ঢাকার বিপক্ষে ওয়ার্নারকে নিয়ে শঙ্কায় সিলেট

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার | ১৮ জানুয়ারি ২০১৯, শুক্রবার
টানা চার জয় নিয়ে বিপিএলের সিলেট পর্বে খেলতে নেমেছিল ঢাকা ডায়নামাইটস। কিন্তু ৮ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে থাকা দলটি হোঁচট খায় পঞ্চম ম্যাচে। হেরে যায় রাজশাহী কিংসের কাছে। আজ সাকিব আল হাসানের ঢাকা ঘুরে দাঁড়ানোর লড়াইয়ে মুখোমুখি হবে ঘরের দল সিলেট সিক্সার্সের। বিপিএলের ৬ষ্ঠ আসরে ঢাকা পর্বে সিলেট তিন ম্যাচের মধ্যে মাত্র একটাতেই জয়ের দেখা পেয়েছিল। এমনকি নিজেদের মাঠে প্রথম ম্যাচে হেরে যায় কুমিল্লার কাছে। কিন্তু পরের ম্যাচেই রংপুর রাইডার্সকে উড়িয়ে তুলে নেয় দারুণ জয়। এই জয়ে ব্যাট হাতে দলকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দেন ডেভিড ওয়ার্নার।
সঙ্গে ঝড় তোলেন দেশি তরুণ তারকা লিটন কুমার দাস। তবে ঢাকার বিপক্ষে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের আগে সিলেটের জন্য এসেছে বড় দুঃসংবাদ। ইনজুরির কারণে দেশে ফিরে যাচ্ছেন সিলেট অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার। অস্ট্রেলিয়ার এই তারকা ক্রিকেটারের কনুইতে ইনজুরি। তবে তার চলে যাওয়া নিয়ে রয়েছে ধূম্রজাল। কারণ সিলেট সিক্সার্সের পক্ষ থেকে এখনো ওয়ার্নারকে নিয়ে নিশ্চিত করে কিছু বলা হয়নি। তবে সিক্সার্স ওয়ার্নারের ইনজুরির সংবাদ নিশ্চিত করেছে। দলটির মিডিয়া ম্যানেজার বলেন, ‘ওয়ার্নারের সঙ্গে বিস্তারিত কথা বলার পর জানানো হবে তিনি থাকবেন নাকি চলে যাবেন। এখনই চূড়ান্ত নয় তার ফিরে যাওয়া ওয়ার্নারের ইনজুরিটা নতুন নয়।’
অন্যদিকে জানা গেছে তিনি হয়তো দুই’ একটি ম্যাচ খেলেই অস্ট্রেলিয়া যাবেন চিকিৎসার জন্য। এবারের বিপিএলে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের হয়ে খেলতে এসেছিলেন অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ। ওয়ার্নারের সঙ্গেই বল টেম্পারিংয়ের অভিযোগে নিষিদ্ধ হন স্মিথ। মূলত সে কারণেই মাঠে ফেরার লড়াইয়ে নিজেদের প্রমাণ করতে বাংলাদেশে এসেছিলেন। তাদের পেয়ে বিপিএলের চমক ও আকর্ষণও বেড়ে যায়। কিন্তু ইনজুরির কারণে স্মিথের বিপিএল শেষ হয় গেছে। আর সেই একই শঙ্কা দেখা দিয়েছে ওয়ার্নারের বেলাতেও। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার খবর অনুযায়ী, ডান কনুইয়ের ব্যথা ওয়ার্নারের। দেশে ফেরার পর পরীক্ষা করে দেখা হবে চোট কতটা গুরুতর। তবে ওয়ার্নার ছাড়াও সিলেট একেবারে দুর্বল তা বলা যাবে না। দেশিদের মধ্যে লিটন রানে ফিরেছেন। এ ছাড়াও সাব্বির রহমান যদি ফর্মে ফেরেন তবে একাই ম্যাচ ঘুরিয়ে দেয়ার ক্ষমতা রাখেন। এ ছাড়াও বিদেশি তারকা নিকোলাস পুরান দলের হয়ে সর্বোচ্চ ১৯১ রান করেছেন। সর্বোচ্চ রান সংগ্রহের তালিকাতে তার অবস্থান দ্বিতীয়। বল হাতে তরুণ পেসার তাসকিন আহমেদও রয়েছেন ফর্মের তুঙ্গে। ৫ ম্যাচে তার শিকার ৯ উইকেট।
আগের ম্যাচেই রংপুরের বিপক্ষে ৩৬ বলে ৬১ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে প্রতিপক্ষকে গুঁড়িয়ে দেয়ার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন ওয়ার্নার। বিপিএলে এবার এখনো পর্যন্ত পাঁচ ম্যাচে দুটি ফিফটি করেছেন তিনি। সেই সঙ্গে দলকেও দিয়েছেন দারুণ নেতৃত্ব। তাই ঢাকার বিপক্ষে ওয়ার্নার যদি শেষ পর্যন্ত খেলতে না পারেন সেই ক্ষেত্রে সিলেটের জয়ে থাকার লড়াই কঠিন হয়ে যাবে অনেকটা। তবে ঢাকার শক্তি আছে আগের মতই অটুট। যদিও রাজশাহী কিংসের বিপক্ষে ২০ রানের হারের পর দলটির হয়তো কিছুটা হলেও আত্মবিশ্বাসে আঘাত লেগেছে। হযরতউল্লাহ জাজাই ঢাকার হয়ে ৫ ম্যাচে ২ ফিফটিতে করেছেন ১৪৬ রান। অবস্থান করছেন চলতি আসরে সেরা রান সংগ্রহের তালিকাতে তৃতীয় স্থানে। এ ছাড়াও সাকিব আল হাসান, কাইরন পোলার্ড, আন্দ্রে রাসেলরা যে কোনো মুহূর্তে হয়ে উঠতে পারেন ভয়ঙ্কর। বল হাতে সুনীল নারাইনতো আছেনই। এ ছাড়াও দেশি ক্রিকেটারদের দারুণ ভূমিকা রয়েছে ঢাকার টানা চার জয়ে। এর মধ্যে ব্যাট হাতে রনি তালুকদার, ও নাঈম শেখ অন্যতম। আর বল হাতে চমক দেখানো অফস্পিনার আলিস আল ইসলাম। যদিও তার বোলিং নিয়ে আছে বিতর্ক।
সব মিলিয়ে সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ঢাকা ডায়নামাইটসের জন্য অপেক্ষা করছে দারুণ চ্যালেঞ্জ। বিশেষ করে উইকেট হতে পারে তাদের আরেক প্রতিপক্ষ। যেখানে প্রথম দুইদিন রাজত্ব করেছে স্পিনাররাই। আর সিলেট নিজেদের মাঠে এই ম্যাচে জিততে মরিয়াই থাকবে। কারণ আসরে টিকে থাকতে হলে তাদের জয়ের বিকল্প নেই। মাত্র ২ জয়ে ৪ পয়েন্ট নিয়ে দলটির অবস্থান এখন পয়েন্ট তালিকার ষষ্ঠ স্থানে। এই মাঠে আলোচনায় থাকবে উইকেটও। কারণ প্রথম তিন ম্যাচে এই উইকেটে ৬ ইনিংসে কোনোটি দেড়শ পার হয়নি। যদিও শেষ ম্যাচে রংপুরের বিপক্ষে সিলেট করেছে ১৮৫ রান। জবাবে রংপুর তুলেছিল ১৬০ রান।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন