গা ইস্যু: বাংলাদেশ সফরে আসছেন জাতিসংঘের তিন শীর্ষ কর্মকর্তা

ঘুমের ইনজেকশন দিয়ে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ, পল্লী ডাক্তার গ্রেপ্তার

‘শ্রীলঙ্কায় হামলা চালায় ৭ আত্মঘাতী’

দেশে অস্বাভাবিক সরকার আসতে পারে, আশঙ্কা মোশাররফের

দেশে সন্ত্রাসী হামলার ঝুঁকি নাই: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

৪ দিনেও উদ্ধার হয়নি কালা মিয়ার কাটা পা, গ্রেপ্তার হয়নি হোতারা

২০ মিনিটে হত্যালীলা

কক্সবাজারে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ রোহিঙ্গা নিহত

ইরানি তেল আমদানিতে বিধিনিষেধ আসছে, বেড়েছে দাম

শ্রীলঙ্কায় আরো হামলার সতর্কতা যুক্তরাষ্ট্রের

হামলার নিন্দা জানিয়ে ভোটারদের আশ্বস্ত করলেন মোদি

শেখ সেলিমের নাতি জায়ানের মৃতদেহ আসছে কাল

পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির পক্ষে ঢেউ চলছে, দাবি অমিত শাহর

প্রচারে বাংলাদেশি অভিনেতাদের ব্যবহারে তৃণমূলের স্বীকৃতি বাতিলের দাবি বিজেপির

বাড়ছে সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা, বাড়ছে হুমকি