শমসেরনগর স্টেশন এলাকার অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

বাংলারজমিন

কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি | ১৭ জানুয়ারি ২০১৯, বৃহস্পতিবার
সিলেট রেলপথের কমলগঞ্জ উপজেলার শমসেরনগর রেলওয়ে স্টেশনের আশপাশে অবৈধভাবে গড়ে ওঠা কিছু স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে। গতকাল সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত এ উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। বাংলাদেশ রেলওয়ের ঢাকা ডিভিশনাল ম্যাজিস্ট্রেট নজরুল ইসলাম ও রেলওয়ে সহকারী ভূমি কর্মকর্তা ডেপুটি কমিশনার অহিদুন্নবীর নেতৃত্বে উচ্ছেদ অভিযানকালে অবৈধভাবে গড়ে ওঠা কয়েকটি পাকা দালানকোটা ভেঙে উচ্ছেদ করা হয়। দীর্ঘদিন ধরে কমলগঞ্জের শমশেরনগর রেলওয়ের জমি কৃষি লিজ নিয়ে কলোনি ও বাসাবাড়ি স্থাপন করে অন্যত্র বিক্রয় করা হচ্ছিল। লিজের শর্তাবলী ভঙ্গ করে কর্তৃপক্ষের কোনোরূপ অনুমতি ছাড়াই লিজ গ্রহীতারা একের পর এক অবৈধ স্থাপনা গড়ে তুলেন।
অভিযোগ রয়েছে, দীর্ঘদিন ধরে শমসেরনগর রেলওয়ে স্টেশনে কর্মরত অসাধু কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের ম্যানেজ করেই লিজ নেয়া কৃষিজমিতে কমার্শিয়ালভাবে কলোনি স্থাপন, ঘরবাড়ি নির্মাণ করে বিক্রি করা হয়। শমসেরনগর রেলওয়ে স্টেশনের চার পাশে রেলওয়ের জমিতে ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান ও কলোনি স্থাপনের রমরমা ব্যবসা চালাচ্ছেন স্থানীয় একটি সিন্ডিকেট চক্র। ওই চক্রটি রেলস্টেশনের দক্ষিণ পাশে পরিত্যক্ত লাল গুদামঘরটিও তাদের দখলে নিয়ে ব্যবসা চালাচ্ছেন। গুদামের পার্শ্ববর্তী রেলওয়ে জমিতে গড়ে তোলেন পাকা বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান।  স্টেশনের আশপাশে কর্তৃপক্ষের কোনোরূপ অনুমতি ছাড়া অবৈধ স্থাপনা গড়ে তোলা হলেও রহস্যজনক কারণে তাদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়নি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।
রেললাইন সংলগ্ন কৃষিজমিতে অবৈধভাবে বসতি স্থাপনে পাকা ঘরবাড়ি নির্মাণ বা মাটি কেটে কলোনি নির্মাণ করা হলেও পানি নিষ্কাশনের ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় বর্ষা মওসুমে জলাবদ্ধতায় রেলপথের মাটি ধসে দুর্ঘটনার আশঙ্কা করা হয়।
এ ব্যাপারে গত বুধবার শ্রীমঙ্গল রেলওয়ে (জিআরপি) থানায় লিখিত অভিযোগটি করেন সিলেট-আখাউড়া সেকশনের কুলাউড়া অঞ্চলের সিনিয়র সহকারী প্রকৌশলী মনিরুল ইসলাম। এরপরই অবৈধ স্থাপনা উদ্ধারে উদ্যোগ নেয় রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। মঙ্গলবার রেলওয়ে জমিতে গড়ে তুলা অবৈধ স্থাপনা নিজ উদ্যোগে সরিয়ে নেয়ার জন্য এলাকায় মাইকিং করে জানানো হয়। কিন্তু দখলদাররা নিজ উদ্যোগে স্থাপনা সরিয়ে না নেয়ায় শ্রমিক লাগিয়ে পাকা দালানকোটা ভেঙে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়।
অভিযান শেষে রেলওয়ে সহকারী ভূমি কর্মকর্তা ও ডেপুটি কমিশনার অহিদুন্নবী বলেন, রেলের জমিতে গড়ে ওঠা অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযানের অংশ হিসেবে আজ এখানে অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানকালে অবৈধভাবে গড়ে ওঠা কয়েকটি পাকা দালান ভেঙে দখলদারদের উচ্ছেদ করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে এখানের সব অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হবে।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন