মিয়ানমারের দূতকে তলব ঢাকার প্রতিবাদ

প্রথম পাতা

কূটনৈতিক রিপোর্টার | ১৬ জানুয়ারি ২০১৯, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ১১:৫৬
সীমান্তের শূন্য রেখার ১৫০ গজের মধ্যে থাকা তুমব্রু খালে মিয়ানমার অবৈধভাবে কেন পাকা স্থাপনা নির্মাণ করছে, তার কারণ জানতে চেয়েছে ঢাকা। এ বিষয়ে জানতে গতকাল মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূত উ লুইন ও’কে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব করা হয়। বিকালে পূর্ব নির্ধারিত সময়ে রাষ্ট্রদূত মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক দেলোয়ার হোসেনের দপ্তরে উপস্থিত হলে তার সঙ্গে সংক্ষিপ্ত আলোচনা শেষে ঢাকার তরফে একটি প্রতিবাদপত্রও হাতে ধরিয়ে দেয়া হয়।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে, মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূত উ লুইন ও’কে ডেকে এনে জানতে চাওয়া হয়, বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তের শূন্যরেখার ১৫০ গজের মধ্যে তুমব্রু খালে মিয়ানমারের পাকা স্থাপনা নির্মাণের কারণ কী। এ সময় রাষ্ট্রদূত উ লুইন ও’ জানান, তার জানামতে ওই স্থাপনা বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তের শূন্য রেখার ৩০০ গজের বাইরে। আর সেটা কোনো পাকা স্থাপনা নয়। ওখানে আগে থেকেই অস্থায়ী স্থাপনা রয়েছে। ওই অস্থায়ী স্থাপনার খুঁটিগুলো স্থায়ী করা হচ্ছে।
উ লুইন ও’ আরো জানান, এ  বিষয়ে ঢাকার উদ্বেগ নেপি’ডকে জানানো হবে। উল্লেখ্য, একই বিষয়ে উদ্বেগ জানিয়ে মিয়ানমারের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিপিকে গত ১৪ই জানুয়ারি চিঠি দিয়েছে বাংলাদেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিবি। কূটনৈতিক সূত্র বলছে, রাষ্ট্রদূতের কাছে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রশ্নে রাখাইন কতটা প্রস্তুত তা-ও জানতে চেয়েছে ঢাকা। এর আগে, আরাকান আর্মি ও আরসা নিয়ে বাংলাদেশকে জড়িয়ে মিয়ানমারের প্রেসিডেন্টের কার্যালয়ের মুখপাত্রের দেয়া বিবৃতির কড়া প্রতিবাদ জানিয়েছে ঢাকা। মিয়ানমারকে গত ৮ই জানুয়ারি কূটনৈতিক চ্যানেলে এই প্রতিবাদপত্র পাঠানো হয়।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন