স্বীকার করলেন জেসিয়া

বিনোদন

স্টাফ রিপোর্টার | ১৯ জানুয়ারি ২০১৯, শনিবার | সর্বশেষ আপডেট: ১১:১৭
সম্প্রতি ইউটিউবার ও অভিনেতা সালমান মুক্তাদিরের বাড়িতে মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ জেসিয়া ইসলামের ইটপাটকেল ছোড়ার ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে নেটদুনিয়ায়। বিষয়টি নিয়ে বেশ ধোঁয়াশাও সৃষ্টি হয়েছিল। ভিডিওর মেয়েটি আসলেই জেসিয়া কি না! অবশেষে জেসিয়া নিজেই স্বীকার করেছেন তিনিই ছিলেন সেদিন রাতে। বছরখানেকেরও বেশি সময় ধরে প্রেম চলছে সালমান ও জেসিয়ার মধ্যে। তাদের ঘনিষ্ঠ কিছু ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও ভাইরাল হয়েছে। কিন্তু হঠাৎ করে সম্পর্কে অবনতি ঘটেছে সালমান-জেসিয়ার। সমপ্রতি সালমানের বাড়ির প্রবেশমুখে জেসিয়ার ইটপাটকেল ছোড়ার একটি ভিডিও নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নানা জল্পনা-কল্পনা শুরু হয়েছে।
কিন্তু মধ্যরাতে কেন এমনটি করলেন জেসিয়া? উত্তরে তিনি বলেন, সালমান ও আমার প্রেমের সম্পর্ক দেড় বছরেরও বেশি।
কিন্তু কিছুদিন ধরে সে আমার কাছে অনেক বিষয় লুকাচ্ছিল। আর সেদিনও আমার সঙ্গে সালমান একটা বিষয়ে মিথ্যা বলে, বিষয়টি বুঝতে পেরে আমি ওর বাসায় যেতে বাধ্য হই। সে ভাবতে পারেনি, এত রাতে আমি যাব। কিন্তু আমার আর কোনো উপায় ছিল না। বাড়িতে ইটপাটকেল ছুড়ে মারার বিষয়ে জেসিয়া বলেন, আমি শুরুতে কিন্তু এমনটা করিনি। আমি যখন সালমানের বাড়ি যাই তখন রাত দুইটার কাছাকাছি। প্রথমে কলবেল দিয়েছিলাম। এরপর ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করে ব্যর্থ হই। কোনোভাবেই কেউ আমাকে ভেতরে ঢুকতে দেয়নি। সালমান আমার ধৈর্যের বাঁধ ভাঙতে বাধ্য করে। কারণ, আমি দুই ঘণ্টা বাইরে দাঁড়িয়েছিলাম। পরিশেষে এ বিষয়ে জেসিয়া বলেন, এই চ্যাপ্টার আপাতত বন্ধ রেখেছি। আমি এখন কাজ নিয়ে ব্যস্ত হবো। আমার অনেক কাজের সুযোগ থাকলেও করা হয়নি। আমি এখন কাজ আর পড়াশোনায় মন দেব। আর কিছু নিয়ে ভাবতে চাই না আমি। কারণ, আমি মনে করি অনেক সময় চলে গেছে। কিন্তু সত্যিকার অর্থে কিছু পাইনি আমি সালমানের কাছ থেকে।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

সাফিল আখন্দ

২০১৯-০১-১৯ ১৬:৫৫:৪৩

সহজ-সরল কথায় বলে, “সুজন চিনা কইরো পীরিত”। থার্ড ক্লাস প্রেমের থার্ড ক্লাস এণ্ডিং। আশা করি প্রতারিতজন এ থেকে কিছু শিক্ষা পাবেন। দেখাদেখি হয়তো আরো অনেকেও।

আপনার মতামত দিন